বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

তুরস্ক: ভানের ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য অনলাইনে ত্রাণ তৎপরতা

গতকাল (২৩শে অক্টোবর) তুরস্কের পূর্বাংশে ৭.২ মাত্রা একটি ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। এই ভূমিকম্পের কেন্দ্র ছিল ভান প্রদেশের ১৬ কিলোমিটার উত্তরের এক এলাকায়। ভূমিকম্প এই এলাকাকে বিপর্যস্ত করে ফেলে, যেখানে অনেক ভবন ধ্বংস হয়ে গেছে এবং ধ্বংসস্তূপের নীচে অনেকে এখনো চাপা পড়ে আছে।

যখন তুর্কী সরকার আনুষ্ঠানিক ভাবে ত্রাণ তৎপরতা শুরু করে, দেশের এবং দেশের বাইরের তুরস্কের নাগরিকরা এই ত্রাণ তৎপরতায় যোগ দেবার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করে। যার ফলে ভূমিকম্পের কয়েক ঘণ্টার মধ্যে এই উদ্ধার এবং ত্রাণকার্যে সাহায্য করার জন্য সামাজিক প্রচার মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের প্রচারণা চালু হয়।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অন্যতম এক কৌতূহল জনক প্রচারণা সবার মনোযোগ আকর্ষণ করেছে। এটির নাম “এভিমএভিনদির” । এই প্রচারণা শুরু করেন তুরস্কের সাংবাদিক আহমেট তাজকান, যখন তিনি টুইটারে ঘোষণা দেন [তুর্কী ভাষায়] যে, ভূমিকম্পে গৃহহীন হয়ে পড়া একটি পরিবারকে তিনি তার গৃহে আশ্রয় দিতে রাজি:

Vanlı bir aileye evimi açmaya hazirim. Kamu kuruluşları bunu da organize etmeli!

আমি আমার ঘর এবং দরজা ভানের পরিবারের জন্য উন্মুক্ত করে রাখলাম। সরকারি প্রতিষ্ঠান সমূহ এই কাজটি সংগঠিত করতে পারে!

আহমেট তাজকান তার এই ভাবনা তুলে ধরেন এবং শীঘ্রই তুরস্কের আরেক সাংবাদিক এরহান সেলিক এই প্রচারণাকে আরো জোরালো করেন। কয়েক ঘন্টার মধ্যে এই প্রচারণার বিষয়ে এই দুই সাংবাদিক শত শত টুইট এবং হাজার হাজার ই-মেইল লাভ করেন। আর এরহান সেলিক, এই বিষয়ে সবাই মনোযোগ প্রদান করায়, তিনি সবার প্রতি তার ধন্যবাদের কথা উল্লেখ করেন [তুর্কী ভাষায়]:

Mail kutumda 17 bin mail var. Bunlardan ilgili olanları İstanbul Valiliğine iletiyorum. İlginize depremzedeler adına çok teşekkürler!

আমার ইনবক্সে ১৭, ০০০ ই-মেইল এসেছে। আমি আগ্রহী দলের কথা ইস্তাম্বুলে গভর্নরের দপ্তরে জানাচ্ছি!

#এভিম এভিনদির [ তুর্কী ভাষায়-এর মানে, আমার ঘর আপনার ঘর] এবং #এভিমএভিনদিরভান নামক দুটি হ্যাশট্যাগ দ্রুত তুরস্কে ছড়িয়ে পড়ে এবং এদের প্রচারণার জন্য www.evimevindir.com. নামের একটি নতুন ওয়েবসাইটে স্থাপন করা হয়। আহমেট তাজকান সংবাদ প্রদান করেছেন যে, ইস্তাম্বুলের গভর্নর দপ্তর এই প্রচারণায় সাহায্য করার জন্য এগিয়ে এসেছে:

İstanbul Valimiz H.Avni Mutlu #EvimEvindirVan kampanyasindan haberdar edildi. Çok sevindi. Gerekenin yapilmasi icin talimat verecektir!

ইস্তাম্বুলের গভর্নর এইচ আভি মুটুল, #এভিমএভিনদির ভানের প্রচারণা সম্বন্ধে অবগত হয়েছেন। এই প্রচারণায় তিনি খুবই আনন্দিত। এতে প্রয়োজনীয় কর্মকাণ্ডের বিষয়ে তিনি পরবর্তী নির্দেশনা প্রদান করবেন।

এই প্রচারণার ওয়েবসাইটের সূত্রানুযায়ী, ইস্তাম্বুলে আশ্রয় দানে ইচ্ছুক পরিবারগুলোকে চিহ্নিত করা এবং তাদের সাথে যোগাযোগ করা, আর যে এলাকায় ভূমিকম্প সংঘটিত হয়েছে, সেই এলাকার পরিবারগুলোকে চিহ্নিত করার ক্ষেত্রে ইস্তাম্বুলের গভর্নর-এর দপ্তর কাজ করবে, তারা এখন এই প্রচারণায় সমন্বয় সাধন করবে।

টুইটারে আরেকটি প্রচারণা শুরু হয় এবং #হাইদিজিএসসিলার [ তুর্কী ভাষায় এর অর্থ হল #জিএসএমঅপারেশন) নামক হ্যাশট্যাগের মাধ্যমে এটি টুইটারে সবার সমর্থন লাভ করে। এই প্রচারণা তুরস্কের তিনটি প্রধান জিএসএম মোবাইল কোম্পানিকে ভূমিকম্প সংঘঠিত এলাকার নাগরিকদের বিনে পয়সায় কথা বলার সূযোগ দেবার আহ্বান জানায়। এই তিনটি কোম্পানী হচ্ছে টার্কসেল, ভোডাফোন টার্কি এবং আভেয়া। কারণ, ধারনা করা হচ্ছে ধ্বসে পড়া ভবনের নীচে আটকে পড়া অনেক জীবিত নাগরিক সাহায্যের জন্য তাদের মোবাইল ফোন ব্যবহার করছে। সাংবাদিক এরহান সেলিক আগ্রহের সাথে এই প্রচারণাকে তুলে ধরছেন , তিনি পোস্ট করেছেন [ তুর্কী ভাষায়]:

GSM şirketleri de üzerine düşeni yapsın! Deprem bölgesinde kontörlü hatlar ücretsiz olsun, mağdurlar rahatça konuşsun! #HaydiGsmciler

জিএসএম মোবাইল কোম্পানিগুলোকেও তাদের দায়িত্ব পালন করতে হবে! ভূমিকম্পের এলাকায় তাদের প্রিপেইড ফোন থেকে বিনে পয়সায় কল করতে দিতে হবে [ যে কোন ধরনের ফোন কল] , যাতে ভূমিকম্পের শিকার নাগরিকরা ফোন করতে পারে । #হেইডিজিএসএমসিলার

এই হ্যাশট্যাগ যাত্রা শুরু হওয়া মাত্র, অন্যতম প্রধান সব জিএসএম মোবাইল কোম্পানি ভানের গ্রাহকদের বিনে পয়সায় কথা বলা সুযোগ করে দেয়, যা ভূমিকম্পের কারণে ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে। টার্কসেল এবং আভেয়া, তাদের নিজস্ব টুইটার একাউন্ট থেকে সংবাদ প্রদান করেছে [ তুর্কী ভাষায়] যে :

Van'da bulunan ön ödemeli müşterilerimize her yönü arayabilecekleri 100 dk. ücretsiz konuşma süresi ve 100 kısa mesaj (SMS) yüklenecektir

ভানের প্রিপেইড গ্রাহকদের জন্য ১০০ মিনিট পর্যন্ত কথা বলার সুযোগ এবং ১০০টি এসএমএস ফ্রি করে দেয়। এটি যে কোন ধরনের কলের জন্য প্রযোজ্য।

Van'da yaşanan felaket nedeniyle bölgede bulunan tüm Avealı'lara her yöne kullanabilecekleri 100dk konuşma ve 100 sms tanımlanmıştır #van

ভানে যে বিপর্যয় ঘটেছে তার প্রেক্ষাপটে আভেয়ার সকল গ্রাহককে বিনে পয়সায় ১০০ মিনিট পর্যন্ত কথা বলা এবং ১০০ টি এসএমএস করার সুযোগ প্রদান করা হয়েছে #ভান

ভূমিকম্পের কয়েক ঘণ্টা পরে, কয়েকজন একটিভিস্ট ব্লগার একটি ব্লগ সৃষ্টি করেছে এর নাম ইয়ালনিজ দেগুলিশিন ভান [ তুর্কি ভাষায় এর মান হচ্ছে, ভান একা নয়] । এর উদ্দেশ্য হচ্ছে ত্রাণের ক্ষেত্রে যোগাযোগের ঠিকানা প্রদান করা এবং ভূমিকম্প সংঘঠিত এলাকায় ত্রাণ তৎপরতার সমন্বয় সাধন করা। এই বিষয়ে ব্লগস্ফেয়ার এবং টুইটারে ব্যাপক প্রচারণা চালানো হয়েছে, এই ব্লগ তার নিজের কর্মকাণ্ডের বিষয়ে বর্ণনা প্রদান করছে এভাবে :

২০১১-এ ভানে যে ভূমিকম্প সংঘঠিত হয়েছে, এতে ত্রাণ বিতরণে পরিবহণ ব্যবস্থা, বিভিন্ন ধরনের সমন্বয় সাধনের সংখ্যা এবং চাহিদা অনুসারে প্রয়োজনীয় সামগ্রী ও যন্ত্রপাতি সরবরাহের মত ত্রাণ প্রচেষ্টাকে চিহ্নিত করা, এই বিষয়ে তথ্য একত্রিত করা এবং তাজা সংবাদ প্রদান করার লক্ষ্যে এই পাতার সৃষ্টি করা হয়েছে…

ব্লগ-এ তুর্কী এবং ইংরেজী উভয় ভাষায় তথ্য প্রদান করেছে এবং এটির একটি ফেসবুক পাতা রয়েছে যেটিকে “ভান’লা ডাইয়ানিসমা” [ তুরস্কের ভানের নাগরিকদের সাথে একাত্মতা ঘোষণা] নামে উল্লেখ করা হচ্ছে।

ভূমিকম্পের শিকার নাগরিকদের ক্ষেত্রে ত্রাণ তৎপরতার জন্য সর্বশেষ যে ওয়েব ভিত্তিক সাহায্য প্রচেষ্টা, সেটি গুগলের, আর এটি হচ্ছে গুগলের ব্যক্তি অনুসন্ধান প্রক্রিয়া, যা তুরস্কে চালু করা হয়েছে, জাইনেপ তুফেকচি সংবাদ প্রদান করেছেন:

এখন তুরস্কে ভানের ভূমিকম্পে গুগলের ব্যক্তি অনুসন্ধান চালু করা হয়েছে: http://turkey-2011.googlepersonfinder.appspot.com/

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .