বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

তিউনিশিয়া: রাষ্ট্রপতির হস্ত চুম্বনে ক্ষোভ

ক্ষুব্ধ, বিস্ময়ে হতবাক এবং বিরক্ত; তিউনিশিয়ার নেটনাগরিকদের এই অনুভূতি তখন তৈরী হয় যখন ২৬ এপ্রিলের একটি ইউটিউব ভিডিওতে তারা আবিষ্কার করে যে দুজন ব্যক্তি রাষ্ট্রপতি মনসেফ মারজোকির হস্ত চুম্বন করছে। এই ভিডিতে দেখা যাচ্ছে যে মারজোকি অকস্মাৎ একটি সরকারি বাজার পরিদর্শন করছেন। যখন তিনি বাজারে প্রবেশ করেন, তখন জনতার একটা অংশ আওয়াজ তুলে, “রাষ্ট্রপতি দীর্ঘজীবী হোন” এবং “মারজোকি দীর্ঘজীবী হোন”। যখন তিনি সেখানে কর্মরত কয়েকজনের সাথে হাত মেলান, সে সময় দুজন ব্যক্তি তার হস্ত চুম্বন করে, যে প্রথা কিনা প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি জিনে এল আবেদিন বেন আলির সময় জনপ্রিয় ছিল এবং এখন তিউনিশিয়ার গণজাগরণের পরবর্তী সময়ে একে গণজাগরণ বিরোধী মূল্যবোধ হিসেবে দেখা হচ্ছে

তিউনিশিয়ার রাষ্ট্রপতি দপ্তর তার নিজস্ব ইউটিউবের চ্যানেল এই বিতর্কিত ভিডিও প্রথম প্রকাশ করে। এরপর এটি সরিয়ে এর বদলে আরেকটি নতুন ভিডিও প্রদান করে, যেটিতে হস্ত চুম্বনে কোন দৃশ্য নেই, কিন্তু ততক্ষণ যথেষ্ট দেরি হয়ে গেছে, ইতোমধ্যে প্রথম ভিডিওটি ওয়েবের সব জায়গায় ছড়িয়ে পড়েছে।

http://youtu.be/ZhiR1K1Bq_g

মোহাম্মদ আলি চেবান্নে এতে প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন:

@MedAliChebaane: Mr @Moncef_Marzouki, laisser un citoyen vous faire le baise main pendant une visite de terrain est écoeurant!

@মেডআলিচেব্বানে: জনাব @মনসেফ মারজোকি, কোন পরিদর্শনের ঘটনায় নাগরিকদের হস্ত চুম্বন করতে দেওয়া বিরক্তিকর!

Moncef Marzouki Elected Interim President of Tunisia

মনসেফ মারজোকি তিউনিশিয়ার অন্তর্বর্তীকালীন রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হয়েছেন। ছবি আমিনে লান্ডোলুসি-এর ©কপিরাইট ডেমোটিক্সের (ডিসেম্বর ২০১২)

এমনা মেজরির অনুভূতিও একই:

@emnamejri: la vidéo de @Moncef_Marzouki 3ar 3ala tounes

@এমানমেজরী: @মানচেফ_ মারজোকির এই ভিডিও তিউনিশিয়ার জন্য এক লজ্জা।

অনেকে মনে করেন যে মারজোকিকে এর জন্য দোষারোপ করা ঠিক নয়। হামিদ গাতরি টুইট করেছে:

@hamdigatri: قبيل يد المرزوقي حركة يلام فاعلها و ليس الرئيس , نريد احترامًا و تقدير للرئيس لا تذللاً و عبدية
@ হামিদগাতরি: যারা এই কাণ্ড ঘটিয়েছে এবং রাষ্ট্রপতিকে এই ঘটনার জন্য অভিযুক্ত করা ঠিক হবে না। আমরা শ্রদ্ধা চাই এবং রাষ্ট্রপতির জন্য মূল্যায়ন দরকার, দয়া ভিক্ষা এবং কারো অধিন্যস্ত হয়ে থাকা নয়।

ঘাজি হাকিম লিখেছে:

@ElGueuzi: تقبيل يد المرزوقي دليل على أنه لا نجاح لثورة الشارع بدون ثورة العقول ‬‏
@এলগুয়েুউজি মারজোকির হস্তে চুম্বন করার বিষয়টি প্রমাণ করছে যে রাস্তায় সংগঠিত বিপ্লব মানুষের মস্তিস্কে সাধিত না হওয়া পর্যন্ত সফল হয়না।

ব্লগার ফাতেমা রিয়াহি (যে কিনা ফাতেমা এ্যারাবিকা নামে লিখে থাকে), সে রাষ্ট্রপতিকে একটিও প্রশ্ন করেছে::

@arabicca1:‏ صدر مرسوم الباي يوم 20 جوان 1860 بمنع “تقبيل اليد” سواء من قبل الرعيّة او الضيوف وأنت وقتاش ؟
@ আরাবিকা১ : ২০ জুন ১৮৬০-এ ‘বে’ নামক শাসক, নাগরিক বা অতিথি উভয়ের ক্ষেত্রে হস্ত চুম্বন নিষিদ্ধ করে একটি আইন জারি করেছিল-এবং আপনি, কখন এই ঘটনা ঘটালেন?

ব্লগার এমনা বেন জেম্মা, মারজোকির সাথে বিতাড়িত স্বৈরশাসক জিনে এল আবেদিন বেন আলিওকে যুক্ত করেছে, “সাধারণত্ব জিন্দাবাদ…রাষ্ট্রপতি মারজোকি জিন্দাবাদ নামক” পোস্টের মাধ্যমে [ফরাসী ভাষায়]:

Une scène que je n’ai jamais oubliée, et pourtant j’étais très jeune
Ben Ali venait de faire son fameux discours du 7 novembre 1987, et une foule de tunisiens s’est mise à crier « Vive Ben Ali », il a souri et leur a dit « Non, dites Vive la Tunisie »
Quelques temps après, il s’est non seulement habitué à cela mais je suppose qu’il aurait même trouvé anormal que les gens ne crient pas à sa gloire
On s’est débarrassé fort heureusement du dictateur et de ses méthodes, et on a pour président PROVISOIRE un ancien militant des droits de l’homme. Mais…qu’est ce je vois sur la vidéo que je partage avec vous.
Marzouk s’offre son bain de foule, certains crient «Vive le président, Vive Marzouki !!! »…Et il ne réagit pas, il se limite à sourire fièrement.
Pire il tend sa main pour des baise mains ? Même Ben Ali retirait sa main quand certains voulaient l'embrasser. BAISE MAIN????
C’est quoi encore ce nouveau délire ?
Est-ce que notre destin c’est de vivre dans la médiocrité ?

যদিও আমি সে সময় বেশ তরুণী ছিলাম, কিন্তু আমি সেই দৃশ্য ভুলতে পারি না।
৭ নভেম্বর ১৯৮৭ সালে বেন আলি আর বিখ্যাত বক্তৃতা শেষ করলেন এবং তিউনিশিয়ার একদল জনতা আওয়াজ তোলে “বেন আলী দীর্ঘজীবী হোন! তিনি সে সময় হাসেন এবং বলেন” না, আপনারা বলুন তিউনিশিয়া দীর্ঘজীবী হউক! কিন্তু অল্প কিছুদিন পরেই তিনি কেবল এতে অভ্যস্ত হয়ে পড়লেন না, আমি ধারণা করি, এর কিছুদিন পরে যদি নাগরিকরা তার প্রশংসা না করত, তাহলে সেটাকেই তিনি অস্বাভাবিক বলে মনে করতেন।

সৌভাগ্যক্রমে, আমরা স্বৈরশাসক এবং তার কাজের পদ্ধতিকে বিতাড়িত করেছে এবং এখন আমাদের এক অন্তর্বর্তীকালীন রাষ্ট্রপতি রয়েছে যিনি এক প্রাক্তন মানবাধিকার কর্মী। কিন্তু … এটা হচ্ছে সেই বিষয় যা আমি ভিডিওতে দেখেছি
মারজোকি জনতার মাঝ দিয়ে হেঁটে গেলেন, কিছু ব্যক্তি আওয়াজ তুলল “রাষ্ট্রপতি দীর্ঘজীবী হোন, মারজোকি দীর্ঘজীবী হোন!!!
এমন কি সবচেয়ে খারাপ যে ঘটনাটি ঘটল তিনি চুম্বনের জন্য তার হাত বাড়িয়ে দিলেন? যখন বিশেষ নাগরিক বেন আলির হস্ত চুম্বন করতে চাইত, তখন তিনিও তার হাত সরিয়ে নিতেন। একটি হস্ত চুম্বন??
এই নতুন উন্মাদনা আসলে কি?
এই সাধারণত্ব-এর মাঝে বেঁচে থাকা কি আমাদের গন্তব্য?

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .