বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

কেপ ভার্দে: গল্প বলা এবং সৃজনশীল রচনা প্রতিযোগিতা

[সমস্ত সংযোগ পর্তুগীজ ভাষার সাইটে]

কেপ ভার্দের তরুণ সাংবাদিক ওদেয়ার ভারেলা তার ব্লগ ক্রাইউলো এন’দেসকন্ত্রা’তে সাত সপ্তাহের কোর্স নির্দিষ্ট করে একটি সৃজনশীল লেখার প্রতিযোগিতা চালু করেন। যার ফলে তিনটি ভিন্ন মহাদেশের ডজনখানেক শব্দ-প্রেমী তাদের কল্পনাকে প্রবাহিত করার জন্যে কীবোর্ড নিয়ে লেগে পড়ে।

মার্চের শেষের দিকে [ইংরেজী ভাষায়] “লেখার এবং ভাষাগত ও শিল্পসম্মত বিবর্তনের স্বাদ প্রবর্তনের জন্যে” প্রতিযোগিতাটি শুরু হয়। ওদেয়ার চারটি চ্যালেঞ্জের একটি সেট সুপারিশ করেন;  গদ্য বা কবিতার মাধ্যমে পাওয়া প্রত্যুত্তরগুলো তার ব্লগে প্রকাশিত হয়।

৯ই মে তারিখে তাদের লেখার প্রাপ্ত দর্শক সংখ্যা্র মাধ্যমে  বিজয়ী ঘোষিত হয়। এই প্রবন্ধটি বিবৃত সেই গল্পগুলো সম্পর্কে একটি ধারণা প্রদান করবে।

২০৯০ সালে কেপ ভার্দে কেমন হবে?

প্রথম চ্যালেঞ্জটিতে প্রতিযোগীদের টেকসই উন্নয়ন, জ্বালানী ও শক্তি, পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তনের পরিপ্রেক্ষিতে কেপ ভার্দের জন্যে সম্ভাব্য পথ কল্পনা করতে বলা হয়। আনেতে কারাভালো লিখেছেন ‘পাই মুসেউ‘ (যাদুঘর দেশ), হোসে সোয়ারেস একটি কবিতা ‘ভের্দেস এরাম আস ই্লাস‘ (দ্বীপগুলো ছিল সবুজ) পোস্ট করেছেন এবং সিলভিয়ানে স্পেন্সার লিখেছেন ‘রেট্রোস্পেক্টিভা ২০১২-২০৯০‘ (ফিরে দেখা: ২০১২-২০৯০০) সবচেয়ে বেশিবার দেখা হয়েছে সুরুক রডরিগেজের লেখা একটি কবিতা:

Men of the Atlantic. Photo by Martin Edstrom copyright Demotix (27/07/2008).

আটলান্টিকের মানুষ। ছবি, মার্টিন এডস্ট্রম। কপিরাইট ডেমোটিক্স (২৭/০৭/২০০৮)।

Constrói-se uma terra de betão.
E do sonho cultivado, colhe-se desilusão!
Que caia chuva, para transbordar apenas
barragens cheias de lágrimas dos que choram em vão!

ভূমি নির্মিত কনক্রিট থেকে।
এবং লালিত স্বপ্ন থেকে, হতাশা তার ফল!
বৃষ্টি পড়ুক, আর জলাধারগুলোতে
উপচে পড়ুক ছিচকাঁদুনের অশ্রুজল!

কয়েকটি লেখায় পর্যটনের বিভিন্ন পন্থা চিত্রায়িত হয়েছে যেমন ফুটে উঠেছে গ্যালিশিয় ভাষায় ‘রেলোঘিও দো টেমপো‘ (সময় ঘড়ি) শিরোনামে লেটিসিয়া ভ্যারেলার লেখাতে। কেপ ভার্দের ক্রেওলের সম্ভাব্য বিলুপ্তির কথা উল্লেখ রয়েছে নানি দেলগাদো’র ‘নাও ভোউ ফিকার‘ (আমি থাকবো না) এবং এরি রডরিগেজের ‘উম পোভো সেমপ্রে এসক্রাভো‘ (চিরকাল দাস যে জাতি) দেশটিতে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি এবং চীনের প্রভাব সম্পর্কে আলোচনা করেছে।

কার্লা গন্সালভেস ২০৯০ সালের একজন নৃতত্ত্ববিদ এবং গবেষকের গল্প বলেন যিনি ‘আ মোরাবেসা দাস ইলাস ক্রিওলাস’ (ক্রেওলদ্বীপপুঞ্জের মোরাবেসা [আতিথ্য]) একটি বই খুঁজে পেয়েছেন যার “পরিষ্কার মলাটটিতে অসম্ভব সুন্দর সাদা বালিয়াড়ি; অত্যুচ্চ পর্বতশ্রেণীর পটভূমিতে সুন্দর গ্রাবরেখা এবং ফুলের সমারোহ দেখা যাচ্ছে।” এর ফলে তিনি “মোরাবেসা” শব্দটির অর্থ অনুসন্ধানে প্রয়াসী হন। (বহুদূর) ভ্রমণ করে তিনি দ্বীপটির কাছে এসে হাজির হলে সেখানকার সর্বশেষ বাসিন্দা (তাকে) বলেন ‘নাও আ মাইস কাবো ভের্দে‘ (কেপ ভার্দে আর নেই):

Eis que Nhô Chico lhe responde num inglês rudimentar: Morabeza era a nossa essência, a música, a saudade. Morabeza eram as nossas crioulas, uma diferente da outra, mas todas únicas. Morabeza eram as nossas praias de areias brancas e negras, as montanhas fortes e imponentes, a simpatia e acolhimento. Morabeza eram as flores, a diversidade cultural, a dança. Morabeza era aquilo que nos distinguia, que nos fazia únicos. Mas isso acabou e não há mais aquele Cabo Verde…

ন্নো চিকো ভাঙ্গা ভাঙ্গা ইংরেজিতে তাকে বলেন: মোরাবেসা মানে আমাদের নির্যাস, আমাদের সঙ্গীত, আমাদের আকাঙ্ক্ষা। মোরাবেসা মানে আমাদের ক্রেওল নারী, যারা একে অন্যের থেকে আলাদা, সবাই অনন্য। মোরাবেসা মানে আমাদের কালো আর সাদা বালি, আমাদের দৃঢ়, প্রভাববিস্তারী পর্বতশ্রেণী, আমাদের বন্ধুভাবাপন্ন এবং আতিথেয়তা। মোরাবেসা মানে ফুল, সাংস্কৃতিক বৈচিত্র আর নৃত্য। মোরাবেসা হলো তাই যা আমাদের আলাদা করেছে, করেছে অনন্য। কিন্তু এখন এটা শেষ এবং কেপ ভার্দে আর নেই…

হত্যা এবং পলায়ন

কেপ ভার্দের পুতুল। ফ্লিকারে ওয়ানাকু’র ছবি (সিসি-বাই-এনসি-এনডি ২.০)

কেপ ভার্দের পুতুল। ফ্লিকারে ওয়ানাকু’র ছবি (সিসি-বাই-এনসি-এনডি ২.০)

দ্বিতীয় চ্যালেঞ্জটি বলেছে “কাউকে হত্যা করতে হবে এবং সেটাই আপনার কাজ।” এতে দ্রুতগতির গদ্য ব্যবহার করে থেকে অপরাধ, মারদাঙ্গা কর্মকাণ্ড এবং প্রচুর রক্তপাত উপস্থাপনে উৎসাহিত করা হয়েছে।

একজন ক্ষুদ্ধ প্রাক্তন কর্মীর হাতে মনিব হত্যা, লোক্সোসেলিস এনোমালা মাকড়সার বিষে সুন্দরী শ্যামাঙ্গিনীর ঢলে পড়া, গ্রান্দে মিস্তেরিও দা বোনিকা এসাসিনা‘ (খুন হওয়া পুতুল রহস্য) থেকে শুরু করে অপরাধের আবেগ এবং ধ্রুপদী খানসামা রহস্য পর্যন্ত। এছাড়াও সুযোগ রয়েছে বিপ্লবীদের একটি অভ্যূত্থানের এবং কেপ ভার্দের “ইন্দিগনাদোস [ক্ষুদ্ধ]” আন্দোলন প্রবর্তনের যেমন সুরুক রডরিগেজ তার গল্প জেকাতে লিখেছেন:

Zeca sofria com perseguição política dos novos tempos, que poucos entendem, ou seja, na rua era bandido, na escola era drogado, e não conseguia bolsas de estudo, estágio, trabalho ou coisa melhor. Arquitectou com genialidade o movimento dos indignados de Soncent com sede e acção no Mindelo, que no mês de Julho de 2012 vinha a ocupar as manchetes dos jornais neoliberais numa dura perseguição aos “fascistas” e entre eles o pai da sua amada.

জেকা নব-আবিষ্কৃত রাজনৈতিক নিগ্রহের শিকার, যেটা খুব কম লোকেই বুঝতে পারে। অন্য কথায়, তিনি রাস্তায় একজন অপরাধী, স্কুলে একজন নেশাখোর তাই তিনি বৃত্তি, ইন্টার্নশীপ, কাজ বা ভালো কিছু পান না। তার মাথায় মিন্দেলো-ভিত্তিক সনসেন্টের (Soncent) বিক্ষুদ্ধদের নিয়ে আন্দোলন শুরু করার চমৎকার একটি ধারণা আসে। ২০১২ সালের জুলাই মাসে ‘ফ্যাসিবাদী’দের মারাত্নক নিগ্রহের শিকার হিসেবে তিনি একটি নয়া-উদারবাদী সংবাদপত্রের শিরোনাম হন, এদের মধ্যে ছিলেন তার প্রিয় পিতা।

প্রকাশ্য স্থানে সবার চোখের সামনে ভবিষ্যৎ শ্বশুরের হাতে পিঠে ছুরিকাহত হয়ে পরিসমাপ্তি ঘটে তার জীবনের।

ইভাকে হত্যা করেছে কে?

লেখকদের অনুপ্রাণিত করার মতো আরো অনেক অপরাধ রয়েছে, তবে এবার চ্যালেঞ্জ পঞ্চাশোর্ধ বয়সের ধনবতী বিধবা ইভা সেকুইরা খুনের সন্দেহভাজনদের প্রোফাইল তৈরী করেছে। মহিলাটিকে তার প্রাসাদে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়।

কেপ ভার্দের দৈনন্দিন জীবন। ছবি, নিউনো লোবিতো। কপিরাইট ডেমোটিক্স (১২/০২/২০০৮)

কেপ ভার্দের দৈনন্দিন জীবন। ছবি, নিউনো লোবিতো। কপিরাইট ডেমোটিক্স (১২/০২/২০০৮)

সন্দেহভাজনদের মধ্যে রয়েছেন “কখনো সুস্থ না হয়ে উঠা ইভার সৎ মেয়ে”, “শৈশব থেকে ইভার প্রেমে আসক্ত অবসরপ্রাপ্ত ডাক্তার (যদিও এটি পরস্পরকে কখনো জানাজানি হয়নি)”, “তরুণ, সুদর্শন আগন্তুক”, “কারমেনের [সৎ মেয়ে] ভক্ত খানসামার ছেলে”, এবং ইভার শ্রেষ্ঠ বন্ধু:

No final do interrogatório, o investigador Nataniel Borges prendeu dois suspeitos sob acusação de cumplicidade na morte da senhora Eva Sequeira. Quem foi para a cadeia? Quais os motivos que os levaram a cometer tão horrendo crime?

জিজ্ঞাসাবাদ শেষে গোয়েন্দা নাতানিয়েল বোর্জেস ইভা সেকুইরা হত্যাকান্ড জড়িত থাকার ভিত্তিতে দুই সন্দেহভাজন গ্রেপ্তার করেন। কাকে জে্লে পাঠানো হয়েছিল? কী তাদের এরকম ভয়ংকর একটি অপরাধ সংঘটনে বাধ্য করেছিল?

সর্বাধিক পঠিত গল্পটি ইভার শ্রেষ্ঠ বন্ধুকে একটি আবেগের অপরাধের সংঘটনের জন্যে দায়ী করে লিখেছেন মার্গারেট লিমা:

…eu amei aquela vadia desde o dia em que a conheci. Sofria cada vez que a via com outro, meu único conforto era a existência de outra pessoa que ela ignorava o amor. E justo quando ganho coragem e me declaro ela pede desculpas dizendo que só me queria como amiga. Queria ficar com esse imbecil [o médico aposentado], porque era seu Adão. Mereceu morrer sem disfrutar do seu Adão.

পরিচয়ের প্রথম দিন থেকেই আমি তাকে ভালবাসতাম। আমি তাকে অন্যান্য লোকেদের সঙ্গে দেখা সহ্য না করতে পারতাম না। আরেকজনের প্রেম উপেক্ষার বিষয়টিই আমার একমাত্র সান্ত্বনা ছিল। কিন্তু যখন আমি সাহস করে তার প্রতি আমার প্রেম প্রকাশ করলাম তিনি শুধু বন্ধু হতে চান বলে ক্ষমা চেয়ে নিলেন। তিনি ঐ ব্যাটাটার [অবসরপ্রাপ্ত ডাক্তার] সাথে থাকতে চেয়েছিলেন, কারণ তিনিই ছিলেন তার পুরুষ। পুরুষটিকে উপভোগ করার আগেই তার মৃত্যু প্রাপ্য ছিল।

তিনটি দিন এবং বিদায়

আপনাকে যদি বলা হয় আপনি আর মাত্র তিনদিন বাঁচবেন, আপনি কী করবেন?

ক্ষমতার জন্যে যিনি শুধু “একজন জঘন্য জল্লাদ, সুবিধাবাদী এবং প্রায়শই ধর্ষকামী” হতে জানতেন, তার সারাজীবনের আচরণের জন্যে তিনি যাদের ক্ষমাপ্রার্থী তাদের দরজায় তাকে নিয়ে যাওয়া হলে: তার অনুশোচনা

সান্তো আনাতোর একজন নারী। ফ্লিকারে জুলিয়েন লাগার্দে’র ছবি (সিসি-বাই-এনসি-এনডি ২.০)

সান্তো আনাতোর একজন নারী। ফ্লিকারে জুলিয়েন লাগার্দে’র ছবি (সিসি-বাই-এনসি-এনডি ২.০)

“কুয়ান্দো ফুই মোররের” (যখন আমি মরতে গিয়েছিলাম)-এর “কবি” একটি সারারাতের অনুষ্ঠান উৎযাপনের সময় “তার পারিবারিক এবং ঘনিষ্ট বন্ধুদের জন্যে [তার] জীবনকে [তিনি দ্রুত] ঘনীভূত করতে চেয়েছিলেন।”

ভান্দা তার ক্রেওল জীবনের বাইরে তার স্বপ্নটি পূরণ করতে: তুষার দেখতে চেয়েছিলেন। সুইজারল্যাণ্ডের আল্পসে তার চোখ বন্ধ, ঠোঁটে মুচকি হাসি আর বিস্ফারিত হৃদয় ভরে তার জীবনের পরিসমাপ্তি ঘটে।

তবে “কনে” তার মৃত্যু পূর্বে সকল সামাজিক নেটওয়ার্কিং সাইট বন্ধ করে দিতে চাইলেও (“আমি ফেসবুকে মৃত ব্যক্তিদের দেখার ধারণাটি পছন্দ করি না”), বলিভিয়ার মার্গারেথ লিমার বিজয়ী লেখাটির চরিত্র ভিটোরিয়া সামাজিক নেটওয়ার্কের সুবিধাটু্কু নিয়ে “পরিবার, প্রাক্তন সহপাঠী, শিক্ষক,  সহকর্মী, বন্ধু, এবং এমনকি শত্রু”দের সঙ্গে বিশাল জন্মদিন এবং বিদায় অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে চান। শুধুমাত্র তারই একটি পরিবর্তনযোগ্য মৃত্যু থাকবে। তবে এ গল্পের শেষে আমরা দেখতে পাবো যে চিকিৎসাগত পরীক্ষার ফলাফল বাস্তবে তার ছিল না।

আর এভাবেই “লেখার অভ্যাস ও ধারা পরিবর্তনের এবং তাদের শিকড় নিচে প্রোথিত এবং এমনকি সময়ের সঙ্গে সঙ্গে আরো উন্নত করার” বীজ উপ্ত করে শেষ হয়েছে এককভাবে একটি ব্লগের চালু করা এবং ফেসবুক সমর্থিত প্রথম সৃষ্টিশীল লেখার প্রতিযোগিতাটি।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .