বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ইরানঃ “ইসলামের সৈনিক” কার্টুনিস্ট এর ফেসবুক পাতা হ্যাক করেছে

গত বুধবার, ১১ ই সেপ্টেম্বর ২০১২, ইরানের শীর্ষ কার্টুনিস্ট মানা নায়েস্তানির ফেসবুক পাতা আত্মস্বীকৃত হ্যাকাররা হ্যাক করেছে যারা নিজেদের “ইসলামের সৈনিক” বলে দাবি করেছে। হ্যাকাররা তাদের নিজেদের ফেসবুক পাতায় “খোদাকে ধন্যবাদ, আমরা মানা নায়েস্তানির ফেসবুক এক্যাউন্ট জয় করেছি ” পোস্ট (এখন অপসারিত) দিয়ে তাদের কর্মকাণ্ডের উদযাপন করেছে।

নায়েস্তানির ফেসবুক পাতায় দলটি যুক্তরাষ্ট্র, ইজরায়েল এবং কানাডার বিপক্ষে বিভিন্ন কার্টুন এবং ছবি পোস্ট করেছে। নায়েস্তানি একজন বিখ্যাত কার্টুনিস্ট এবং তার ফ্যান পেজে প্রায় ৭০,০০০ ‘লাইক’ আছে। গ্লোবাল ভয়েসেস তার অনেক কার্টুন প্রকাশ করেছে এবং ২০০৬ সালের বসন্তে বিতর্কিত কার্টুনের জন্য তার গ্রেফতারের খবরও প্রচার করেছে।

একজন হ্যাকারের কার্টুন ছিল কানাডার ইরানের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার সিদ্ধান্তের উপর। সেটার শিরোনাম ছিল “ইরানের উপর কানাডিয়ান দূতাবাসের বন্ধের প্রভাব” এবং অপ্রাসঙ্গিক হিসাবে এটি দেখানো হয়েছেঃ

আরেকটি কার্টুনের মাধ্যমে জিজ্ঞেস করা হয়েছে যে, সংবাদ মাধ্যম কেন বাহরাইন বাদ দিয়ে শুধু সিরিয়ার খবর প্রকাশ করে?

আত্মস্বীকৃত হ্যাকারদের মানা নায়েস্তানির ফেসবুক পাতা আক্রমণের একটি সম্ভাব্য কারন হয়তো ইরানিদের নিয়ে করা তার রাজনৈতিক কার্টুনগুলো, যেমন মারদোমাক। তার অতি সাম্প্রতিকতম কার্টুনগুলোর একটি তেহরানের নিরপেক্ষ সামিট নিয়ে, যেটি মারদোমাকে প্রকাশিত হয়েছেঃ

বিরোধী সাইট এবং ব্লগ হ্যাক করা নতুন যুদ্ধকৌশল নয়। ইসলামের সৈনিকের আগেও ইরানি সাইবার আর্মি সফলভাবে বিভিন্ন দেশের লক্ষ্যপূর্ণ ওয়েবসাইট হ্যাক করেছে এই বলে যে, সত্যিই ইন্টারনেটের কোনো সীমানা নাই, এমনকি টুইটারের মতো বড় ওয়েবসাইটগুলোও অজানা আক্রমণকারীদের বিরুদ্ধে ভঙ্গুর হতে পারে।

ফেসবুকের পাতা হ্যাক করা, কার্টুনিস্টদের জেলে দেওয়া এবং অন্য ধরনের দমন প্রক্রিয়া ইরানিদের মত প্রকাশের ইচ্ছার স্বাধীনতাকে, উভয় অনলাইন এবং অফলাইন এর জন্য প্রতিবন্ধক হতে পারে নি।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .