বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

আইভরি কোস্ট: বাগবোকে গ্রেফতারের পর চলমান নৃশংসতা

এই পোস্টটি আমাদের আইভরি কোস্ট এর গোলযোগ ২০১১ সংক্রান্ত বিশেষ কাভারেজের অংশ

২০১১ সালের ১১ এপ্রিলে বন্দী হবার পর থেকেই আইভরি কোস্টের সাবেক প্রেসিডেন্ট লরা বাগবো, তার স্ত্রী এবং তার অনুসারীদের নানান ছবি ইন্টারনেট আর আন্তর্জাতিক পত্রপত্রিকার মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

এর মধ্যে একটি বিশেষ ছবি তীব্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করে। সাংবাদিক ইসরায়েল ইয়োরোবা, যিনি টিভি৫ এর সংবাদদাতা হিসেবে আইভরিয়ান শহর আবিজানে কর্মরত আছেন, তিনি লরা বাগবো সস্ত্রীক বন্দী হবার দিন ফেইসবুকে সিমোনি বাগবোর এই ছবিটি প্রকাশ করেন:

আবিজানের হোটেল ডু গলফে রিপাবলিক ফোর্স বেষ্টিত সিমোনি বাগবো। সাংবাদিক ইসরায়েল ইয়োরোবা কর্তৃক প্রকাশিত।

আবিজানের হোটেল ডু গলফে রিপাবলিক ফোর্স বেষ্টিত সিমোনি বাগবো। সাংবাদিক ইসরায়েল ইয়োরোবা কর্তৃক প্রকাশিত।

এখন পর্যন্ত ৩৬০ এরও অধিক ফেইসবুক ব্যবহারকারী এই ছবিতে মন্তব্য করেছেন, যেখানে সাবেক ফার্স্ট লেডিকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখানো হয়েছে।

একজন সাবেক প্রেসিডেন্টের প্রতি আচরণ:

সোব এড্রি ব্রাইস আগবো এ আচরণকে সাবেক ইরাকি নেতা সাদ্দাম হোসেনের সাথে তুলনা করেছেন:

[…] Regardes comment on traite de façon indigne un president et la premiere dame (ou ex selon certains), ça n'augure pas de meilleur lendemain. La situation actuelle est comparable a celle qui a prevalu en Irak avec Saddam Hussein, sans comparer Laurent Gbagbo à Saddam. Nous connaissons la suite.

[…] দেখুন, আমরা একজন প্রেসিডেন্ট ও তার স্ত্রীর (কারও কারও মতে সাবেক) প্রতি কিরকম অমর্যাদাকর আচরণ করছি। এটা ভবিষ্যতের জন্য ভাল ইঙ্গিত বহন করে না। লরা বাগবোর সাথে সাদ্দাম হোসেনের তুলনা না করেই বর্তমান পরিস্থিতিকে ইরাকে হওয়া সাদ্দামের প্রতি আচরণের সাথে তুলনা করা যায় । আমরা জানি কি ঘটেছিল।

আর্সেন প্রো-দালি বাগবো বন্দী হবার পর আলাসান উয়াতারার প্রথম ভাষণের প্রতি নির্দেশ করে বলেন:

Prions qu'on ne tombe pas encore à plus bas que la poussière. Bonjour la réconciliation!

প্রার্থনা করি যেন আমরা ধূলোয় মিলিয়ে না যাই। হ্যালো রিকনসিলিয়েশন!

যোন গুইরিয়েপে মিশেল লিখেছেন:

MAMAN SIMONE PARDONNE à TOUS CES MéCRéANTS. LE PEUPLE EST MEUTRIE DANS SA CHAIR PAR LES AGGISEMENTS DE CES DERNIERS QUI NE CONNAISSENT PAS LA VALEUR D UNE FEMME ET SURTOUT D'UNE PREMIERE DAME

মাতা সিমোনি সকল দুষ্কৃতকারীকে ক্ষমা করুন। জনগণ [আইভরিয়ান] কিছু মানুষের কার্যকলাপে আহত হয়েছে, যারা একজন নারীকে—বিশেষ করে একজন ফার্স্ট লেডিকে সম্মান করতে জানে না।

অন্যান্য ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা মনে করেন ক্ষমতায় থাকাকালে বাগবো পরিবার যে নিষ্ঠুরতা চালিয়েছে তাতে এ ব্যবহার তাদের প্রাপ্য ছিল।

ব্লগার গাই কুয়াসি J'ai pleuré শিরোনামের আর্টিকেলের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে রোমা বলেন,:

[…] Il mérite ce qu'il mérite…arrêtez de nous distraire en jouant les sentimentalistes. Ces milliers de morts inutiles ne reviendront plus jamais. Par contre, lui il a la chance de vivre. Je le préfère humilié mais en vie au lieu de la tuerie atroce de Guéi Robert lorsque Koudou a pris le pouvoir en 2000.

[…] সে [লরা বাগবো] যা প্রাপ্য তা সে পাবে…আবেগের চাল চেলে আমাদের বিভ্রান্ত করো না। ওই হাজার হাজার মৃত ব্যক্তিরা কখনই ফিরে আসবে না। অপরদিকে, তার বেছে থাকার সুযোগ আছে। গুয়ে রবার্ট কে ২০০০ সালে কুডু [বাগবো] ক্ষমতা দখলের সময় যেভাবে নৃশংসভাবে হত্যা করেছিল, আমি চাই না বাগবোকে সেভাবে হোক, বরং তাকে অসম্মানের সাথে বাঁচিয়ে রাখা হোক।

আবিদজানে মানবাধিকার লংঘন:

লরা বাগবোর গ্রেফতার আইভরিয়ান সংঘাতের অবসান ঘটাতে পারেনি। সংবাদের ওয়েবসাইট Abidjan.net এসোসিয়েট প্রেস এর একটি আর্টিকেলে বাগবোর সমর্থকদের প্রতি আলাসান উয়াতারার সমর্থকদের নৃশংসতার রিপোর্ট প্রকাশ করে।

বাগবোর ১০৪৯৬ জন সমর্থকের ফেইসবুক গ্রুপ লা মেজোরিটে প্রেসিডেনসিয়েল দেশটির বাণিজ্যিক রাজধানী এবং সবচেয়ে বড় শহর আবিজানের কিছু সাম্প্রতিক ছবির সিরিজ প্রকাশ করে। রিভিয়েরা এলাকায় তোলা এসব ছবিতে দেখা যায় ছাত্র ও অল্পবয়স্কদের বাগবোর ইয়ং প্যাট্রিয়ট আন্দোলনের অংশ হিসেবে সন্দেহ করা হচ্ছে।

আবিজানের রিভিয়েরায় ভীতিকর আবহ। ছবিটি ফেইসবুক গ্রুপ লা মেজোরিটে প্রেসিডেনসিয়েল এর।

আবিজানের রিভিয়েরায় ভীতিকর আবহ। ছবিটি ফেইসবুক গ্রুপ লা মেজোরিটে প্রেসিডেনসিয়েল এর।

ছাত্র ও অল্পবয়স্কদের বাগবোর ইয়ং প্যট্রিয়ট আন্দোলনের অংশ হিসেবে সন্দেহ করা হচ্ছে। ছবিটি ফেইসবুক গ্রুপ লা মেজোরিটে প্রেসিডেনসিয়েল এর।

ছাত্র ও অল্পবয়স্কদের বাগবোর ইয়ং প্যট্রিয়ট আন্দোলনের অংশ হিসেবে সন্দেহ করা হচ্ছে। ছবিটি ফেইসবুক গ্রুপ লা মেজোরিটে প্রেসিডেনসিয়েল এর।

নিচের ছবিটি যিনি প্রকাশ করেছেন তার নাম কোনে জাকারিয়া, যিনি গুউলোমে সোরো [আলাসান উয়াতারার প্রধানমন্ত্রী] এর বিদ্রোহের সময় এক রেজিমেন্টের সেনাপতি ছিলেন। ছবির এই সহিংসতার সময় তিনি একজন মূখ্য চরিত্র হিসেবে ছিলেন:

সহিংসতার এক দৃশ্যে কোনে জাকারিয়া। ছবিটি ফেইসবুক গ্রুপ লা মেজোরিটে প্রেসিডেনসিয়েল এর।

সহিংসতার এক দৃশ্যে কোনে জাকারিয়া। ছবিটি ফেইসবুক গ্রুপ লা মেজোরিটে প্রেসিডেনসিয়েল এর।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ১২ এপ্রিল আলাসান উয়াতারার সমর্থকদের এই প্রতিহিংসামূলক কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে নিন্দা জ্ঞাপণ করে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .