বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

সিরিয়া: স্বাধীনতার বীণা নামে পরিচিত সাফানা বাকলেহ, দামেস্কে গ্রেফতার

যখন ৯ এপ্রিল তারিখে দামেস্কে, “আমাদের হত্যা করা বন্ধ করুন, আমরা এমন এক রাষ্ট্র চাই যা সিরিয়ার সকল নাগরিকদের জন্য ” নামক ব্যানার বহন করার অভিযোগে রিমা ডালিকে গ্রেফতার করা হয়, তখন সাফানা বালকেহ হচ্ছেন প্রথম ব্যক্তি যে এই ঘটনায় রিমাকে দ্রুত রক্ষার জন্য এগিয়ে আসে এবং নিরাপত্তা রক্ষীরা যেন রিমাকে তাদের সাথে নিয়ে যেতে না পারে, তার জন্য সে তাদের থামানোর চেষ্টা করে। তার এই প্রচেষ্টার জন্য, অন্য একটিভিস্টদের সাথে সাফানাকেও গ্রেফতার করা হয়, যারা সিরিয়ার সংসদ ভবনের এক শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদে অংশ গ্রহণ করছিল। ১০ এপ্রিলে রিমাকে ছেড়ে দেওয়া হয়, কিন্তু সাফান সহ,হুসাইন দাহানা, আলই জিয়ান এবং আসেম হামশোর মত একটিভিস্টদের এখনো আটকে রাখা হয়েছে।

সাফানার বাকলেহ-এর বয়স ৩০ বছর, সে এক সঙ্গীতজ্ঞ। সে বীণা বাজায়, এবং বন্ধু মহলে সে “স্বাধীনতার বীণা” নামে পরিচিত। ১১ এপ্রিল তারিখে দামেস্ক অপেরা হাউজে তার এক অনুষ্ঠান করার কথা ছিল। সে দামেস্কের একটি প্রতিষ্ঠিত সঙ্গীত বিশ্ববিদ্যালয় স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেছে এবং ইংরেজী ভাষা এবং সাহিত্যেও তার ডিগ্রি রয়েছে। সাফানা দৃঢ়ভাবে অহিংস প্রতিবাদে বিশ্বাসী এবং সে নুওয়াব সহবাব (সংসদের তরুণ সদস্য)–এর সদস্য ছিল, যে সংগঠন সংসদে তরুণদের উপস্থিতির বিষয়ে কাজ করে থাকে। ২০০১ সাল থেকে সে সিরিয়ান আরব রেড ক্রিসেন্টের স্বেচ্ছাসেবক সদস্য।

সাফানা বালকেহ, স্বাধীনতার বীণা; ছবি একটিভিস্ট নিউজ এ্যাসোসিয়েশনের ফেসবুক পাতা থেকে নেওয়া হয়েছে

একটিভিস্টরা জানে না সাফানা এখন কি অবস্থায় আছে অথবা তার বিরুদ্ধে কি অভিযোগ আনা হয়েছে। যার ফলে তারা সাফানাকে নিয়ে গভীরভাবে চিন্তিত। তার এক বন্ধু, তার গ্রেফতার বিষয়ক সংবাদ প্রদান এবং মুক্তির দাবীতে ফেসবুকের একটি পাতা তৈরী করেছে। তার গ্রেফতার বিষয়ক তাজা সংবাদ টুইটারে # ফ্রিসাফানা নামক হ্যাশট্যাগের মাধ্যমে পাওয়া যাবে।

প্রতিবাদকারী এবং অবস্থান ধর্মঘটকারীরা, সাফানা, হুসাইন দাহানা, আলি জেইন, আসাম হামশাও এবং সকল ধরনের বিরোধিতার প্রতি সরকার যখন থেকে নিষ্ঠুর দমন করা শুরু করেছে, সেই সময় থেকে বন্দী সকল সিরীয় নাগরিকদের সাথে একাত্মতা ঘোষণা করেছে। নীচের এ ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে যে একটিভিস্টরা, ১১ এপ্রিল তারিখে, দামেস্কের এক বিপণি বিতানের সামনে “ দয়া করা আমাদের হত্যা করা বন্ধ। আমরা এমন এক দেশ গড়তে চাই, যা সকল সিরীয় নাগরিকের জন্য” লেখা ব্যানার ধরে আছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .