বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

প্যারাগুয়ে: বাধ্যতামূলক শ্রমে যুক্ত এক শ্রমিক থেকে আদিবাসী নেত্রী

মার্গারিটা মাবোয়াঙ্গির বয়স যখন পাঁচ বছর তখন তাকে তার বাবামার কাছ থেকে নিয়ে যাওয়া হয় এবং জোরপূর্বক গৃহকর্মে নিয়োজিত করার জন্য বিভিন্ন সময় প্যারাগুয়ের বিভিন্ন ধনী পরিবারের কাছে তাকে বিক্রি করা হয়। স্বৈরশাসক আলফ্রেডো স্ট্রোসেনারের শাসনামলে (১৯৫৪-১৯৮৯) প্যারাগুয়ের আচেহ আদিবাসী সম্প্রদায়ের জন্য এটা ছিল এক অতি সাধারণ ঘটনা। সেই সাথে এই ধরনের অনুশীলনগুলো এই উদ্দেশ্য করা হত, যাতে জমির মালিকরা আচেহ সম্প্রদায়ের নাগরিকদের পূর্বপুরুষের ভুমি থেকে উচ্ছেদ করতে এবং তাদের জমি নিয়ে নিতে পারে, আর এই সমস্ত অপহরণের ঘটনার কারণে, অনেক তরুণ আচেহ নাগরিক নিজেদের আপন আবাস এবং আদিবাসী শিকড় থেকে নিজেদের অনেক দূরে আবিস্কার করত।

সম্প্রতি মাবোয়াঙ্গি, রাইজিং ভয়েসেস-এর প্রকল্প আচেহ দাজায়ু-তে (আচেহ শব্দ) [স্প্যানিশ ভাষায়] অংশ নিচ্ছে এবং সে তার জীবন নিয়ে একটি সংক্ষিপ্ত ব্লগ পোস্ট লিখেছে [স্প্যানিশ ভাষায়]:

Yo Mbywangi me contaron que nací en Kuetuvy en el año 1962, a los 5 años me robaron de mi madre en la época de la dictadura, crecí en una familia paraguaya hasta los 16 años, a la edad de 20 años volví con mi familia aché en la comunidad Chupapou en 1980. No encontré a mis padres, sólo encontré a mis hermanos.

আমি মাবোয়াঙ্গি, যে আমাকে বলা হয়েছিল যে আমার জন্ম হয়েছিল ১৯৬২ সালে কুয়েতুভি [সম্প্রদায়ের] মাঝে। যখন আমার বয়স পাঁচ বছর, তখন সেই স্বৈরশাসকের সময় আমাকে আমার মায়ের কাছ থেকে চুরি করে নিয়ে যাওয়া হয়। ১৬ বছর বয়স পর্যন্ত প্যারাগুয়ের এক পরিবার আমাকে লালন পালন করে। আর ১৯৮০ সালে, যখন আমি ২০ বছরে পদার্পন করি, তখন আমি চুপাপুয়াতে আমার আচেহ পরিবারে কাছে ফিরে আসি। আমি আমার বাবামাকে আর খুঁজে পাইনি। আমি কেবল আমার ভাইকে খুঁজে পেতে সমর্থ হই।

মার্গারিটা মাবোওয়াঙ্গি

আশির দশকের শুরুতে মাবোয়াঙ্গি অবশেষে চূড়ান্ত ভাবে তাঁর গৃহে ফিরে আসার পর এক নার্সে এবং একই সাথে সে একজন মা-তে রূপান্তরিত হয়। সে তাঁর ব্লগপোস্ট আরো জানাচ্ছে :

En el 81 tuve mi primer hijo y dije, ahora sí tengo un compañero, en ese dia estuve completa. Pasé aquellos años criando mi hijo y atendiendo la salud de la gente de mi comunidad.

১৯৮১ সালে, আমার প্রথম সন্তান জন্মগ্রহণ করে এবং সে সময় আমি নিজেকে বলি, এখন আমার একজন সঙ্গী হয়েছে, আর সেইদিন থেকে আমি নিজেকে পূর্নাঙ্গ মনে করলাম। আমি সন্তান লালন এবং আমার সম্প্রদায়ের নাগরিকদের স্বাস্থ্যগত বিষয়গুলো দেখাশোনার মধ্যে দিয়ে সেই দিন গুলো পার করে দিয়েছি।

তবে এক দশক পরে আদিবাসী নাগরিকদের অধিকার রক্ষায় তিনি অনেক বেশী রাজনৈতিকভাবে সক্রিয় হয়ে উঠেন। একদা তিনি প্যারাগুয়ের সিনেটে পদপ্রার্থী হয়েছিলেন এবং অবৈধভাবে বৃক্ষ কর্তনের হাত থেকে প্রাকৃতিক বনভূমিগুলোকে রক্ষার আন্দোলনে ভূমিকা রাখার জন্য তিনি জেলও খেটেছেন [স্প্যানিশ ভাষায়]। ২০০৮ সালে মাবোয়াঙ্গি প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি ফার্নান্ডো লুগোর প্রশাসন থেকে আদিবাসী বিষয়ক মন্ত্রিত্বের পদে দায়িত্ব গ্রহণের আমন্ত্রণ পান। আদিবাসী সম্প্রদায়ের মধ্যে তিনি প্রথম ব্যক্তি, যিনি উক্ত পদে আসীন হন।

রাইজিং ভয়েসেস প্রকল্পের অংশ হিসেবে, মাবোয়াঙ্গি কালেকটিভ ব্লগ ব্যবহার করা শুরু করেন, যাতে তিনি তাঁর অভিজ্ঞতা সবার কাছে তুলে ধরতে পারেন। এছাড়াও তিনি একটি টুইটার একাউন্ট খুলেছেন (@মার্গামাবোয়াঙ্গি), তবে এখনো তিনি নিয়মিত ভাবে সেটিকে আপডেট করার সাথে অভ্যস্ত হয়ে উঠার চেষ্টা করছেন। এই ভিডিওতে তিনি, অন্য আদিবাসী সম্প্রদায় এবং বৃহৎ পরিসরে বৈশ্বিক শ্রোতাদের কাছে তাঁর জীবন কাহিনী তুলে ধরার গুরুত্বের বিষয়ে কথা বলছেন।

আচেহ ঐতিহ্য অনুসারে তিনি তাঁর নামের ব্যাখ্যা প্রদানের মধ্যে দিয়ে নিজের ব্লগ পোস্টের ইতি টেনেছেন :

Me encanta que me llamen Mbywangi porque es el nombre que me puso mi mamá de sangre, y Margarita me puso mi segunda mamá aunque no fui reconocida por ellos como hija. Sólo tengo mi nombre y me siento feliz con los dos nombres que tengo.

যখন তারা আমাকে মাবোয়াঙ্গি বলে ডাকে তখন আমার খুব ভালো লাগে কারণ এই নামটি আমার সেই মায়ের দেওয়া যিনি আমাকে জন্ম দিয়েছেন এবং মার্গারিটা নামটি আমাকে গ্রহণ করা আমার দ্বিতীয় মায়ের দেওয়া, এমনকি যদিও তারা আমাকে তাদের কন্যা হিসেবে স্বীকৃতি প্রদান করেনি। আমার কেবল নামটাই আছে আর আমি আমার এই দুটি নাম নিয়ে সুখী।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .