বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ইউক্রেনঃ লিঙ্গীয় সমতার বিষয়ে তরুণদের স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র

ইউক্রেনের নারীরা গড়ে উচ্চ শিক্ষিত, কিন্তু তারপরেও তারা একই পেশায় কাজ করা পুরুষ সহকর্মীর চেয়ে ৩০ শতাংশ কম বেতন পান। একজন নারী বেশিরভাগ সময় বেকার হয়ে থাকে, কিংবা তাকে চুক্তি ভিত্তিক কোন পেশায় নিয়োগ দেওয়া হয় না, কারণ হয়ত সে গর্ভবতী হয়ে পড়তে পারে। এমনকি যদিও তার কোন সন্তান না থাকে, তারপরে ঘরের বেশির ভাগ দায়িত্ব তাকে পালন করতে হয়, যা তার পেশায় এগিয়ে যাবার পথে এক বাধা। এছাড়া উক্ত নারীর ঘরোয়া নির্যাতনের অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হবার সম্ভাবনা ৫০ শতাংশ

যেখানে ইউক্রেনের সংবিধান সহ আইন, নারী এবং পুরুষের মাঝে আইনগত সাম্যতার বিধান করে, কিন্তু আইনী বৈষম্য দুর করা এবং তার প্রয়োগ বেশ কঠিন একটা কাজ। তবে প্রথাগত মনোভাব এবং মূল্যবোধ ধীরে ধীরে পরিবর্তিত হচ্ছে, এবং সাধারণ নাগরিক ও একই সাথে নারী অধিকার প্রবক্তারা এই প্রক্রিয়ায় গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করছে। যেমন, আগস্ট, ২০১০-এ, ১,০০০ জন নাগরিক ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে ঘরোয়া নির্যাতনের বিরুদ্ধে নিন্দা জানানোর জন্য এক শোভাযাত্রায় অংশ নেয় [ইউক্রেনীয় ভাষায়] এবং শত শত স্বেচ্ছাসেবী কর্মী ঘরোয়া নির্যাতন বিষয়ক এক প্রচারণায় অংশ গ্রহণ করে।

তরুণ ইউক্রেনীয় নাগরিকদের জন্য ভিডিও প্রতিযোগিতা

১৭ জুন ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১১ পর্যন্ত, মেধাবী একদল তরুণ লিঙ্গীয় বিষয়ক এক প্রতিযোগিতা “লিঙ্গীয় সমতা”-এর জন্য নিজেদের তোলা ভিডিও জমা দেয় [ইউক্রেনীয় ভাষায়]। এতে অংশগ্রহণকারীদের দুটি বিভাগ “ লিঙ্গীয় সমতার জন্য ৫ মিনিট” অথবা “ ঘরোয়া নির্যাতন প্রতিরোধে ৫ মিনিট”-এর যে কোন একটির জন্য ৫ মিনিটের ভিডিও চিত্র তৈরি করতে বলা হয়েছিল। এই প্রতিযোগিতার স্পন্সর ছিল ইউনাইটেড নেশনস ডেভলপমেন্ট ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন প্রোগ্রাম এবং ইউক্রেনের ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন ডেলিগেশন।

এই প্রতিযোগিতায় একদল বিচারক বিজয়ীকে নির্বাচিত করবে, তবে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রগুলোকে আগে ইউটিউব ব্যবহারকারীরা ভোটে প্রদান করবে। ইতোমধ্যে অনলাইনে এই সব ভিডিও ৫০,০০০ বার দেখা হয়েছে, এবং সেরা চলচ্চিত্রটি অক্টোবর ২০১১-এ, কিয়েভে অনুষ্ঠিত লিঙ্গ বিষয়ক স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শিত হবে।

নীচে নির্বাচিত কয়েকটি চলচ্চিত্র রয়েছে, যা যে কোন ভাষাভাষীর মানুষ বুঝতে পারবে, এবং এই প্রতিযোগিতার জন্য জমা দেওয়া আরো কিছু স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র আপনারা ইউটিউবের, জেন্ডারটিউবে দেখতে পাবেন।

“ “পরিবারের ভেতর সহিংসতা- জীবন করে খণ্ডবিখণ্ড”- নির্মাতা “ইনফিনিটি””

“ “মনোযোগের কেন্দ্রকে পরিবর্তন করুন-নারীকে কেবল এক যৌন সামগ্রী হিসেবে বিবেচনা করবেন না”- নির্মাতা “ জাস্ট এ কিলো”

“আর আপনার পরিবারের কি অবস্থা?” নির্মাতা “দিডিভাইন এ্যানিমেটর”

“কারুশিল্পের কোন লিঙ্গীয় পরিচয় নেই”- নির্মাতা “ননএ্যাম_গ্রুপ”

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .