বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ইথিওপিয়াঃ গ্যাম্বেলায় ভূমি, ইতিহাস ও ন্যায়বিচার

দি গার্ডিয়ানের (যুক্তরাজ্য) গ্লোবাল ডেভেলপমেন্ট ব্লগ এপ্রিলে আন্তর্জাতিক ভূমি চুক্তির সবচেয়ে বড় পাবলিক ডাটাবেস প্রকাশের পর থেকে তার উপর প্রতিবেদন প্রকাশ করে যাচ্ছে

ঐ প্রতিবেদনে উপস্থাপিত একটি দেশ হল ইথিওপিয়া যেখানে গ্যাম্বেলা প্রদেশের রাষ্ট্রের অধীনস্ত গ্রামগুলোতে গ্রামবাসীদেরকে জোরপূর্বক জমি দখলদারদের জন্য রাস্তায় পাথর বসাতে বাধ্য করা হচ্ছে। গ্যাম্বেলা ইথিওপিয়ার সবচেয়ে দরিদ্র অঞ্চল।

একটি স্থানীয় অর্ধসাপ্তাহিক ইংরেজি পত্রিকার সাংবাদিক প্রতিবেদন করেন যে ইথিওপিয়ান সরকার বাণিজ্যিক ফার্ম প্রকল্পের জন্য ইজারাদারদের বাড়তি সুবিধা দেয়া শুরু করেছে। যদিও তা জমি-দখল বিরোধীদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ, ইথিওপিয়ান সরকার কর্তৃক ভূমি ইজারাদারদেরকে বাড়তি সুবিধা প্রদান আন্তর্জাতিক মাধ্যমগুলোর দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে।

ফ্রেড পিয়ার্সের নতুন বই দি ল্যান্ড গ্র্যাবার্সঃ আফ্রিকা’স হিডেন রেভল্যুশন এর অংশ থেকে, দেখানো হয়েছে যে বিশ্বে দরিদ্রদের উপর ভূমি দখল জলবায়ু পরিবর্তনের চেয়েও বেশি প্রভাব ফেলেছে। একটি সাক্ষাৎকারে, ফ্রেড পিয়ার্স উল্লেখ করেন যে দরিদ্র জনগণ তাদের ঐতিহাসিক ও সাংস্কৃতিক অধিকারের জন্য ভূমি ছেড়ে চলে যাচ্ছে।

Target countries of land deals from the Land Matrix Project

ভূমি প্রকল্পের জন্য ভূমি চুক্তির আওতাধীন দেশসমূহ

যাহোক, এক ইথিওপিয়ান সরকারি কর্মকর্তা এই বিতর্ককে প্রত্যাখ্যান করেন:

তিনি [কৃষি মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা] ভূমি ইজারা যা ‘ফার্মের কাছাকাছি বসবাসকারী সমাজের উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে’ এ বক্তব্যকে প্রত্যাখ্যান করেন এই বলে ‘এই বিনিয়োগ এর কাছে বসবাসকারী সমাজের উপর ক্ষতিকর প্রভাবমুক্ত করতেই এর উপর জোর দেয়া হয়েছে এবং এটি আরো কঠিন ভাবে হবে’।

ভূমি কর্মীরা একটি অনলাইন আবেদন করেছেন এবং ফেসবুক ও টুইটারে কর্মসূচি গ্রহণ করেছেন। মার্কিন ও ব্রিটিশ কূটনীতিকদের উদ্দেশ্য করে একটি আবেদনে বলা হয়েছেঃ

আমি দক্ষিণ পশ্চিম ইথিওপিয়ায় আদিবাসী লোকদের উপর শোষণ ও কঠোর নির্যাতনের প্রতিবেদন সম্পর্কে ভালোভাবেই অবগত। সরকারের “পল্লীউন্নয়ন” কর্মসূচি গ্যাম্বেলা এলাকায় কমপক্ষে ২০০,০০০ আদিবাসীকে তাদের পূর্বপুরুষের ভিটা থেকে বিতাড়িত করেছে এবং তাদের নতুন করে গ্রাম গঠনে বাধ্য করেছে। যদিও সরকার এই গ্রামগুলোতে তাদেরকে কর্ম, শিক্ষা ও স্বাস্থ্যের উন্নত সুযোগ দেয়ার অঙ্গীকার করেছে, মানবাধিকার গবেষকগণ এই সুবিধাগুলোর কোন প্রমাণ পান নি বললেই চলে। অপরদিকে, গৃহহীন মানুষরা অনাহারের শঙ্কায় রয়েছে যেহেতু তাদের আর ফার্ম, বন ও নদী নেই। যারা এই নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেছে তারা ক্রমাগতভাবে কারারুদ্ধ, নির্যাতিত, ধর্ষিত এবং নতুবা সরকারি নিরাপত্তা বাহিনী দ্বারা হুমকির সম্মুখীন হচ্ছে। যারা তাদের ভিটেমাটিতে ফেরার চেষ্টা করেছে তারা গিয়ে দেখেছে যে সরকার ইতোমধ্যে তাদের জমি বিদেশী বিনিয়োগকারীদের ইজারা দিয়ে দিয়েছে যারা বন, ফার্ম ও জলাভূমি উচ্ছেদ করে রপ্তানির জন্য কৃষি জ্বালানি, চা, মসলা, ধান, ও চিনির মত বাণিজ্যিক ফসল উৎপাদনের তাড়নায় আছে। এই পরিবেশগত উচ্ছেদ ও দূষণের ফলাফল আদিবাসীদের খাদ্য নিরাপত্তা হুমকির মুখে ফেলবে।

স্টপ ল্যান্ড গ্র্যাবিং ইন গ্যাম্বেলা, ইথিওপিয়া নামক একটি ফেসবুক দল বলেছে:

আন্তর্জাতিক সমাজ ইথিওপিয়ার গ্যাম্বেলা অঞ্চলে মানব নির্যাতন এবং পরিবেশ ধ্বংস ভূমি দখলের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াচ্ছে

(ভূমি দখল বড় জমির ক্ষেত্রে একটি বিবাদপূর্ণ ঘটনা; উন্নয়নশীল দেশগুলোতে দেশীয়, বহুজাতিক কোম্পানি, সরকার বা ব্যক্তিগত উদ্যোগে বড় অংশের জমি ক্রয় করা হয়ে থাকে।)

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .