বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

তিউনিসিয়া: বিক্ষোভের উপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে স্বস্তি

আমাদের এই পোস্টটি তিউনিসিয়া বিপ্লব ২০১১- এর বিশেষ কাভারেজের অংশ।

হাবিব বরগুইবা এভিন্যু থেকে বিক্ষোভ প্রদর্শনের উপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেওয়ায় তিউনিসিয়ার নেট নাগরিকরা স্বস্তি প্রকাশ করেছে।এই এভিন্যুটি রাজধানী তিউনিসের প্রধান সড়ক এবং বিপ্লবের সময় এই এলাকায় ব্যাপক গণবিক্ষোভ প্রদর্শিত হয়। সম্প্রতি এই এলাকায় পর পর বেশ কিছু বিক্ষোভ প্রদর্শিত হয়। ৭ এপ্রিলে বেকাররা, ৯ এপ্রিলে সুশীল সমাজের সক্রিয়তাবাদীরা (তিউনিসিয়ার শহীদ দিবস উপলক্ষে), ১০ এপ্রিল তারিখে ন্যাশনাল কনস্টিটিউয়েন্ট এসেম্বলী (এনসিএ) সদস্যরা এই এলাকায় বিক্ষোভ প্রদর্শন করে।

সর্বশেষ দুটি বিক্ষোভের উদ্দেশ্য ছিল এই এভিন্যুকে “ অবমুক্ত” করা। শহীদ দিবসের বিক্ষোভের সময় বিক্ষোভকারী এবং পুলিশের মাঝে এক ভয়াবহ সংঘর্ষ ছড়িয়ে পরে এতে বিক্ষোভকারীরা আহত হয়, ফলে উত্তেজনা ক্রমশ: বাড়তে থাকে এবং নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের আকাঙ্খা জোরালো হতে থাকে। এর পরের দিন এনসিএ সড়কে মিছিল বের করে এবং তারা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করে ৯ এপ্রিলের ঘটনা নিয়ে আলোচনা করে। ১১ এপ্রিলে সরকার এই এভিন্যুতে বিক্ষোভ করার নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।

হাবিব বরগুইবা এভিন্যু।

হাবিব বরগুইবা এভিন্যু। ছবি ফ্লিকার ব্যবহারকারী ট্যাব ৫৯-এর ( সিসি বাই এসএ ২.০)।

হাবিব বরগুইবা এভিন্যুতে বিক্ষোভ করার স্বাধীনতা ফিরিয়ে দেওয়ায় নেটনাগরিকরা তাঁদের সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন, তবে তাঁরা বিক্ষোভ থামিয়ে না দিয়ে বরং বিক্ষোভ চালিয়ে যাবার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন।

ব্লগার এবং সাংবাদিক সফিয়েন এই নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের কৃতিত্ব বিপ্লবীদের প্রদান করেছেন:

@Sofien_Chourabi:بفضلكم يا أحرار تونس تم صباح اليوم الغاء قرار منع التظاهر في شارع الحبيب بورقيبة من طرف مجلس وزاري.

@সফিয়েন_ চুরাবি: তিউনিসিয়ার স্বাধীন জনতা, আপনাদের কারণে আজ মন্ত্রী সভায় এক আলোচনার মাধ্যমে হাবিব বরগুইবা এভিন্যুতে বিক্ষোভ করার নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেওয়া হল।

সাংবাদিক তিউনোসহোউররা টুইট করেন:

@tounsiahourra:اتحاد عام طلبة تونس يدشن قرار إلغاء منع التظاهرات في شارع بورقيبة , بالتظاهر امام المسرح البلدي ‎‪#UGET‬‏ #HBAVENUE

@তিউনোসহোউররা: তিউনিসিয়ার সাধারণ ছাত্র পরিষদ [ইউনিয়ন জেনেরেলে দে এতুদিওন্স তিউনিসিয়েন ইউজিইটি], পৌরসভা রঙ্গমঞ্চের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে হাবিব বরগুইবা এভিন্যুতে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানায়।

ওয়েবডুটিএন –এর নীচের এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে যে হাবিব বরগুইবা এভিন্যুতে বিক্ষোভ চলছে। পৌরসভা রঙ্গমঞ্চের সামনে ইউজিইটি-এর বিক্ষোভকারীরা জড়ো হয়ে নানা ধরনের স্লোগান দিচ্ছে:

প্রখ্যাত ব্লগার এবং সাংবাদিক হাতেম এল মেক্কি টুইট করেন:

@ByLasKo: التراجع عن هذا القرار لاهو حكمة لاهو مزية، بل هو أقل القليل !!!

@বাইলাস্কো: “প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত, না কোন প্রজ্ঞার বিষয়, না সেটি কাউকে সুবিধা দেওয়াও নয়- এটা আসলে এক ক্ষুদ্র ঘটনার ক্ষুদ্র অংশ!!!

হাইকাল ফাখফাখ নামের এক ছাত্র তিউনিসিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আলি লারায়েদ-পদত্যাগের আহ্বান জানিয়েছেন:

@HaykalFakhfakh: L avenue bourguiba est libre maintenant passons a la demission du ministre de terreur #tunisie #9Avril

@হাইকাল ফাখফাখ: হাবিব বরগুইবা এভিন্যু এখন মুক্ত। আসুন এখন আমরা সন্ত্রাসী মন্ত্রীর পদত্যাগ দাবির জন্য আন্দোলন করি# তিউনিসিয়া# ৯এভ্রিল।

সাংবাদিক এমনা বেন জেমা সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন:

@Emnabenjemaa: Ne vous faites pas arnaquer par l annulation de l interdiction.faut que les responsables soient punis #MI

@এমনাবেনজেমা: কেবল একটি নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের আপ্লুত হবার কিছু নেই। কর্মকর্তাদের শাস্তি পাওয়া উচিত# এমআই

আমাদের এই পোস্টটি তিউনিসিয়া বিপ্লব ২০১১- এর বিশেষ কাভারেজের অংশ।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .