বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

পূর্ব তিমোর: সুশীল সমাজ সংযুক্ত হচ্ছেন

নারিকেল গাছের উপর সৃজনশীল উপায়ে সম্প্রচারের ব্যবস্থা

নারিকেল গাছের উপর সৃজনশীল উপায়ে সম্প্রচারের ব্যবস্থা (ছবি, ফংটিল আইটি বিভাগ এর সৌজন্যে)

পূর্ব তিমোর এর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) খাতে নেয়া কতিপয় পদক্ষেপের মধ্যে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে মূল লক্ষ্য ছিল সুধী সমাজের কাছে ইন্টারনেট সংযোগ সহজলভ্য করা। উচ্চমূল্য, দুর্বল অবকাঠামো এবং টেলিযোগাযোগ খাতে একটি প্রতিষ্ঠানের একচেটিয়া আধিপত্যই বলে দিচ্ছে এখনও দীর্ঘ পথ পাড়ি দিতে হবে ডিজিটাল প্রযুক্তি দ্বারা দেশটির জ্ঞান, কর্মসংস্থান ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের মাধ্যমে একটি অধিক বিস্তৃত ইতিবাচক পরিবেশ তৈরি করার পূর্বে।

নতুন নিয়ন্ত্রিত পরিবেশ

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে একটি গ্লোবাল ভয়েসেস পোস্টে ঐ সময়ে ঘটে যাওয়া বিষয়গুলো উপস্থাপন করা হয়েছিল যেখানে ডিজিটাল প্রযুক্তির সাথে পূর্ব তিমোরের গভীর ব্যবধানের চিত্র তুলে ধরা হয়েছিল: “৯ বছরের ইন্টারনেট, এখনও একটিমাত্র আইএসপি (ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার) এবং ডিজিটাল প্রযুক্তির সাথে দূরত্ব“। পোস্টটি এভাবে শুরু হয়েছিল:

দীর্ঘকাল পরাধীন থাকার পর রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মাধ্যমে পূর্ব তিমোর স্বাধীন হয়। গণভোটের সহিংসতার পর যোগাযোগ ও সামাজিক অবকাঠামোগুলো ধ্বংস হয়ে গিয়েছিল। একুশ শতকে আত্মপ্রকাশ করা স্বাধীন দেশটিতে প্রযুক্তির কোন পরিবেশই ছিল না।

World Bank Internet access numbers from 2008 in East Timor (taken from Abel Pires da Silva paper)

বিশ্ব ব্যাংকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী ২০০৮ সালে পূর্ব তিমোরে ইন্টারনেট ব্যবহার (অ্যাবেল পাইরেস দ্যা সিলভা'র পেপার থেকে সংগৃহীত)

এক বছর পর, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতে ধীরে হলেও ইতিবাচক ধারা বইতে শুরু করল। সবচেয়ে বড় প্রতিবন্ধকতাগুলোর একটি হল টেলিযোগাযোগ সেবার উচ্চমূল্য। টেম্পো সেমানাল (Tempo Semanal) একটি রিপোর্ট করেছে যে তিমোর টেলিযোগাযোগ খাতে একচেটিয়া চুক্তি শেষ:

মন্ত্রীপরিষদমণ্ডলীর গত মাসের (মার্চ) একটি সভায় বলা হয়, ৮ বছর পূর্বে প্রথম সরকার পর্তুগাল টেলিকম ও এর সহযোগীদের টিএল টেলিকমিউনিকেশনস বাজারে ১৫ বছরের একচেটিয়া ব্যবসার যে অধিকার দিয়েছিল তা শেষ হয়েছে। “এই বুধবারে (৩১/০৩) আমরা আনুষ্ঠানিকভাবে একটি জাতীয় টেলিযোগাযোগ-ব্যবস্থা চুক্তি অনুমোদন করেছি। এই চুক্তিটি টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থার উদারনীতিকরণ সম্বন্ধে পূর্বেই আমাদের জানতে সাহায্য করবে। যেসব কোম্পানিগুলো টিএল এ আসতে আগ্রহী তাদের অনুমোদনের জন্য আইন গঠনে চুক্তিটি আমাদের জন্য শর্তাবলীও তৈরি করবে, “উপপ্রধানমন্ত্রী জোসে লুইস গুটারেস (José Luis Guterres) বলছিলেন…

২০০৯ সালের জুলাইয়ে বদলে যাচ্ছে পূর্ব তিমোর কনফারেন্সে পূর্ব তিমোর আইসিটি অ্যাসোসিয়েশন (আইসিটি টিএল) এর প্রেসিডেন্ট অ্যাবেল পাইরেস দ্যা সিলভা তাঁর উত্থাপিত একটি পেপারে পূর্ব তিমোরের আইসিটি পরিস্থিতি সম্পর্কে বলেন, “এটি এখনও ভ্রুনাবস্থায় রয়েছে”, তিনি বোঝাতে চেয়েছিলেন, “সীমিত জ্ঞান ও স্বীকৃতির মধ্যে কিভাবে নীতিনির্ধারক, নিয়ন্ত্রক এবং সাধারণ মানুষজন আইসিটি উন্নয়নে অবদান রাখতে পারেন।”

তবে আইসিটি খাতে নেয়া নিম্নে বর্ণিত পূর্ব তিমোরের কয়েকটি পদক্ষেপ আইসিটি খাতে সম্ভাবনা জাগিয়েছে।

সাধারণ মানুষদের জন্য তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সুযোগ

যখন ইন্টারনেট ব্যবহারের উচ্চমূল্যের জন্য তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সুবিধা সীমিত হয়ে এসেছে, এসময় অলাভজনক প্রতিষ্ঠান বা এনজিওগুলোকে ইন্টারনেট সংযোগের মাধ্যমে সাহায্য করার জন্য কয়েকটি সংগঠন কাজ করে যাচ্ছে।

Making Internet accessible for NGO Blind Union (photo used with permission)

ফংটিল আইটি বিভাগ: এনজিও ব্লাইন্ড ইউনিয়নের জন্য ইন্টারনেট সক্ষমতা তৈরি করা হচ্ছে

পূর্ব তিমোরের এনজিও ফোরাম (ফংটিল) পূর্ব তিমোরের ৩০০টিরও বেশি জাতীয় এনজিওর দেখাশোনা, প্রশিক্ষণ ও সমন্বয়সাধনের জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত।

আইটি বিভাগটি দেশের বিভিন্ন স্থানে এনজিও সদস্যদের ইন্টারনেট ও কম্পিউটার ব্যবহারের প্রশিক্ষণ মাধ্যমে তাদের সক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করছে। এটি স্থানীয় এনজিওগুলোর জন্য Oecusse (অ্যাক্যুসে), Same (স্যাম), Baucau (বাউকাউ), Viqueque (ভাইক্যুক্যু) এবং Dili (দিলি)'তে পাঁচটি আইটি সেন্টার চালু করেছে।

প্রশিক্ষণ ও সাধারণ প্রযুক্তি সহায়তার পাশাপাশি, আইটি এনজিও ব্লগ (আইডি) এর মতে, ফংটিলের আইটি বিভাগ দিলির সিভিল সোসাইটির সংগঠনগুলোর জন্য সঠিক সময়ে সাধ্যের মধ্যে বিকল্প ইন্টারনেট সুবিধা ওয়াইফাই সরবরাহের জন্য জোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে:

Alternatif Antena Wireless NGO ETBU dengan Wajan Pemasak

Koneksi internet di Negara baru ini merupakan barang mewah, dimana untuk bisa akses internet di warnet saja dipatok satu jam pemakaian $2.00 USD. Ini merupakan harga rata-rata untuk warnet yang dapat kita temukan di kota Dili. Sedangkan koneksi internet di tempat-tempat penginapan dan Hotel rata-rata mematok harga $3-$6 per jam.

Untuk Civil Society
NGO di Timor-Leste sangat sulit untuk bisa membayar akses internet dengan harga yang telah disebutkan. Untuk itu NGO FORUM sebagai payung bagi NGO di Timor-Leste merasa perlu untuk membantu para NGO untuk bisa koneksi ke Internet. Saat ini FONGTIL sendiri terkoneksi ke Internet melalui INET under ISP Timor-Telecom sebuah perusahaan Sub ISP yang dimilik oleh orang Australia.(…)

Sedangkan NGO dan organisasi sosial di Timor-Leste tidak mampu untuk bisa membayar harga internet diatas, untuk itu FONGTIL melalui divisi IT berusaha untuk bisa membantu member NGOnya dengan cara mendirikan sebuah Base Station Sangat Sederhana di Kaikoli dengan alat apa adanya untuk bisa melayani Internet wireless ke member Fongtil yang ada di kota Dili.

এনজিও ইটিবিইউ'র জন্য তারবিহীন বিকল্প অ্যান্টেনা তৈরি করা হচ্ছে

এ ধরণের নতুন দেশগুলোতে ইন্টারনেট সংযোগ এক ধরণের বিলাসিতা, যেখানে ইন্টারনেটের জন্য সাইবার ক্যাফেতে ঘণ্টা প্রতি দুই মার্কিন ডলার মূল্য দিতে হয়। এটি দিলি শহরের ক্যাফেগুলোতে ইন্টারনেট ব্যবহারের একটি গড় মূল্য মাত্র, যখন হোটেল এবং বাসাবাড়িতে ভাড়ায় ইন্টারনেট সংযোগ নেয়া হয় গড়ে এর মূল্য পরে তিন থেকে ছয় ডলার পর্যন্ত। ইন্টারনেট ব্যবহারের এই উচ্চমূল্যের জন্য পূর্ব তিমোরে এনজিওগুলোর পক্ষে ইন্টারনেট ব্যয় বহন করা খুব কঠিন ছিল। এজন্যই এনজিও ফোরাম, যা পূর্ব তিমোরের এনজিওগুলোর জন্য ছাতা হয়ে রয়েছে, তারা উপলব্ধি করল এনজিওগুলোকে ইন্টারনেট সুবিধা দিয়ে সাহায্য করা খুবই জরুরী। বর্তমানে ফংটিল নিজেই আইনেট নামক একটি অস্ট্রেলিয়ান আইএসপি (ইন্টারনেট সেবা প্রতিষ্ঠান) কোম্পানির মাধ্যমে ইন্টারনেটের সাথে সংযুক্ত রয়েছে। (…)

যখন পূর্ব তিমোরের এনজিও ও সামাজিক সংগঠনগুলো ইন্টারনেট সংযোগের ব্যয়ভার বহন করতে পারেনি, আইটি বিভাগের মাধ্যমে ফংটিল চেষ্টা করতে লাগল বিভিন্ন প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি দিয়ে কাইকলিতে (Kaikoli) একটি স্টেশন তৈরি করতে যা দিলি শহরে ফংটিলের এনজিও সদস্যদের তারবিহীন ইন্টারনেট সুবিধা প্রদান করবে।

ফংটিল আইটি বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত গুলহারমি সোয়ারেস (Guilherme Soares) প্রবল উৎসাহের সাথে বলেন যে, এখানে এখনও ইন্টারনেট সংযোগের সিগন্যালটির গতি ও শক্তিতে অনেক সমস্যা রয়েছে, তবে সরকার দেশের ইন্টারনেট প্রতিবন্ধকতা কাটিয়ে উঠতে পারবে, “আমরা আশাবাদী যে এনজিওগুলো একটি স্বল্পমূল্যে ইন্টারনেট সুবিধা পাবে”।

Technology.tl - The Info Timor enterprise has been developed to improve access to information technology in East Timor.

ট্যাকনোলজিডটটিএল – পূর্ব তিমোরের তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারে উৎকর্ষতা সাধনের জন্য ইনফো তিমোর উদ্যোগটির সৃষ্টি হয়েছে।

ইনফো তিমোর একটি অলাভজনক সামাজিক উদ্যোগ যা তুলে ধরছে দেশটির পুনর্নির্মাণে দক্ষতা উন্নয়ন, শিক্ষা ও কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টিতে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির ব্যবহার কিভাবে সাহায্য করবে। এ প্রকল্পটিতে বর্তমানে ২০জন কাজ করছেন, স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে একটি দলবদ্ধ হয়ে কাজ করার জন্য দেশটিকে দুটি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সম্পদ কেন্দ্রে ভাগ করা হয়েছে। তাদের কাজগুলো মূলত মেরামত করা কম্পিউটারগুলো বিদ্যালয়, কমিউনিটি সেন্টার, এতিমখানা ও সরকারী দপ্তরগুলোতে আইসিটি প্রশিক্ষণের জন্য বিতরণ করা।

কোপারনিক, “উন্নয়নশীল দেশের জন্য প্রযুক্তি সমাধানের একটি অনলাইন দোকান” যারা ২০১০ সালের মে মাসে পূর্ব তিমোরে একটি প্রযুক্তি মেলা‘র আয়োজন করবে, আশাবাদী কারিগরি সমাধানের ক্ষেত্রে জনসচেতনতার পথটি সুগম হবে যা জনজীবনের মানোন্নয়ন করবে। বর্তমানে ইন্টারনেট খরচ খুবই ব্যয়বহুল, যা তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির জন্য উন্নয়নমূলক পদক্ষেপগুলোকে দীর্ঘায়িত করছে।

1 টি মন্তব্য

আলোচনায় যোগ দিন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .