বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

পেরুঃ মোটুপের পবিত্র ক্রশ চুরি

তাজা সংবাদ (বুধবার, ৬ জুলাই, ২০১১):দামি অংশগুলো ছাড়া মোটুপের পবিত্র ক্রশটিকে পাওয়া গেছে, এটকে পাঁচটি খণ্ডে কেটে ফেলা হয়েছে এবং এর গায়ে পোড়া চিহ্ন রয়েছে।

মঙ্গলবার, ৫ জুলাই, ২০১১, পেরুরা নাগরিকরা এক প্রচণ্ড বাজে সংবাদের সাথে জেগে উঠে, জনপ্রিয় এবং অতি পরিচিত মোটুপের পবিত্র ক্রশ [স্প্যানিশ ভাষায়] চুরি হয়ে গেছে।

মোটুপের পবিত্র ক্রশ লাম্বায়াকে অঞ্চলের মোটুপে জেলায় অবস্থিত। এই এলাকাটি পেরুর উত্তরে। ১৮৬০ সালে এটির স্থাপন করা হয়। সেখানে প্রতিবছর আগস্ট মাসে এক উৎসব উদযাপন করা হয়, যার কেন্দ্রে থাকে এই ক্রস। প্রবাদ অনুসারে এক ফ্রান্সিস্কান যাজক ফ্রেই জুয়ান আগাস্টিন দে আবাড এটি তৈরি করেছিলেন।

প্রবাদে রয়েছে যে, সবার প্রিয় এই যাজক হঠাৎ কোন রকম কোন চিহ্ন না রেখে হারিয়ে যায়। এর আগে তিনি কিছু লোককে জানিয়েছিলেন যে, সেররো চাপলন, সেররো রাজাডো এবং সেররো পেনাচি-এলাকায় তিনি কিছু বিশাল ক্রশ ছেড়ে যাচ্ছেন, যা তার নিজের হাতে তৈরি। এই সব ক্রশ গুয়াইকান [স্প্যানিশ ভাষায়] গাছের কাঠ দিয়ে তৈরি; যখন এই ক্রশ পাওয়া যাবে এবং তখন ধরে নেওয়া হবে যে, তা সারা অঞ্চলকে রক্ষা করবে। অনেকে এই সব ক্রশ খুঁজে বের করার চেষ্টা করে, কিন্তু তারা ব্যর্থ হয়।

Prayer notes left at the Holy Cross of Motupe. Image by Flickr user joestrada (CC BY-NC-ND 2.0).

মোটুপের পবিত্র ক্রশের পাশের রেখে যাওয়া প্রার্থনা। ছবি ফ্লিকার ব্যবহারকারী জোয়েস্ট্রাডা-এর ( সিসি বাই-এনসি-এনডি ২.০)।

কয়েক বছর পর, ৫ আগস্ট ১৮৬৮-তে, জোসে মারসেদাস আন্টেপাররা পেরালটা নামে ২২ বছরের এক যুবক সেররো চাপলান এলাকায় পবিত্র ক্রশটি খুঁজে পায়, তা এক গুহার ভেতর লুকিয়ে রাখা ছিল। ট্রুজিল্লোর বিশপ, এর প্রথম রক্ষক (ফার্স্ট সুপারন্টেডেন্ট) হিসেবে আন্টেপাররা-এর নাম ঘোষণা করে। মৃত্যুর আগে পর্যন্ত সে এই পদে অধিষ্ঠিত ছিল। ১০ এপ্রিল,১৯২১-এ আন্টেপাররা মৃত্যু বরণ করে।

এই ডাকাতির ঘটনায় কয়েকজন ব্লগারের প্রতিক্রিয়া।

শিক্ষক কুইসপে কাসাস এর ব্লগ টু ডোসেন্টে [স্প্যানিশ ভাষায়],-এ লা রিপাবলিকার [স্প্যানিষ ভাষায়] একটি লেখা পুনরায় প্রকাশ করেছে:

La Cruz de Motupe, simbólico objeto venerado y admirado por miles de fieles y peregrinos no solo de Lambayeque sino de todo el país fue robada en la última madrugada. La misma, se encontraba ubicada en el cerro Cruz de Chalpón.

[…] unos ladrones llegaron al lugar y, tras golpear y atar al vigilante, no tuvieron el menor reparo en cometer el sacrilegio.

মোটুপের ক্রশ, একটি শ্রদ্ধেয় বস্তুর প্রতীক, যা কেবল লাম্বাইয়াকে এলাকার যাজক এবং তীর্থযাত্রীর কাছে নয়, সারা দেশের মানুষের কাছে এক পবিত্র উপাদান। গতকাল রাতে তা চুরি হয়ে গেছে। সকাল বেলায় ঘটনাটি ধরা পড়ে। এটি সেররো ক্রশ ডে চাপলনে অবস্থিত।

[…] কয়েকজন ডাকাত সেখানে প্রবেশ করে এবং তার সেখানকার নৈশ প্রহরীর উপর হামলা চালায় এবং তাকে বেঁধে ফেলে। পবিত্র জিনিষ ডাকাতি করতে তাদের এতটুকু বিবেকে বাঁধেনি।

ডেল পারা ভালে টোডোস [স্প্যানিশ ভাষায়]-এর ব্লগার জোসে জেনা ডেল ভালে, এর সাথে আরো কিছু বিস্তারিত তথ্য প্রদান করছেন:

Con el repique de campana la población de ha desplazado a la gruta de Chalpón para buscar en los alrededores la posibilidades (sic) abrigando la esperanza que los sacrílegos después de arrebatarle sus prendas presionas la hayan dejado tirada en un de los profundos barrancos que existen en el la cordillera del cerro de Chalpón.
Este hecho toma mayor interés en la feligresía católica creyente en la Cruz de Chalpón de Motupe por el hecho que el 25 del presente mes se inicia la feria patronal anual.
ঘন্টার শব্দে এলাকাবাসী কি ঘটেছে তা দেখার জন্য চাপলনের গুহায় ছুটে যায়। তার হয়ত ধারণা করেছিল যে ডাকাতেরা হয়ত পবিত্র এই ক্রশের গায়ে যে সব মূল্যবান জিনিস তা খুলে নিয়ে গেছে। তারপর এটিকে সেররো চাপলান পাহাড়ের কোন গভীর গুহায় রেখে গেছে।
মোটুপের ক্রশ অফ চাপলানের ক্যাথলিক সম্প্রদায়ের লোকেরা এই ঘটনাকে বেশ কৌতূহলের সাথে দেখছে, এর কারণ হচ্ছে এ মাসের ২৫ তারিখে তারা প্যাট্রনস সেন্ট ডে পালন করবে [এর সাথে যুক্ত] ।

এই ক্রশটি রুপা এবং সাদা সোনা (সাধারণত সোনার সাথে নিকেল মিশিয়ে হোয়াইট গোল্ড বা সাদা সোনা তৈরি করা হয়) দিয়ে ঢাকা ছিল, যা ডাকাতদের এই ডাকাতিতে প্রলুব্ধ করেছে।

টুইটারে, #ক্রুজডেমোটুপে নামক হ্যাশট্যাগ স্থানীয় পর্যায়ে এক আলোচিত বিষয় হয়ে উঠে। ব্যবহারকারী অউরেলিয়মাতা (@অউরেলিয়মাতা) বলছে:

Que maleados, se robaron la @cruzdemotupe. Que se roben el cristo de @gordovago mejor

কত জঘন্য এক কাণ্ড, @ক্রুজডেমোটুপে চুরি হয়ে গিয়েছিল। তাদের আসলে@গোরডোভাগো এর যিশুর মুর্তি চুরি করা উচিত ছিল। [সম্প্রতি যিশুখ্রিস্টের একটা মূর্তি স্থাপন করা হয়েছে পরোক্ষ ভাবে সেটিকে এবং এর সাথে পেরুর রাষ্ট্রপতি এ্যালান গার্সিয়াকে যুক্ত করে অশ্রদ্ধার সাথে এই কথাটি বলা হয়েছে।]

এন্ড জর্জ ক্যাম্পোস (@জর্জপ্লটার) টুইট করেছে:

#cruzdemotupe Cortina de humo? Al margen de las creencias, el robo de la #cruzdemotupe muestra que en el pais ya no hay respeto a nada…

#ক্রুজডেমোটুপে এক ধোঁয়াটে স্ক্রিন? বিশ্বাস একপাশে, # ক্রুজডেমোটুপের চুরি হয়ে যাওয়া প্রমাণ করে যে, এ দেশে কোন কিছুর প্রতি শ্রদ্ধা নেই…

ক্যান্ডি ফুয়েন্তাস (@ক্যান্ডিফুয়েন্তাস) এই সংবাদে বেদনার্ত :

Este año no pude ir a la #cruzdemotupe a cumplir mi promesa =( me siento muy triste

এ বছর আমি #ক্রুজডেমাপুটে যেতে পারিনি, আমি প্রতিজ্ঞা রক্ষা করতে পারিনি =( আমার খুব খারাপ লাগছে

এবং আলিয়ান মলিনা (@আলিওম্প) বলেন:

Alcalde de Motupe sobre robo de la #cruzdemotupe: “No hay señales de forcejeo”

#ক্রশডেমোটুপের: বিষয়ে মোটুপে শহরের মেয়র বলছেন “ সেখানে যে ডাকতদের সাথে রক্ষীর লড়াই হয়েছে এমন কোন চিহ্ন নেই।”

এই ডাকাতির ঘটনায় এল পেরু রারারা [স্প্যানিশ ভাষায়] আমাদের বলছে:

El Cmdte. PNP Alesandro León Roque, a cargo de las investigaciones pidió paciencia. “Pido a los periodistas que tengan un poquito de cuidado al respecto, las investigaciones son reservadas. Lo que quisiera es que mantengan la calma, déjennos un poquito trabajar”, exhortó.

পিএনপির [পেরুর জাতীয় পুলিশ] কমান্ডার আলেসান্ড্রো লেওন রকে, যিনি এই ডাকাতির ঘটনা তদন্তের প্রধান, তিনি সবাইকে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন। “এই বিষয়ে আমি সাংবাদিকদের সামান্য ধৈর্য্যের পরিচয় দেবার আহ্বান জানাচ্ছি”। তিনি বলেন, “তদন্ত চলছে, আমি সবাইকে শান্ত থাকার আহ্বান জানাচ্ছি।

দুর্ভাগ্যজনক ভাবে, পেরুতে সাম্প্রতিক সময় কেবল এক একটাই ধর্মীয় উপাদনা চুরি হয়নি, যেমন গত বছরের অক্টোবর মাসে ব্লগপোদের পলেটিকো-এ, [স্প্যানিশ ভাষায়], এ্যান্টোনিও আগাপিতো মানকো পোস্ট করেছে:

Hermosos trabajos de orfebrería distinguia al altar del SEÑOR DE LOS MILAGROS, el valor material supera los $ 30,000.oo dólares, fueron aportes de vecinos y personas lleno de fe, también fue obtenido mediante muchas actividades social-religiosa.

লোভী স্বর্ণকাররা লর্ড অফ মিরাকলের (যিশুখ্রিস্ট) বেদি নিয়ে যায়, যার দাম প্রায় ৩০,০০০ মার্কিন ডলার। এটি সেখানকার জনতা এবং বিশ্বাসী মানুষদের অর্থের অবদানে তৈরি হয়েছিল, অনেক সামাজিক এবং ধর্মীয় কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে যা কেনা হয়েছিল।

2 টি মন্তব্য

আলোচনায় যোগ দিন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .