- Global Voices বাংলা ভার্সন - https://bn.globalvoices.org -

বিশ্ব হাত ধোয়া দিবসঃ গান এবং নাচের মাধ্যমে আচরণ পরিবর্তন

বিষয়বস্তু: ক্যারিবিয়ান, পূর্ব এশিয়া, ল্যাটিন আমেরিকা, সাব সাহারান আফ্রিকা, কলম্বিয়া, ক্যাম্বোডিয়া, জাপান, ফিলিপাইনস, মেক্সিকো, মোজাম্বিক, হন্ডুরাস, হাইতি, নাগরিক মাধ্যম, যুবা, শিক্ষা, সঙ্গীত, স্বাস্থ্য
[1]

বিশ্ব হাত ধোয়া দিবসের লোগো

আপনি সঠিক ভাবে ধাত ধোয়ার উপায় সম্বন্ধে জানেন কি? বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নাগরিকরা স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রচারণার জন্য গান এবং নাচের মাধ্যমে অন্যদের হাত ধোয়ার বিষয়ে শিক্ষা প্রদান করছে। ১৫ অক্টোবর ২০১১ তারিখটি ছিল বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস [1]। আর এবারের এই দিবসের প্রতিপাদ্য স্লোগান হচ্ছে, পরিষ্কার হাত, জীবন বাঁচায়। এই দিবসটি খুব সাধারণ একটি কার্যক্রমের উপর আলোকপাত করেছে যা প্রতিরোধ করা যায় এমন রোগ প্রতিরোধের মাধ্যমে শিশু মৃত্যুর হার কমিয়ে আনতে সাহায্য করে।

গ্র্যামি পুরষ্কার বিজয়ী কলম্বিয়ার চকুইবটাউন [2] নামক দল তাদের এই হিপ হপ [3] গানের মাধ্যমে শিশুদের জানাচ্ছে, কখন এবং কিভাবে হাত ধুতে হয়।

হন্ডুরাসের পল্লী অঞ্চলের এই তরুণ সঙ্গীত দলটিও স্থানীয় টেলিভিশনে প্রচারিত হিপ হপ গানের এই ভিডিওর [4] মাধ্যমে সবাইকে হাত ধোয়ার গুরুত্ব সম্পর্কে জানাচ্ছে।

বিবিসি ওয়ার্ল্ড ট্রাস্ট ক্যাম্বোডিয়ার হাত ধোয়া নামক এই বিজ্ঞাপনে [5] শিশুদের এক গেম থেকে বের হয়ে আসা শিশু, যতক্ষণ না হাত ধুচ্ছে, ততক্ষণ সে খুব গুরুত্বপুর্ণ এক প্রশ্ন করে যাচ্ছে: যদি কারো কাছে সাবান না থাকে তাহলে কি দিয়ে হাত ধুতে হবে? এক্ষেত্রে ছাই ব্যবহার করলে চলবে।

বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে আলাদা আলাদা অনেক সংগঠন হাত ধোয়ার বিষয়টি সম্বন্ধে প্রচারণা চালিয়ে থাকে। পরবর্তী ভিডিওগুলোতে আমরা দেখতে পাব, কি ভাবে হাইতিতে রেডক্রসের ত্রাণ তৎপরতার উদ্যোগে [6] ক্রিয়ল ভাষায় গাওয়া গানের মাধ্যমে হাত ধোয়ার বিষয়টি সম্বন্ধে প্রচারণা চালানো হচ্ছে, মোজাম্বিকের ফুড ফর দি হাংরি মোজাম্বিক ( মোজাম্বিকের ক্ষুধার্তদের জন্য খাদ্য) নামক সংগঠন আমাদের একটি হাত ধোয়ার কেন্দ্র প্রদর্শন করেছে, যেখানে পানির উৎস হিসেবে এক গ্যালনের একটি প্লাস্টিকের বোতল ব্যবহার করা হয়েছে। তারা একই সাথে মোজি'স ওয়াটার নামক গানটিকে প্রদর্শন করছে, যতদিন হাত ধোয়ার বিষয়টি থাকবে ততদিন এই গানটি থাকবে। কলম্বিয়ার সুরতিগাস এবং প্রমিগাস ফাউন্ডেশন [7], লেখা, ছবি আঁকা, কবিতা লেখা এবং গান গাওয়ার মাধ্যমে শিশুদের নিজেদের প্রকাশ করার সুযোগ দিয়ে শিশুর ক্ষমতায়ন ঘটাচ্ছে। এদের মধ্যে কয়েকজন শিশু হাত ধোয়ার উপর একটা গান রচনা করেছে এবং তা ঐতিহ্যবাহি ভালেনাটো স্টাইলে গেয়েছে।

মেক্সিকোর এই ভিডিও [8], ইউনিসেফের ২০০৯ সালের জাপানী এক হাত ধোয়ার গানের উপর ভিত্তি করে তৈরি [9] এবং তাতে বিভিন্ন ধাপের নাম উল্লেখ করা হয়েছে যাতে হাত ধোয়ার বিভিন্ন ধাপগুলো সহজে স্মরণ করা যায়: পাহাড়, গিটার, মোটর সাইকেল, সাপ, প্রজাপতি এবং “কামেহামেহা” [10] প্রদর্শন করেছে যে, হাত ধোয়া আসলে দুই হাত ঘষার চেয়ে বেশি কিছু!

স্বাস্থ্য কর্মীদের ক্ষেত্রে হাত ধোয়ার যে পাঁচটি পদক্ষেপ আছে, তার ভেতের দিয়ে যাবার জন্য বিয়ন্সের সিঙ্গেল লেডিস নামক গান ব্যবহার করা হচ্ছে। যেমনটা এই ভিডিওতে [11] দেখা যাচ্ছে যে মেক্সিকোর জন স্বাস্থ্য বিভাগের ছাত্ররা এই গানের সাথে নাচছে। প্রথমে হাতের আংটি খুলে ফেলুন, তারপর ঘড়ি এবং বালা, এরপর পানির কল ছাড়ুন, হাত ভেজান এবং তারপর হাতে যথেষ্ট সাবান লাগান। হাতের পেছনের অংশ পরিষ্কার করুন, সামনের অংশ পরিষ্কার করুন, দুই পাশের দিকগুলো এবং আঙ্গুলের মাথা পরিষ্কার করার পর হাত কোন কাগজের তোয়ালে দিয়ে মুছে ফেলুন, যা এর পরে সংলগ্ন নল বন্ধ করার জন্য ব্যবহার করুন।

ফিলিপাইনসের ইলিগান সিটি নামক শহরের স্বাস্থ্য কর্মীরা নিজস্ব নাচের মুদ্রা বা কোরিওগ্রাফ দিয়ে নিজস্ব হাত ধোয়ার ভিডিও [12] সৃষ্টি করেছে। এটা তারা করেছে স্লামডগ মিলিওনিয়ার চলচ্চিত্রের “জয় হো” নামক গানের সুরে।

আসুন আমরা আমাদের হাত ধুয়ে ফেলি!