বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ইয়েমেন: উপরাষ্ট্রপতি হাদি, যুক্তরাষ্ট্রে চিকিৎসার উদ্দেশ্য দেশত্যাগ করেছে!

এই প্রবন্ধটি ইয়েমেন বিক্ষোভ-২০১১ এর উপর করা আমাদের বিশেষ কাভারেজের অংশ

আজকে ইয়েমেনের পত্রিকার প্রধান শিরোনাম হচ্ছে “উপরাষ্ট্রপতি আব্দু রাব্বু মানসুর হাদির হঠাৎ করে চিকিৎসার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে দেশ ত্যাগের বিষয়টি”। ঘটনাক্রমে তার এই যাত্রার সময়টি, জাতিসংঘের বিশেষ দূত বেন ওমার এবং ভূমধ্যসাগরীয় সহযোগিতা পরিষদ (গালফ কোঅপারেশন কাউন্সিল বা জিসিস)-এর সাধারণ সম্পাদক আল জায়ানির ইয়েমেনে আগমনের সময়ের সাথে মিলে গেছে, যারা শীঘ্রই ইয়েমেন সফরে আসছেন।

@সামাওয়াদ্দাহ যেমনটা লিখেছে:

যদি উপরাষ্ট্রপতি হাদি যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্য রওনা দেয়, তাহলে জায়ানি এবং বিন ওমারের সাথে আলোচনায় বসবে কে? এখানে একটা রহস্যময় বিষয় রয়েছে। #ইয়েমেন#সাপোর্ট ইয়েমেন

অনেকে মনে করছেন তার এই যাত্রা শাসকদের একটা নতুন চাল, যারা উপরাষ্ট্রপতির অনুপস্থিতির অজুহাতে ক্ষমতা হস্তান্তরে আরো দেরী করতে চাচ্ছে। জিসিসির যে প্রস্তাব ইতোমধ্যে জনতা প্রত্যাখান করছে, সেই প্রস্তাবে উপরাষ্ট্রপতির স্বাক্ষর করার কথা।

@ব্রাহোমও একই উদ্বেগ টুইট করেছে:

উপরাষ্ট্রপতি হাদি যুক্তরাষ্ট্রে আর আলইরিয়ানি যদি ইউরোপে থাকে… তাহলে #জিসিসির উদ্যোগের কি হবে। bit.ly/vqMrRm

@ঘানেম_এম জিজ্ঞেস করেছে:

হাদি (উপরাষ্ট্রপতি) কি #যুক্তরাষ্ট্রে যাবার আগে #সালেহকে #জিসিসির উদ্যোগে স্বাক্ষর করার জন্য তার প্রতিনিধি হিসেবে মনোনীত করে গেছে। #ইয়েমেন

রাষ্ট্রের নিজস্ব সংবাদপত্র সাবা সংবাদ প্রদান করেছে যে, হাদি নিয়মিত ভাবে বছরে একবার চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন, আর তার জন্য তিনি যুক্তরাষ্ট্রে গিয়েছেন।

@ইয়েমেন৪১১, সরকারের ভাষ্য টুইট করেছে:

#নিজের শারিরীক অবস্থা যাচাই করার জন্য #ইয়েমেনের উপরাষ্ট্রপতি হাদি যুক্তরাষ্ট্রে উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন। তিনি @ক্লিভল্যান্ড ক্লিনিকাল কার্ডিওলজি বিভাগে তার শারীরিক অবস্থা যাচাই করবেন।

@সামাহওয়াদ্দা বিদ্রুপের ছলে কিছু হতাশা ব্যক্ত করেছেন, তার ভাবনায় হাদির এই যাত্রা তার শারীরিক অবস্থা যাচাই-এর জন্য নয়, এটা আসলে পালিয়ে যাওয়া।

#ইয়েমেনের উপরাষ্ট্রপতি হাদি আর ফিরবে কি না, এই নিয়ে আমার সন্দেহ আছে, আর যদি এ রকম ঘটনা ঘটে, তাহলে তা জিসিসির বিভ্রান্তিকর প্রস্তাবে এক নতুন বাধার সৃষ্টি করবে! আমিনার [ আরবী ভাষায় এই শব্দের মানে হচ্ছে “নিরাপত্তা’, একই সাথে এটি মেয়েদের নাম হিসেবে ব্যবহার করা হয়। বর্তমান অবস্থায় আমিনা/ আমিনাহ নামক শব্দের অর্থ নিয়ে ইয়েমেনির ঠাট্টা করে থাকে) জন্য অনুসন্ধান চলতেই থাকে!

@ইয়েমেন৪১১ পরিষ্কার করছে যে :

মহামান্য উপরাষ্ট্রপতি #হাদি (#ইয়েমেন) এবার যুক্তরাষ্ট্রে, রাষ্ট্রীয় উদ্দেশ্য নয়, তার ব্যক্তিগত চিকিৎসা কাজে স্বল্প সময়ের জন্য গিয়েছেন।

@আমিরাহ১ইয়েমেনিয়া, ইয়েমেনের বেশির ভাগ নাগরিক দেশটির দুর্বল স্বাস্থ্যসেবার যে অনুভূতি ধারণ করে, সেই বিষয়ে টুইট করেছেন:

@ইয়েমেন৪১১, এটা বেদনাদায়ক বিষয় #ইয়েমেনে একজন সাধারণ নাগরিকেরই কেবল বাৎসরিক স্বাস্থ্য যাচাই করার সুবিধা নেই, দেশটির একজন উপরাষ্ট্রপতির জন্য তা সমান সত্যি?!

@নেফারমাত একই সাথে যুক্ত করেছে:

চিকিৎসার জন্য হাদি যুক্তরাষ্ট্রে গিয়েছে; এতে প্রমাণিত যে আমাদের স্বাস্থ্য সেবা ব্যবস্থা এত খারাপ যে এমনকি সরকারি কর্মকর্তা, উপরাষ্ট্রপতি এবং রাষ্ট্রপতি এখানে চিকিৎসা করতে পারেন না। #ইয়েমেন!!!!

একটি কার্টুনে দেখা যাচ্ছে যে জিসিসি রাষ্ট্রপতি সালেহ-এর জন্য মনোমত জামা ওরফে সংস্কার কর্মসূচির উদ্যোগ নিচ্ছে।

জিসিসি-এর প্রস্তাব, যা কিনা রাষ্ট্রপতি সালেহ -এর মনোমত হবার জন্য অনেকবার সংশোধন করা হয়েছে, তাতে শর্ত রয়েছে যে তিনি আনুষ্ঠানিক পদত্যাগ করার আগে উপরাষ্ট্রপতি হাতে ক্ষমতা প্রদান করবেন। অভিযোগ উঠেছে যে রাষ্ট্রপতি সালেহ ক্ষমতা হস্তান্তর করতে অস্বীকার করেছেন, কারণ তিনি এমন এক ব্যক্তির হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে চান যার হাতে তিনি নিরাপদ বা আরবী ভাষায় আইয়াদি আমিনাহ-এর হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে চান। এ কারণে উপরাষ্ট্রপতি দেশ থেকে চলে গেছেন। এখন মনে হচ্ছে জিসিসির কাহিনী আরো দীর্ঘ সময় চলবে, যতক্ষণ না অনিশ্চিত আমিনাহ-এর প্রত্যাবর্তন ঘটবে।

@সামাওয়াদ্দাহ এক বক্তব্য তুলেন ধরেছেন যা অনেকের বক্তব্য:

উপরাষ্ট্রপতি হাদির অনুপস্থিতির ফলে সবচেয়ে বেশী লাভবান হবে #সালেহ। যতক্ষণ হাদি, যে কিনা সালেহ-এর তথাকথিত “আমিনাহ” দৃশ্যপটে অনুপস্থিত থাকবে, ততক্ষণ জিসিসি-এর প্রস্তাবিত চুক্তিতে স্বাক্ষরে দেরী হতে থাকবে।

এই প্রবন্ধটি ইয়েমেন বিক্ষোভ-২০১১ এর উপর করা আমাদের বিশেষ কাভারেজের অংশ

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .