বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

বুলগেরিয়া: রোমা এবং বুলগেরীয় জাতিগোষ্ঠীর মধ্যে দাঙ্গা

শুক্রবার রাতে বুলগেরিয়ার প্লভডিভ-এলাকার কাছে কাতুনিৎসা নামক গ্রামে এক ভয়াবহ দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়ে। এর আগে স্থানীয় বুলগেরীয় জনগোষ্ঠীর এক ১৯ বছরের নাগরিক নিহত হয়। তার নাম এঞ্জেল পেট্রভ। এক গাড়ির নীচে চাপা পড়ে তার মৃত্যু ঘটে। গাড়িটি চালাচ্ছিল এমন এক ব্যক্তি, যার সাথে স্থানীয় রোমা (জিপসি) জনগোষ্ঠীর সর্দারের সম্পর্ক রয়েছে।

ফোকাস ইনফরমেশন এজেন্সির সংবাদ অনুসারে:

কাতুনিৎসার দক্ষিণের গ্রাম থেকে ১২৭ জন নাগরিককে গ্রেফতার করা হয়েছে, যেখানে স্থানীয় বুলগেরীয় এবং রোমা সম্প্রদায় এক সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এক ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনা, যার সাথে রোমা নেতা কিরিল রাসকভ ওরফে জার কিরোর এক আত্মীয় যুক্ত ছিল , তার পরপরই এই সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে। গ্রেফতারকৃতরা লুটপাট, অগ্নিসংযোগ এবং এ রকম আরো অজস্র অপরাধের অভিযুক্ত হয়েছেন।

এই দাঙ্গায় প্রায় ২,০০০ জন ব্যক্তি যুক্ত ছিল। যখন রাসকভ-এর পারিবারিক যানের নীচে চাপা পড়ে নিহত কিশোরের আত্মীয়রা রোমা বসতিতে হামলা চালায়, তখন এই দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়ে। এই দাঙ্গায় একজন নিহত এবং পাঁচ জন ব্যক্তি আহত হয়েছে।

তিনজন পুলিশ ও দুইজন বেসামরিক ব্যক্তি দাঙ্গায় আহত হয়েছে, এদিকে ঘটনাস্থলে ফুসফুসে আঘাত পাওয়া এক ১৬ বছরের কিশোরকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে সেখানে সে মারা যায়।[…]

ঘটনাস্থলে যে বিপজ্জনক উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে, অনলাইনের প্রতিক্রিয়ায় ভালোভাবে তার প্রতিফলন দেখা যাচ্ছে।

ফেসবুকে, রোমা সর্দার কিরিল রাসকভ-এর মৃত্যু দাবী করে একটি পাতা [বুলগেরীয় ভাষায়] সৃষ্টি করা হয়েছে (চোখের বদলে চোখ, দাঁতের বদলে দাঁত নামে)- আর ২৩,০০০ জনের মত ব্যক্তি এই পাতার এই “দাবিকে” পছন্দ করেছে।

এই পাতার এক সদস্য লিখেছে [বুলগেরীয় ভাষায়]:

আমরা বুলগেরীয় নাগরিক, আমরা বুলগেরীয় নাগরিক – এই ধরনের যন্ত্রণা যথেষ্ট সহ্য করেছি! আমাদের নিজ দেশে, নিজেদেরকে এক বিদেশির মত মনে হচ্ছে! তারা কি যুদ্ধ চায়? আমরা তাদেরকে যুদ্ধই প্রদান করব!

কতুনিৎসার দাঙ্গায় গ্রেফতার হওয়া বুলগেরীয় জনগোষ্ঠীর নাগরিকদের সমর্থনে আরেকটি ফেসবুক পাতা [বুলগেরীয় ভাষায়] সৃষ্টি করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত, ৪১,০০১ জন এই পাতাকে “পছন্দ” করেছে।

কাতুনিৎসা গ্রামে উপস্থিত দাঙ্গা পুলিশ। ছবি জর্জি কজহুহারভ/ডেনভিঙ্ক.বিজি-এর। অনুমতিক্রমে প্রকাশিত।

ফেসবুক ছাড়াও, বুলগেরীয় বর্ণবাদ বিরোধী আন্দোলনের পাতায় এক উত্তপ্ত বিতর্ক ছড়িয়ে পড়েছে। ঘৃণা ছড়ানো বক্তব্য থাকার অভিযোগে নাগরিকরা দশটির বেশী পাতা এবং গ্রুপের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে। বর্ণবাদ বিরোধী আন্দোলনের এক সদস্য লিখেছে [বুলগেরীয় ভাষায়]:

বর্ণবাদ এক ভযাবহ বিষয়, কারণ জাতিগত সম্পৃক্ততার সাথে অপরাধের একটা যোগসূত্র আছে। প্রবাদ রয়েছে ” আমাদের এলিজাহর কারণে আমরা সন্ত এলিজাহকে ঘৃণা করতে শুরু করি”। রাসকভ (জার কিরো) বুলগেরিয়ার অনেক অপরাধীর মধ্যে অন্যতম এক অপরাধী এবং পাচারকারী। আর সে কোন ধরনের দ্বিতীয় চিন্তা ছাড়াই জাতিত্ব নামক তুরুপের তাসটাকে ব্যবহার করে থাকে। যদি কর্তৃপক্ষ এই ধরনের অপরাধীদের আইনগত ভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম হয়, তাহলে তা জাতিগত উত্তেজনার অনেকটাই কমিয়ে আনবে, যা বিশেষ সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীর উপর নিজেদের নিয়ন্ত্রণ বজায় রাখার জন্য এই সমস্ত অপরাধীরা সৃষ্টি করে থাকে।

রোমা জনগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে সংগঠিত বিক্ষোভ প্রদর্শনের জন্য নাগরিকেরা বোটেভ (প্লভডিভ) নামক ফুটবল দলের ফেসবুক সমর্থক পাতায় জড় হয়েছে। এই সমর্থক পাতার এক সদস্য এই কথা গুলো লিখেছে [বুলগেরীয় ভাষায়]:

রোমা নামক নোংরা জঞ্জাল পরিষ্কার করতে হবে!

বুলগেরীয় ব্লগ বাই দালাই-এ লেখক এক আরেক ধরনের মন্তব্য লিখেছে [বুলগেরীয় ভাষায়]:

এটাকে এভাবে দেখা খুব সহজ যে এটা একটা বেদনাদায়ক সামাজিক অন্যায়ের বিরুদ্ধে গণজাগরণ, এখানে এই বাস্তবতার বিরুদ্ধে এটিকে দেখা হচ্ছে যে কর্তৃপক্ষ ধনী অপরাধীদের রক্ষা করছে কিন্তু তারা সাধারণ মানুষের জন্য নূন্যতম নিরাপত্তা প্রদান করতে সক্ষম হচ্ছে না।

টুইটারে, @লাজারোভ (আলেক্সি লাজারোভা) লিখেছে [বুলগেরীয় ভাষায়]:

কাতসুনিৎসায় জাতিগত সংঘর্ষ, পুতিন আবার রাষ্ট্রপতি পদের জন্য নির্বাচন করবে- সময় কখনো কখনো পিছনের দিকে যেতে থাকে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .