বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

থাইল্যান্ডঃ কেন পিটাক সিয়াম বিক্ষোভ ব্যর্থ

থাইল্যান্ডের সরকার বিরোধী দল পিটাক সিয়াম (থাইল্যান্ড রক্ষাকারী) গত ২৪ নভেম্বর তারিখে ব্যাংককের রাস্তায় বিক্ষোভ প্রদর্শনের সময় দশ লক্ষ জনতা জড়ো করার প্রতিশ্রুতি প্রদান করেছিল, কিন্তু বিক্ষোভে তারা মাত্র ২০,০০০ জনতা জড়ো করতে সক্ষম হয়। এই মিছিল শেষে সংঘর্ষে রূপ নেয় এবং প্রধানমন্ত্রী ইংলাক সিনাওয়াত্রার সরকারের পতনের দাবী অর্জন না করে বিক্ষোভকারীরা সন্ধ্যায় ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়।

এই দলের মতানুসারে ইংলাককে ক্ষমতা থেকে সরে যেতে হবে, কারণ সে দুর্নীতিগ্রস্ত এবং সে তার ভাই থাকসিনের হাতের পুতুল। তার ভাই, থাইল্যান্ডের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী থাকসিন ২০০৬ সালে এক সামরিক অভ্যুথানের মাধ্যমে ক্ষমতাচ্যুত হয়। ইংলাকের বিরুদ্ধে রাজার প্রতি অশ্রদ্ধা প্রদর্শনের অভিযোগ রয়েছে, যে রাজা কিনা থাই রাজনীতিতে এক আদরণীয় চরিত্র।

ব্লগার, সাংবাদিক এবং শিক্ষাবিদেরা পিটাক সিয়াম-এর ব্যর্থতা এবং এই বিক্ষোভের রাজনৈতিক প্রভাব নিয়ে লিখেছে।

পিটাক সিয়াম আয়োজিত বিক্ষোভের সময় বিক্ষোভকারীদের সাথে দাঙ্গা পুলিশের সংঘর্ষ। ছবি পিটি এ সাহাকোরন–এর। কপইরাইট @ডেমোটিক্সের (১১/২৪/২০১২)

গ্লোবাল ভয়েসেস-এর লেখক এইম সিনেপেং এই দলের বিক্ষোভ আয়োজনের প্রকৃত উদ্দেশ্যের প্রতি গুরুত্ব প্রদান করেছে:

এই মিছিল ইংলাক সরকার, অথবা রেড শার্ট নামক দল নিয়ে ছিল না। এই বিক্ষোভ ছিল প্রাক্তন ইয়েল শার্ট নামক দলের নিজেদেরকে পরিচয়কে আবার জোরালো এবং থাই সমাজে পুনরায় নিজেদের অবস্থান তৈরি করার।

এই বাস্তবতায়, পিটাক সিয়াম মিছিল বেশ কয়েকভাবে ব্যর্থ হয়েছে, নেতৃত্বের পর্যায়ে, সংখ্যার দিক থেকে এবং তাদের নিজেদের আলাদা বিভিন্ন দলের মধ্যে সমন্বয়ের অভাব ছিল। এছাড়াও তাদের সবসময় থাকসিন শাসনের বিরোধিতা করা এবং রাজকীয়-রক্ষণশীল থাই মনোভাব বজায় রাখার ঈর্ষান্বিত প্রচেষ্টা কখনো কমবে না।

রেড শার্টের অনেক সদস্য এবং নেতা থাকসিনের সাথে যুক্ত। ইয়েলো শার্ট হচ্ছে থাকসিন বিরোধী দল যারা ২০০৮ সালে বিশাল আকারের সব মিছিলের আয়োজন করেছিল।

নিক নোস্তিজ এই মিছিলের সংবাদ প্রদান করেছেন এবং তার নিজের পর্যবেক্ষন তুলে ধরেছে:

সর্বোপরি, আমি খুশী এবং এই কারণে স্বস্তিতে আছি যে এই দিনে সংঘর্ষের মাত্রা খুব বেশী ছিল না। উত্তেজনা ছড়ানোর মত যথেষ্ট ঘটনা ঘটেছিল, কিন্তু ভয়াবহ কোন সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেনি। আমি যতদূর জানি তেমন কোন গুরুতর আহতের ঘটনা ঘটে নি। আমি মনে করি পুলিশ সুনিয়ন্ত্রিত প্রতিক্রিয়া প্রদর্শন করেছিল এবং সুশৃঙ্খল ছিল,আর আমি দেখতে পাচ্ছি যে বিগত বছরগুলোতে তারা তাদের প্রশিক্ষণ উন্নত করেছে। এছাড়াও বিক্ষোভকারীদের দিক থেকে যে আক্রমণের সূচনা হয় তা ততটা ভয়াবহ ছিল না,যদিও বিগত বছরগুলোতে আমি এই রকম অনেক ঘটনা ঘটতে দেখছি।

এন্ড্রু স্পুনার, থাইল্যান্ডের পিটাক সিয়াম-এর ‘অগণতান্ত্রিক দাবীর’ সংবাদ প্রকাশে বিশ্বের সংবাদ মাধ্যমগুলোর ব্যর্থতার বিষয়টি উল্লেখ করেছে:

আরো একবার আমি জিজ্ঞেস করতে চাই, কেন, পিটাক সিয়াম-এর বিষয়ে তথ্য উপস্থাপনে এই ব্যর্থতা, যা এক পরিপূর্ণ রূপ লাভ করেছে। এই দলটি বারবার এবং জনসম্মুখে এই বিষয়টি পরিষ্কার করেছে যে, তাদের উদ্দেশ্য হচ্ছে গণতন্ত্রকে ধ্বংস করা এবং থাইল্যান্ডকে স্থবির করে দেওয়া, তারপরেও কোন বিদেশী সংবাদদাতা এই বিষয়ে কোন সংবাদ প্রদান করেনি…কেন এমনটা ঘটেছে? কিছু তথ্য প্রদানে কি এমন সমস্যা? অথবা কথিত কিছু তথ্য হারিয়ে গেছে, বিশেষ করে যখন সংবাদদাতার প্রচণ্ডভাবে সন্দিগ্ধ এবং “নিরপেক্ষ থাকতে” বাধ্য?

ব্যাংকক পণ্ডিতের মতে এটা বেশ দূর্বল ভাবে আয়োজন করা মিছিল:

যে সমস্ত এলাকায় বিক্ষোভ প্রদর্শনের ঘোষণা প্রদান করা হয় তার কাছাকাছি রাস্তায় এবং সংঘর্ষের সম্ভাবনা রয়েছে এমন অগ্রিম সংবাদ কিছু ব্যক্তিকে আতঙ্কিত করে তোলে-এটা হয়ত অন্যদের এই মিছিলে যোগ দেওয়ার জন্য উৎসাহিত করতে পারে-কিন্তু কেন বিশাল সংখ্যক জনতা এতে অংশগ্রহণ করেনি, তার জন্য কি কোন বিশ্বাসযোগ্য কাহিনী আছে?

সরকারের উপর চড়াও হবার যে লক্ষ্য এই মিছিলে তা অর্জন হয়নি।যা আশা করা হয়েছিল গত মাসে তার চেয়ে বেশী পরিমাণ জনতার উপস্থিতির কারণে নিঃসন্দেহে বিক্ষোভাকারীরা এক গতিশীলতা লাভ করেছিল। কিন্তু এইবার মিছিলের জন্য ঠিকমত প্রস্তুত গ্রহণ করার দরকার ছিল, এবারে যে আশা করা হয়েছিল, তা পূর্ণ করতে আয়োজকরা পুরোপুরি ব্যার্থ হয়েছে।

যেখানে যাওয়ার জন্য আপনার কয়েক ঘণ্টা ভ্রমণ করেছেন এবং অকার্যকর হিসেবে এর পরিসমাপ্তি ঘটেছে, পরবর্তী মিছিলে অংশ নিতে আপনি এর দ্বারা কতটা অনুপ্রাণিত? সকল সংবাদ পাওয়ার এবং কিছু ভাষণ শোনার পর, বোঝা যাচ্ছে এই মিছিলটি দুর্বলভাবে আয়োজন করা হয়, যার মধ্যে মাত্র কয়েকটি ভাষণ ছিল আকর্ষনীয়।

দি লস্ট বয় এই মিছিলের ভবিষ্যত নিয়ে আলোচনা করেছে:

কিভাবে সরকারকে উৎখাত করতে চায় এই বিষয় নিয়ে এই দলের কোন বাস্তবিক পরিকল্পনা নাই, অনেকটা সামরিক অভ্যুত্থানের মত করে তারা তা করতে চায়। যখন বৃষ্টি শুরু হয় হয় তখন তারা মিছিলে সমাপ্তি ঘোষণা করে এবং এটা ছিল প্রমাণ যে, মিছিলে আর কোন লোক আসবে না। এই ঘটনায় সেখানে উপস্থিত বেশ কয়েকজন অংশগ্রহণকারী তাদের নেতাদের উপর হতাশা প্রদর্শন করে, যেখানে তার দলকে এক সুতায় গাঁথতে নেতাদের ব্যর্থ হবার বিষয়টি উল্লেখ করে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .