বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

আলজেরিয়া: সংসদ নির্বাচনে কম ভোট পড়েছে

১০ই মে আরব উত্থান শুরুর পর আলজেরিয়ার প্রথম সংসদীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। জাতীয় মুক্তি ফ্রন্ট (এফএলএন) এবং তাদের সহযোগী দল জাতীয় গণতান্ত্রিক সমাবেশ একটি ইসলামী জোটকে পরাজিত করে সংখ্যাগরিষ্ঠ আসন জিতেছে

স্বাধীনতার পর থেকে আলজেরিয়ার রাজনৈতিক জীবন ক্ষমতাসীন এফএলএন প্রভাবিত। এই নির্বাচনগুলোকে ব্যবস্থাটির বৈধতার একটা পরীক্ষা হিসাবে দেখা হচ্ছে এবং সরকারী হিসেবে ভোটদানের হার ৪২.৯%  যা ২০০৭ সালের নির্বাচনে ভোটদানের হার ৩৫%  থেকে বেশি, তাই কেউ কেউ একে সাম্প্রতিক রাজনৈতিক সংস্কারের প্রতি সমর্থন বলে দাবি করেছে। তবে আরব বিশ্বের অন্যান্য স্থানের মতো আলজেরিয়াতে শাসকগোষ্ঠীবিরোধী বিক্ষোভ না থাকা সত্ত্বেও সরকার সম্পর্কে ব্যাপক অসন্তুষ্টি রয়েছে। অনেকেই নির্বাচন বয়কটের মাধ্যমে তাদের রাজনৈতিক ভিন্নমত প্রকাশ করেছেন।

#১০মায়তোজ: যারা ভোট দেননি তাদের জন্যে মধুর কিছু নেই। ছবি পোস্ট করেছে @সুন্দরট্যাঙ্গো৭।

নির্বাচনের দিন আলজেরীয়রা #১০মায়তোজ হ্যাশট্যাগ দিয়ে টুইট করেছে, “তোজ” মানে অর্থহীন।

ইয়াসমিন বুচেনে লিখেছেন:

@Yaspuppchen: Si dans d’autres pays, voter est un acte citoyen. En Algérie, ne pas le faire l’est apparemment d’avantage ! #10maiToz

@ইয়াসপুপচেন: অন্য দেশে ভোট দেয়া নাগরিকত্বের একটি কর্ম হলে আলজেরিয়াতে ভোট না দেয়া আপাতভাবে আরো ভাল!
এখানে ভোট দিন।

এখানে ভোট দিন। ছবি পোস্ট করেছে @কপি৩৫

“ফলাফল পরিবর্তন” এবং জালিয়াতির ব্যাপক অভিযোগ রয়েছে।

ইয়ানিস চালুচে কৌতুক করেছেন:

@Mister16Five: Les actes de citoyenneté sont tellement ancrés dans notre culture et notre éducation, que même les morts ressuscitent pour voter. #10MaiToz

@মিস্টার১৬ফাইভ: আমাদের সংস্কৃতি এবং শিক্ষায় নাগরিকত্বের কর্তব্যগুলো এতোটাই প্রোথিত যে এমনকি মৃতরাও ভোট দেয়ার জন্যে জেগে উঠে।

ব্লগার বাকি ৭(সা)ওয়ার টুইট করেছেন:

@7our: Proverbe algérien: “c'est quand le bureau de vote est vide que l'urne se remplit”. #10MaiToz #Fraude

@৭(সা)ওয়ার: আলজেরীয় প্রবাদ: “ভোটকেন্দ্র খালি থাকলে ব্যালটবাক্স ভরে যায়।”

বাব এল উয়েদ ভোটকেন্দ্র। ছবি পোস্ট করেছে @সরাসরিআলজেরিয়াথেকে

সাংবাদিক বোর্জু দারাগাহি ভোটারদের অভাব লক্ষ্য করেছেন:

@বোর্জু: আলজেরিয়া: আলজিয়ার্স শহরের বাইরে লার্বাতাচে নির্বাচনী কেন্দ্রে খুব খুবই অল্প সংখ্যক ভোটার, অধিকাংশই বৃদ্ধ ; অল্পবয়েসীরা কোথায়?

জালিয়াতি সম্পর্কে রিপোর্ট করার জন্যে একটি নাগরিক-চালিত নির্বাচন পর্যবেক্ষণ ওয়েবসাইট পর্যন্ত গড়ে তোলা হয়েছিল। আলজেরিয়া জুড়ে ১৫০টির বেশি বিচ্যূতি নথিভুক্ত হয়েছে।

উপরের ভিডিওটিতে [আরবী] তারেক নামের একজন ২৩ বছর বয়েসী যুবক ব্যাখ্যা করেছেন যে আলজেরীয় জনগণ ১৯৯৯ সাল (আব্দেলাজিজ বুতেফিকা প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর) থেকে তাদের জীবনকে সুন্দর করতে ব্যর্থ যথেষ্ট পরিমাণ রাজনীতিবিদদের দেখেছে। ক্লিপটির অন্যতম শক্তিশালী একটি মুহূর্ত হলো যখন তারেক বলেন যে তিনি বরং “চান ক্রিমি (দারিদ্র্য) তাকে খাওয়ার পরিবর্তে, মাছ তাকে খেয়ে ফেলুক।”

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .