বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

আরব বিশ্বঃ সিরিয়া, ফিলিস্তিন এবং বাহরাইন-এর ঈদের দৃশ্য

ঈদ-উল ফিতর মুসলমানদের জন্য রোজার মাস-রমজান শেষ হবার বার্তা ঘোষণা করে, আর এর তিন দিন ধরে সারা আরব জাহানে উদযাপন চলে, অথবা ঐতিহ্য অনুসারে উদযাপিত হতে থাকে। তবে, এবারে সিরিয়া তার নাগরিকদের মৃতদেহ দাফন করা এবং বাহরাইনে পুলিশের গুলিতে এক ১৬ বছরের কিশোরকে কবরে শোয়ানোর কারণে দেশ দুটি নিরবে ঈদ উদযাপন করে।

সিরিয়া:

সিরিয়ার একটিভিস্ট রাজান সাফোউর আমাদের স্মরণ করিয়ে দিচ্ছেন:

@রাজানস্পিকস:মুসলমানদের জন্য আজকের দিনটি হচ্ছে ঈদ-উল-ফিতরের শেষ দিন। আর #সিরিয়ায় ঈদের এই তিন দিনে আসাদ সরকার দেশটির ৫০০ নাগরিককে হত্যা করেছে।

ডোনা, যে কিনা সিরিয়ার বাস করে, সে টুইট করেছে:

@ডোনাটেলল্যাডার: #সিরিয়া টিভি সেনাদের সাহসিকতার সাথে “সন্ত্রাসীদের” খুন করার ঘটনায় ঈদের শুভেচ্ছা যুক্ত করেছে, এবং সেনাদের জন্য তারা এমন অনুষ্ঠান নির্মাণ করছে যে সব অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সেনারা তাদের পরিবারকে ঈদের শুভেচ্ছা পাঠাচ্ছে। #বিরক্তিকর

আরবের অন্য সব স্বৈরশাসকের মত সিরীয় শাসক গোষ্ঠীও, সরকারী মালিকানাধীন এবং/অথবা নিয়ন্ত্রিত প্রচার মাধ্যমে বিক্ষোভকারীদের, “সন্ত্রাসী” এবং “গুণ্ডা” বলে অভিহিত করে।

এবং আবদুল্লাহ আলদাহাম ইউটিউবে পোস্ট করা এই ভিডিওটি প্রদর্শন করেছে, যেখানে দেখা যাচ্ছে হোমস নামক এলাকায় সরকারের একটি ট্যাঙ্ক দখল করায় সিরীয় শিশুরা বিষয়টিকে উপভোগ করছে, যারা ট্যাঙ্কটিকে একটি দোলনায় পরিণত করেছে:

ফিলিস্তিন:

Worshippers praying the Eid prayers in Gaza

গাজায় মুসল্লিরা ঈদের নামাজ পড়ছে। ছবি টুইটারের মাহের জাইন-এর এবং এই ছবিটি ১,০০০ বারের মত পুনরায় টুইট করা হয়েছে।

এদিকে ফিলিস্তিনে, টুইটার ব্যবহারকারীরা সংবাদ প্রদান করেছে যে ঈদের দিনে তারা “বিস্ফোরণের” শব্দ শুনেছে।

পালো রাওয়ান টুইট করেছে:

@মাইফ্রিপ্যাল: পশ্চিম গাজায় বিস্ফোরণের শব্দ শোনা গেছে। ইজরায়েলীরা আমাদের আনন্দদায়ক এক ঈদের শুভেচ্ছা জানাচ্ছে।#গাজা ঈদ মুবারক।

এবং রানা বাকের এর সাথে যোগ করেছে:

@রানাগাজা: ঈদের প্রথম দিনে প্রচণ্ড বিস্ফোরণে #গাজা কেঁপে কেঁপে উঠেছে!

এদিকে নুর ওদেহা, যে কিনা রামাল্লাহ বাস করে, সে তার পাঠকদের ফিলিস্তিনি নাগরিকদের দুর্দশার কথা স্মরণ করিয়ে দিচ্ছে এবং সিরীয় নাগরিকদের জন্য প্রার্থনা করার অনুরোধ জানাচ্ছে:

لم يعد حكرا على الفلسطينيين ان يتذكروا شهدائهم واسراهم ويدعو ان يأتي العيد القادم بالحرية والعودة عيدنا يوم عودتنا #فلسطين_#سوريا_الله_معاهم
@নুর_ওদেহা: শহীদ এবং বন্দীদের স্মরণ করা এবং আগামী ঈদেও স্বাধীনতার জন্য দোয়া করা, এখন আর ফিলিস্তিনি নাগরিকদের জন্য বিশেষ কিছু নয়। আমাদের জন্য ঈদের দিন হচ্ছে [ফিলিস্তিন] রাষ্ট্রে ফিরে যাওয়ার দিন। পরম করুণাময় যেন সিরিয়ার উপর সদয় হয়।

বাহরাইন:

বাহরাইন থেকে সুহাইল আলগোসাইবি টুইট করেছে :

@সুহাইলআলগোইসাইবি:এক মিশ্র অনুভূতির দিন;আমরা যারা #বাহরাইনের নাগরিক তাদের সকলের জন্য ঈদ মুবারক, এবং বাহরাইনের নাগরিকদের মধ্যে আমরা যারা সম্প্রতি তাদের প্রিয়জনকে হারিয়েছে, তাদের সকলের জন্য শোক প্রকাশ করছি।

ঈদের প্রাক্কালে দাঙ্গা পুলিশের হাতে হুশাম আল হাদ্দাদ নামক এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। আল জাজিরার এক পোস্ট যা এই কাহিনীর সাথে যুক্ত, সেই পোস্ট অনুসারে, বাহরাইনের কর্মকর্তারা বলছে যে নিরাপত্তা কর্মকর্তারা তাদের সঠিক পদ্ধতি অনুসরণ করছে এবং তারা হাদ্দাদকে একজন “সন্ত্রাসী” বলে অভিহিত করছে।

হাদ্দাদের এই মৃত্যুর ঘটনা বাহরাইনের নাগরিকদের সিতরার আলি জাওয়াদ আল শেখ-এর হত্যার ঘটনার কথা স্মরণ করিয়ে দেয়, যে কিনা গত বছর ঈদের সময় খুন হয়েছিল।

পর পর দুই ঈদে দুই কিশোরের হত্যাকাণ্ড, একই সাথে কিশোরদের গ্রেফতারের ঘটনা নেট নাগরিকদের #ঈদ_উইদাউট_কিডস ( সন্তানদের ছাড়া ঈদ) নামক হ্যাশট্যাগের মাধ্যমে নিজেদের পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার সূত্রপাত ঘটিয়েছে।

নুর রজব ইউটিউবের এই ভিডিওটি প্রদর্শন করেছে, যেখানে দেখা যাচ্ছে সিতরায় নিরাপত্তা বাহিনী নাগরিকদের গৃহ লক্ষ্য করে টিয়ার গ্যাস ছুড়ছে:

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .