বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

কম্বোডিয়া: এংকরে প্রথম বারক্যাম্প

২০০৮ সাল থেকে কম্বোডিয়ার  বারক্যাম্পগুলো আয়োজিত হচ্ছে নম পেন-এ। কিন্তু এবছরের বারক্যাম্প অনুষ্ঠিত হবে প্রাদেশিক শহর সিয়েম রিপ-এর বিশ্বখ্যাত এংকর মন্দিরের ভবনশ্রেণীর প্রবেশপথে। এবারের অনুষ্ঠানস্থলটি হলো সিয়েম রিপ প্রদেশের বিল্ড ব্রাইট বিশ্ববিদ্যালয়।

অন্যান্য বারক্যাম্প অনুষ্ঠানের মতোই বারক্যাম্প সিয়েম রিপ-এর লক্ষ্য হলো প্রযুক্তি, সফটওয়্যার উন্নয়ন এবং ব্যবসায়িক সমাধানের নতুন বিভিন্ন উদ্ভাবন এবং চিন্তাগুলো ভাগাভাগি করা এবং শেখার জন্যে তথ্যপ্রযুক্তি উৎসাহীদের এবং ছাত্র-ছাত্রীদের একত্রিত করা।

মজার ব্যাপার হলো সিয়েম রিপ থেকে প্রায় ৩১৪ কিলোমিটার দূরে নম পেনে বসবাসকারী বারক্যাম্পের একজন সমর্থক তার অনলাইন পাঠকদের জানিয়েছেন যে তিনি  অনুষ্ঠানটিতে অংশ নেয়ার জন্যে অনুষ্ঠানস্থলটিতে তার মো্টরবাইক চালিয়ে এসেছেন

ছবির সৌজন্যে http://barcampsiemreap.org/

শীর্ষ বারক্যাম্প এংকর দল সংগঠক বে চান্ত্রা ব্যাখ্যা করেছেন, অনুষ্ঠানটি সিয়েম রিপে আনা হয়েছে

বারক্যাম্প মুক্ত এবং কোনো নির্দিষ্ট অনুষ্টানসূচী বা বক্তা ছাড়াই পরিকল্পিত এবং বারক্যাম্প ইয়াঙ্গুন, বারক্যাম্প ব্যাংকক, বারক্যাম্প চিয়াং মাই–এর মতো সাধারণতঃ বিভিন্ন শহরে আয়োজিত। এভাবেই বারক্যাম্পটি সিয়েম রিপে নিয়ে আসা হয়েছে।

শহরটিতে বসবাসকারী তরুণ এবং অন্যান্য তথ্যপ্রযুক্তি উৎসাহীদের অংশগ্রহণের সুযোগ করে দেয়া এবং আকর্ষনের জন্যে। এছাড়াও সিয়েম রিপের অনুষ্ঠানস্থলটি বিখ্যাত ভ্রমণ কেন্দ্র হওয়ার কারণে এটা বিদেশ এবং রাজধানী নম পেন থেকে অংশগ্রহণকারীদের আকর্ষন করতে পারে।

চান্ত্রা স্থানীয় তরুণ জনগোষ্ঠীর অংশগ্রহণ ভাল করানোর জন্যে সংগঠন এবং প্রচারাভিযানের চ্যালেঞ্জের কথা স্বীকার করেছেন। তিনি আরো বলেছেন তার সাংগঠনিক দলটির সব সদস্যই নম পেনে বসবাসকারী স্বেচ্ছাসেবী।

চান্ত্রা আশা করছেন উপস্থিতি ৫০০-তে পৌঁছাতে পারে এবং এই সংখ্যার মধ্যে নম পেন থেকে ৮০ জন ব্যক্তি তাদের উপস্থিতি নিশ্চিত করেছেন। তিনি প্রত্যাশা করেন বারক্যাম্প এংকর-এর প্রথম শুরু দেশের ডিজিটাল বিভক্তিকে জোড়া লাগাতে সাহায্য করবে। এছাড়াও তিনি প্রযুক্তি উন্নয়ন বিষয়ে স্থানীয় তরুণদের আরো সক্রিয় অংশগ্রহণ চান।  .

অনুষ্ঠানটির এক পৃষ্ঠপোষক সাবে সংবাদ গ্রুপ, রাজধানী এবং পার্শ্ববর্তী দেশগুলো থেকে আসা নামকরা তথ্যপ্রযুক্তি উৎসাহীদের সাথে যোগাযোগ করতে আসার জন্যে প্রদেশটির তরুণ জনগোষ্ঠীকে উৎসাহিত করেছে।

BarCamp Angkor 2012ជា​ឱកាស​ពិសេស​សម្រាប់​យុវជន យុវនារី​ក្នុង​ខេត្ត​សៀមរាប​ជួប​ជាមួយ​វាគ្មិន​ដែល​អញ្ជើញ​មកពី សៀមរាប រាជធានី​ភ្នំពេញ សិង្ហបុរី ម៉ាឡេស៊ី ថៃ វៀតណាម ។

“বারক্যাম্প এংকর ২০১২ সিয়েম রিপ শহরের স্থানীয় তরুণ এবং তরুণী উভয়দেরকেই শহর, রাজধানী নম পেন এবং সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড ও ভিয়েতনামের মতো অন্যান্য দেশ থেকে আসা প্রধান প্রধান বক্তাদের সাথে যুক্ত হওয়ার এক বিরাট সুযোগ করে দিয়েছে।”

ইন্টারনেট সংযোগ এবং মিডিয়ার স্বাধীনতার অধিকার তুলে ধরার জন্যে কম্বোডীয় মানবাধিকার কেন্দ্রের সহযোগিতায় কম্বোডিয়ার প্রথম মানবাধিকার পোর্টাল সিথি.অর্গ-এর একটি দল এই অনুষ্ঠানটিতে অংশ নিবে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .