বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ইরান: নিরাপত্তা বাহিনী আরো একবার পোষা কুকুর আটক করছে

তেহরানে নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে আটক পোষা কুকুর। ছবি ইরানস্পাকা.কম-এর, অনুমতিক্রমে প্রকাশিত।

ইরানের রাজধানী তেহরানে আবার পোষা কুকুর আটক করা শুরু হয়েছে, এবং ২০০৭ ও২০১১ সালে একই ধরনের ঘটনা ঘটেছিল। পরাবাস্তব কিন্তু সত্য। পশুদের প্রতি নিষ্ঠুরতা প্রতিরোধে ইরানী সমাজ নামক প্রতিষ্ঠান সংবাদ প্রদান করেছে যে [ফরাসী ভাষায়], যখন কুকুরের মালিকেরা সেগুলোকে হাঁটাতে পারদেশিয়ান নামক উদ্যানে নিয়ে যায়, তখন সেগুলোকে গ্রেফতার করা হয়। কুকুরগুলোকে একটি কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়, যেটিকে আমরা জেল বলে অভিহিত করব। এই সব কুকুরের মালিকেরা এখন পর্যন্ত তাদের কুকুরগুলোকে উক্ত জেল থেকে ছাড়িয়ে আনতে ব্যর্থ হয়েছে। নীচের এই ভিডিওটি প্রদর্শন করছে যে, উক্ত কেন্দ্রে থাকা কুকুরগুলো অস্বস্থিকর অবস্থায় রয়েছে। দৃশ্যত মনে হচ্ছে যে “মানুষের সেরা বন্ধু” প্রাণীটি ইরান সরকারের শত্রু।

ইরান সরকার কুকুর পোষাকে একটি অনৈসলামিক সংস্কৃতি বলে মনে করে, কিন্তু বেশীরভাগ ক্ষেত্রে তারা বিষয়টিকে মেনে নেয়। এটি সম্ভব হয়েছে কারণ ইরানে যারা কুকুর পোষে, তাদের বেশীর ভাগই শহুরে এবং শিক্ষিত তরুণ। তবে সম্ভবত কুকুর এখন আরো বেশী সরকারী ঘৃণার জন্ম দিচ্ছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .