বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

সুদান: বিক্ষোভ টুইটার এক্টিভিস্টদের গ্রেপ্তার উস্কে দিয়েছে

#উসামাহকেমুক্তকর

গতকালের বিক্ষোভে পুলিশ এবং জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সার্ভিস (এনআইএসএস) এজেন্টরা অনেক বিক্ষোভকারীকে রাস্তা থেকে গ্রেপ্তার করে। তাদের মধ্যে সুদানের বিশিষ্ট টুইটার ব্যক্তিত্ব এবং এক্টিভিস্ট উসামাহ মোহাম্মদ আলী (@সিমসিমত) রয়েছেন। তার সর্বশেষ টুইটে উসামাহ রাজধানী খার্তুমের রাস্তায় ঘটমান ঘটনা সম্পর্কে শব্দ ছড়িয়ে দিতে সাহায্য করার জন্যে মুক্ত বিষয়বস্তুর সমর্থনে কাজ করছিলেন:

যাই হোক (বিটিডাব্লিউ- বাই দা ওয়ে), আমি প্রযুক্তির লোক। এমনকি আমাকে উল্লেখ না করেও আপনি আমার টুইট ব্যবহার করতে পারেন। এখানে মুক্ত বিষয়বস্তুকে সমর্থন দেয়া হয়!

উসামাহ’র শেষ কয়েকটি টুইট তার হদিস এবং সরেজমিন পরিস্থিতি সম্পর্কিত। তিনি নাইল সড়কের [আরবী ভাষায়] পার্শ্বস্থ বারি এলাকায় অবস্থান করছিলেন:

في بري الشريف. عدد كبير من بكاسي الاحتياط والأمن ودفارات الشرطة والأهالي بأعداد متفرقة واقفين. ‎#جمعة_الكتاحة

বারি আল-শরিফ এলাকা। অনেক নিরাপত্তা বাহিনী ও পুলিশের ট্রাক এবং ব্যাপক সংখ্যক বাসিন্দা দাঁড়িয়ে আছে।

তিনি বলেছেন সেখানে নিরাপত্তা বাহিনীর অনেক লোক উপস্থিত ছিল এবং গ্রেপ্তার চলছিলো:

الأمنجية أعدادهم كبيرة ومتمركزين في أكتر من بوكسي. في بحري الشفناهم كانو مسلحين. أفتكر كلهم بكونو كدة. ‎#جمعة

অনেক সংখ্যক এনআইএসএস এজেন্ট এবং তারা একাধিক ট্রাকে করে জড়ো হয়েছিল। উত্তর খার্তুমে আমরা ওগুলো সশস্ত্র (অবস্থায়) দেখেছি। আমার মনে হয় সবগুলোই সেরকম ছিল।

তিনি নিজে গ্রেপ্তার হয়ে যাওয়ার কয়েক মূহুর্ত আগে নিরাপত্তা বাহিনীর গ্রেপ্তার চালানোর একটি ছবি  টুইট করেছেন।

بوكسي الأمن دة وقف العربية السيلفر الواقفة وراو وطلعو منها زول وركبو معاهم. العربية فيها أولاد وبنات. ‎#جمعة_الكتاحة

এই এনআইএসএস ট্রাকটি এর পিছনে থামিয়ে রাখা একটি রূপালী গাড়ীর পথরোধ করে কাউকে টেনে বের করেছিল। তারা তাকে তাদের গাড়ীতে নিয়ে গিয়েছিল। গাড়ীটি ছেলে-মেয়েদের দিয়ে ভর্তি ছিল।

গ্রেপ্তার হয়ে যাওয়ার দুই ঘন্টা পূর্বে উসামাহ জনগণকে জানানো নিশ্চিত করেছেন যে তিনি তার ভাই আসাদ (@আর্ক_আসাদ) যাকে গ্রেপ্তারের পরে মুক্তি দেয়া হয়েছে তার সঙ্গে রয়েছেন।

أنا معاي ‎@আর্ক_আসাদ عشان بس لو حصلت اي حاجة.

আমি আসাদের সঙ্গে আছি, ঘটনাক্রমে হয়তো আমার কিছু একটা হয়ে যেতে পারে।

মুক্ত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আসাদ টুইট করেছেন যে তিনি উসামাহ’র হদিস জানেন না।

@সিমসিমত এখনও মুক্ত হননি! এবং তিনি কোথায় আমি সেটা জানি না!!

আসাদের মতে উসামাহকে উত্তর খার্তুমে এনআইএসএস সদরদপ্তরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে এবং তাকে নেয়া হয়েছিল খার্তুমের একটি পুলিশ স্টেশনে।

উসামাহ’র বন্ধুরা তার নিরাপত্তার জন্যে তাদের উদ্বেগ এবং অবিলম্বে তার মুক্তির দাবি জানিয়ে টুইট করছিল। আইমান এলখিদির উসামাহ’র জন্যে প্রদর্শন করেছেন,

গতকাল এনআইএসএস টুইপ এবং এক্টিভিস্ট @সিমসিমতকে গ্রেপ্তার করেছে। ‪ #উসামাহকেমুক্তকর #সুদানেরবিদ্রোহ  #السودان_ينتفض

মন্তাগা এলআমীন দাবি করেছেন জনগণ বিক্ষোভের সময় আটক সব ব্যক্তিদের সম্পর্কে শব্দ ছড়িয়ে দিয়েছে:

টুইট  এবং পুণঃটুইট চালিয়ে যান আটক @সিমসিমত এবং @ওমরমাহগুব  ‪#ওমরকেমুক্তকর‪ #উসামাহকেমুক্তকর ‫#السودان_ينتفض‪#সুদা্নের _বিদ্রোহ ব্যাপারে

এছাড়াও সাংবাদিক, লেখক এবং উসামাহ’র ব্যক্তিগত বন্ধু মিশরীয় মোহাম্মেদ আল দাহসান তার নিরাপত্তার জন্যে উদ্বিগ্ন। তিনি টুইট করেছেন:

শুভরাত্রি। আশা করছি আগামীকাল আল্লাহর ইচ্ছায় @সিমসিমত, আহমেদ হুসেন, এবং অন্যান্যদের মুক্তিসহ  ‪#সুদান থেকে ভাল খবর বয়ে আনবে।

সেই দিনটির শুরুতে উসামাহ ৩০শে জুন, ২০১২ তারিখে – পরিকল্পিত বিক্ষোভ এবং সুদানের বর্তমান ক্ষমতাসীন ন্যাশনাল কংগ্রেস পার্টির ২৩তম বার্ষিকীর দিন – তার রাস্তায় যাওয়ার কারণকে গুরুত্ব দিয়ে  আল জাজিরার দি স্ট্রীম-এর জন্যে একটি ভিডিও ধারণ করেছিলেন।

সুদানের আরো অনেক কয়েকজন টুইটার ব্যবহারকারীকে গ্রেপ্তার করার পর ছেড়ে দেয়া হয়। যেমন ওমর মাহগুবকে (@ওমরমাহগুব) আজকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। উসামাহ’র মতো একই ভবনে তাকে আটকে রাখা হলেও বলেছেন তিনি তাকে দেখেননি।

উসামাহ ২৪ ঘন্টার বেশি সময় ধরে জন্যে কুখ্যাত এনআইএসএস-এর হেফাজতে রয়েছেন এবং তার টুইটার বন্ধুরা তার জন্যে #উসামাহকেমুক্তকর ব্যাবহার করে প্রচারাভিযান চালাচ্ছে।

খার্তুম এবং অন্যান্য রাজ্যে শাসকগোষ্ঠীর পতনের আহবান জানিয়ে চলমান বিক্ষোভের প্রাক্কালে আরো অসংখ্য শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীদের এনআইএসএস অপহরণ করে নিয়ে গিয়েছে যাদের অনেককে নির্যাতন করা হয়েছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .