বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

মিশরঃ নাগিব মাহফুজের জন্ম শতবার্ষিকী উদযাপন

আজ (১১ ডিসেম্বর) মিশরের নোবেল সাহিত্য পুরষ্কার বিজয়ী এবং অন্যতম উপন্যাসিক নাগিব মাহফুজের শততম জন্মদিন। আজকের এই দিনটাকে টুইটারে স্মরণ করা হচ্ছে।

নাগিব মাহফুজ, ১১ ডিসেম্বর ১৯১১-এ জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৮৮ সালে সাহিত্যে নোবেল পুরষ্কার লাভ করে। অজস্র লেখা লিখে যাওয়া এই দুর্দান্ত লেখক, ৫০ টির মত উপন্যাস এবং ৩৫০ টি ছোট গল্প লিখেছেন, এছাড়াও তিনি ৫টি নাটক এবং পেশাগত জীবনে অজস্র চলচ্চিত্রের চিত্রনাট্য লিখেছেন। তিনি প্রায় ৭০ বছর ধরে তাঁর এই লেখার কাজ চালিয়ে যান।

টুইটারে, ইব্রাহিম আব্দেল মাগুইদ উল্লেখ করেছেন [আরবী ভাষায়]:

النهاردة عيد ميلاد نجيب محفوظ . زي النهاردة من 100 سنة اتولد ضمير للوطن
@ইব্রাহিমআব্দেলমেগ: আজকের দিনটাকে নাগিব মাহফুজের জন্মদিন হিসেবে উদযাপন করা হচ্ছে। এখন থেকে ১০০ বছর আগে ঠিক আজকের এই দিনে এই জাতির এক বিবেক হিসেবে পরিচিত, এক ব্যক্তির এই পৃথিবীতে আগমন ঘটে।

নাগিব মাহফুজের জন্মদিন উদযাপন। ছবির কৃতিত্ব উইকিমিডিয়া কমন্সের, (সিসি বাই–এসএ ৩.০) –এর মাধ্যমে ব্যবহার করা হয়েছে।

নারিমান ইদ্রিস বিস্মিত:

@নারিমানইদ্রিস:আজ যদি টিভি চ্যানেলগুলো #মাহফুজের লেখা কাজ সমূহকে সারাদিন ধরে চালাতে থাকে!

লায়লা এল তাহওয়ায়ি ভাবছেন, নাগিব মাহফুজ, যিনি ২০০৬ সালে মারা গেছেন, তিনি যদি আজ মিশরের চলতে থাকা বিপ্লবকে দেখে যেতে পারতেন। ভদ্রমহিলা টুইট করেছেন:

@লায়লাতাহওয়ায়ি:শান্তিতে ঘুমাও মাহফুজ, সামান্য যে কয়জন মানুষকে আমি এই বিপ্লবের প্রত্যক্ষদর্শী হতে দেখতে চেয়েছিলাম, নাগিব মাহফুজ তাদের মধ্যে অন্যতম। #মাহফুজ#ইজিপ্ট

মুহাম্মাদ আদেল ব্যাখ্যা করেছে [আরবী ভাষায়]:

حينما أقرأ بعض روايات نجيب محفوظ التى أثارت جدلا حول الدين، أتيقن من مدى إيمان هذا الرجل، ولكن شتان بين إيمان العقل وإيمان الوراثة.
@এমহাম্মাদাল:যখনই আমি নাগিব মাহফুজের কোন বই পড়ি, যা কিনা ধর্মীয় কারণে বিতর্কের সৃষ্টি করে, আমি তা পাঠ করে উপলব্ধি করি যে, এই মানুষটি একটি বিশেষ মাত্রার বিশ্বাস উপভোগ করত। আপনার মস্তিস্কের ভেতরে যে বিশ্বাস প্রোথিত এবং আপনি নিজের চেতনার মাধ্যমে যে বিশ্বাস অর্জন করেন, তার মধ্যে পার্থক্য রয়েছে।

এবং ম্যাথু উপসংহার টেনেছে:

@হারাফিশ১:নাগিব#মাহফুজের আজ শততম জন্মদিন! যদিও তিনি আর আমাদের মাঝে নেই, কিন্তু তার লেখা বই এখনো আমাদের অনুপ্রাণিত করে এবং পৃথিবীর শেষ সময় পর্যন্ত সে গুলো আমাদের মাঝে থেকে যাবে# ইজিপ্ট

নাগিব মাহফুজ–এর ফেসবুকের পাতা, আজকের দিনটিতে তাঁর জন্ম শতবার্ষিকীকে স্মরণ করে যে সব অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে সে সবের সংবাদের লিঙ্ক প্রদান করেছে

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .