বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

মায়ানমার:ফেসবুকের মাধ্যমে নির্বাচন পর্যবেক্ষণ

বিগত বছরগুলোতে মায়ানমার বেশ কিছু সংস্কার সাধন করে, যার মধ্যে রয়েছে গণতন্ত্রের প্রতীক বলে বিবেচিত নেত্রী অং সান সূচিকে কারাগার থেকে মুক্তি প্রদান করা, একটি বিতর্কিত বাঁধ নির্মাণের প্রকল্প বাতিল করা, এবং অভূতপূর্ব ভাবে শত শত রাজনৈতিক বন্দীদের মুক্তি প্রদান করা। আর এখন সময় হয়েছে উপনির্বাচনের।

দুটি প্রধান রাজনৈতিক দল, যাদের মধ্যে একটি নাম হচ্ছে ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসি (এনএলডি), যার নেতৃত্বে রয়েছেন অং সান সূচি, এবং অপরটি হচ্ছে ইউনাইটেড সলিডারিটি এন্ড ডেভলপমেন্ট পার্টি ( ইউএসপিডি), যে দলে মূলত প্রাক্তন সামরিক শাসকদের দাপট, সেই দুটি দল, সংসদের ৪৫টি আসনের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছে। এদিকে নির্বাচনে অন্যান্য দল, যেমন নিউ ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি [এনডিপি], ন্যাশনাল ইউনিটি পার্টি (এনইউপি), এবং এ রকম আরো কিছু দল অল্প কিছু আসনের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে।
মায়ানমারের ফেসবুক ব্যবহারকারী নির্বাচনের ভিন্ন ভিন্ন নানা সংবাদে প্রচণ্ড উত্তেজিত হয়ে পড়ে, ঘটনাক্রমে যে দিনটি ছিল এপ্রিল ফুল দিবস।

খিন নিয়েন চ্যান, ইউএসডিপির প্রচারণার এক ছবি পোস্ট করেছে যেখানে তারা যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারী ক্লিনটনের গত নভেম্বরে মায়ানমার সফরের ছবি পোস্ট করেছে। অনেক ফেসবুক মন্তব্যকারী মন্তব্য করেছে যে, এ ভাবে প্রচারণা চালানো ঠিক নয়।

সিংহ ময়ুরের মত উড়তে চেয়েছিল আর, উড়তে না পেরে পড়ে খেল মাটিতে আছাড়,

এমজি এমজি লিইউন ইয়ু, উপরের ছন্দটা লিখেছে [বার্মিজ ভাষায়], যা মূলত ডেমো ইউয়ানের পোস্ট করা ইউএসডিপির নির্বাচনী প্রচারণা নিয়ে তৈরী করা এক ছবি। কেউ কেউ বিশ্বাস করছে যে, এনএলডিপির নির্বাচনী প্রচারণার কার্যক্রমে ব্যাপক সাফল্য লাভের কারণে নাগরিকদের জোর করে ইউএসডিপির এক জনসভায় উপস্থিত থাকতে বাধ্য করা হয়। নির্বাচনে ইউএসডিপির প্রতীক হচ্ছে সিংহ এবং এনএলডির প্রতীক হচ্ছে ময়ূর।

মায়ানমারে নির্বাচনী মিছিল

এছাড়াও অজানা সূত্র থেকে পাওয়া সংবাদের তথ্য এবং গুজব রয়েছে যার প্রভাব বিশাল হতে পারে এবং হয়ত তা নির্বাচনের ফলাফলের উপর প্রভাব ফেলতে পারে, যা কিনা ডেমো ওয়াইয়ান, এ রকম শোনা এক সংবাদের [বার্মিজ ভাষায়] কথা আমাদের জানাচ্ছেন, তিনি শুনেছেন যে কোন কোন স্থানে টিক বা সিল মারার শূন্য স্থানে, মোম লাগিয়ে দেওয়া হয় যাতে ভোটাররা ঠিকমত ভোট দিতে না পারে।

বেশ কিছু গুজব ছড়িয়ে পড়ে, যে সবের ক্ষেত্রে বিশ্বাস করা হচ্ছে যে এগুলো আসলেই এপ্রিল ফুল দিবসের রসিকতা। এ রকম একটি ঘটনায় দাবী করা হয়েছে [বার্মিজ ভাষায়] যে ইউএসডিপি, মান্দালয়ের এক ভিক্ষুককে একটি জামা এবং টুপি দেয় কিন্তু উক্ত ভিক্ষুক এই উপহার গ্রহণ করতে অস্বীকার করেছে। কেউ কেউ বলছে [বার্মিজ ভাষায়] যে মান্দালয়ের তাদার ও নামক এলাকায়, ইউএসডিপির এক সদস্য সারারাত ধরে মাইকে এনএলডির নামে নিন্দা করেছে। ইউএসডিপি সম্বন্ধে সাম্প্রতিক সবচেয়ে বিখ্যাত গুজব ছিল [বার্মিজ ভাষায়], তারা ইয়াংনের ইস্ট দাগন নামক এলাকায় নাগরিকদের বিরিয়ানী দিয়ে নির্বাচনের প্রচারণা চালাচ্ছে। এছাড়াও উল্লেখ করা হয়েছে যে [বার্মিজ ভাষায়] ইউএসডিপির প্রতিনিধিরা তাদের নির্বাচনী ভাষণে লোক আনার জন্য টাকা প্রদান করেছে।

ইউএসডিপির সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা সত্ত্বেও, সংখ্যাগরিষ্ঠ জনতা এনএলডির প্রতি অধীর হয়ে সমর্থন প্রদান করছে, এমনকি যদিও এদের অনেকে এই উপ নির্বাচনে ভোট দেওয়ার যোগ্য নয়। ফেসবুকে পরিচালিত ছোট্ট এক জরিপে [বার্মিজ ভাষায়], ৯৭৪ জন নাগরিক বলছে যে তারা এনএলডিকে ভোট দেবে, অপরদিকে ২৪ জন বলেছে যে তারা ইউএসডিপিকে ভোট প্রদান করবে।

আগামীকাল ভোর পাঁচটায় বের হয়ে সেখানে যাব এবং এনএলডিকে ভোট দেব।

মিন্ত মিন্ত খিন পে, যে কিনা অভিনেতা কায়াক থো-এর স্ত্রী, এবং ফ্রি ফিউনারেল সোসাইটির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা, তিনি তার ফেসবুকে এই লেখাটি পোস্ট করেছেন [বার্মিজ ভাষায়]।

ইউএসডিপির নির্বাচনী প্রচারণা

হটু তাই জার, একজন ব্লগার এবং নাগরিক প্রচার মাধ্যম সাংবাদিক, তিনি এনএলডি এবং ইউএসডিপির ব্যাপারে তার দৃষ্টিভঙ্গি প্রদান করেছে।

বেশীর ভাগ মানুষ সবসময় বলে এসেছে, এনএলডি হচ্ছে বিরোধী দল…আমার কাছে ইউএসডিপি অনেক বেশী বিরোধী দল… আজকে, খাওমি এলাকায় আমি ইউএসডিপি দলটির নির্বাচনী প্রচারণাকে প্রত্যক্ষ করলাম। তাদের এই নির্বাচনী প্রচারণার প্রতি কেউ মনোযোগ প্রদান করছিল না। এছাড়াও তারা খুব একটা সক্রিয় ছিল না। ট্রাকের মধ্যে দলের সদস্যদের দেখে মনে হচ্ছিল যে তারা ঘুমাচ্ছে… সর্বোপরি, তারা হচ্ছে বিরোধী দল এবং তারা সবসময় জনতার চাওয়ার বিরোধীতা করে… =)

মায়ানমারের সক্রিয় ফেসবুক ব্যবহারকারীরা এনএলডি এবং অং সাং সূচির প্রতি তাদের তাদের সমর্থন প্রকাশ করেছে। অং সাং সূচি কাওয়াত হমু নামক এলাকায় এসে পৌঁছান, আশা করা হচ্ছে যে সংসদে তিনি এই এলাকার প্রতিনিধিত্ব করবেন। ডিভিবি, কাওয়াত হমু এলাকায় অং সাং সূচির আগমনের উপর তোলা ভিডিও [বার্মিজ ভাষায়] পোস্ট করেছে, যেখানকার জনগণের এই নির্বাচন নিয়ে প্রচণ্ড আশাবাদ রয়েছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .