বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

কেনিয়া: আফ্রিকার চার তরুণ হলিউডের গতানুগতিক কাহিনীর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছে

আফ্রিকা ওয়াচিং হচ্ছে মামাহোপের তৈরি একটি ইউটিউব ভিডিও, যেখানে নয় বছরের এক বালক কমান্ডো নামক ছবির গল্পটি আবার বলছে। মামাহোপের এই ছবিটি দেখার পর কেনিয়ার চার তরুণ মামাহোপকে বলছে যে তারা এই প্রতিষ্ঠানের মত করে হলিউডের গল্পগুলো নিজেদের মত করে সাজিয়ে পুনরায় বলতে চায়। এই ক্ষেত্রে, কি ভাবে চলচ্চিত্রগুলো আফ্রিকার নাগরিকদের গতানুগতিক ভাবে চিত্রিত করে, তারা সেই বিষয়টি তুলে ধরছে।

আফ্রিকার মানুষ: হলিউডের গতানুগতিক ভাবনা– এর লেখক চিকিৎসা বিজ্ঞানের ছাত্র গ্যাব্রিয়েল, বেনার্ড ও ডেরিক; মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনার ছাত্র ব্রায়ান এবং মামাহোপ

এই সব তরুণরা বলছে “ চলচ্চিতে যা দেখানো হয়, নাগরিকরা যদি কেবল তাতে বিশ্বাস করে, তাহলে সকলে মনে করবে, আমরা সকলে যুদ্ধবাজ যারা হানাহানি পছন্দ করি। মামাহোপের মতো, এই চার তরুণ, হলিউডের ছবিতে অতিরিক্ত উত্তেজনা, আফ্রিকার পুরুষদের একপেশেভাবে অঙ্কন এবং সাদা মানুষদের ত্রাতা হিসেবে আবির্ভাবের যে বার্তা প্রদান করা হয়, তাতে তারা ক্লান্ত, প্রচার মাধ্যমে আমাদের এভাবে পরিমাপ করা হয়। এর বদলে আফ্রিকার মানুষের নিজেদের গল্প নিজেরাই বলতে চায়। যার ফলে আমরা তাদেরকে মাইক প্রদান করেছি এবং তারা এই ভিডিওটি তৈরী করেছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .