বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ইন্দোনেশিয়ার ফুটবল বির্তকে ঘেরা

ইন্দোনেশিয়ার ফুটবল বির্তকে জড়িয়েই আছে। প্রথমে বিক্ষোভ হলো নুরুদ্দিন হালিদকে পেরসাতুয়ান সেপাকবোলা ইন্দোনেশিয়া বা পিএসএসআই ( ইন্দোনেশিয়ার ফুটবল এসোসিয়েশনের) প্রধান করার জন্য। তারপরে একটা ঝগড়ার কারনে পিএসএসআই এর পেকানবারুর কংগ্রেস বাতিল হয়ে যায়। কিন্তু সব থেকে চিন্তার বিষয় ছিল গত জানুয়ারিতে নতুন একটা ফুটবল লিগের আর্বিভাব: লিগা প্রিমিয়ার ইন্দোনেশিয়া বা এলপিআই (ইন্দোনেশিয়া প্রিমিয়ার লিগ)।

এলপিআই এর লক্ষ্য হচ্ছে ইন্দোনেশিয়ার ফুটবলকে বেশি পেশাজীবি, কার্যকর আর স্বাধীন করে তোলা। এরা সরকার থেকে অর্থ চাইবে না।

পার্সিবা বান্তুলে ইন্দোনেশিয়া ফুটবল দলের সমর্থকরা।

পার্সিবা বান্তুলে ইন্দোনেশিয়া ফুটবল দলের সমর্থকরা। ছবি পার্সবুমি বান্তুলের সৌজন্যে (সিসি বাই-এনসি-এসএ ২.০)

পিএসএসআই ইন্দোনেশিয়া সুপার লিগ বা আইএসএলকে স্বীকৃতি দেয় কিন্তু এলপিআই কে না। আসলে পিএসএসআই তিনটি বড় ক্লাবের সদস্য পদ বাতিল করে দিয়েছে যারা এলপিআই এর আয়োজনে খেলাতে অংশগ্রহন করেছে। তারা জাতীয় দলের সদস্যদের উপরে নিষেধাজ্ঞাও দিয়েছে যারা এলপিআই প্রতিযোগিতা তে খেলেছে।

সৌভাগ্যক্রমে, সরকার যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রী অ্যান্ডি মালারাঙ্গেং এর সাথে মিলে সম্মতি জানিয়েছেন এলপিআই প্রতিযোগিতার এই ঘোষণা দিয়ে যে এটা দেশের নিয়মকে ভঙ্গ করে না। এর ফলে এলপিআই প্রতিযোগিতা চালিয়ে যেতে পেরেছে, আর শেষ পর্যন্ত পুলিশ এলপিআই খেলার জন্য অনুমতি দিয়েছে।

ফুটবল দল আর নেতাদের মধ্যে ক্ষমতার এই টানা পোড়েন দেখে ইন্দোনেশিয়ার নেটিজেনদের প্রতিক্রিয়া কি?

কাটাতানবুজাঙ্গান ব্লগ মনে করিয়ে দিয়েছেন পিএসএসআইকে যে ইন্দোনেশিয়া এখনও আন্তর্জাতিক কোন খেলায় পদক পায়নি:

Tahun 1991 sampai dengan sekarang Indonesia paceklik gelar. Tak ada medali emas yang berhasil diraih, bahkan pada ajang Piala Tiger yang sekarang berganti nama menjadi AFF, kita belum pernah jadi juara.

“১৯৯১ থেকে এখন পর্যন্ত ইন্দোনেশিয়া কোন খেলা জেতে নি। কোন সোনার পদক পায়নি, এমন কি টাইগার কাপে যাকে পূন: নাম করন করা হয়েছে আসিয়ান ফুটবল ফেডারেশন হিসাবে, সেখানেও আমরা কখনো চ্যাম্পিয়ন হইনি।“

ব্লগার ‘পুস্তকা লাঙ্গিত বিরু’ এটাও বলেছেন যে পিএসএসআই এখন বিভিন্ন ধরনের গন্ডগোল দ্বারা পরিবৃত।

Menegpora Andi Malarangeng membekukan kepengurusan PSSI dan otomatis PSSI tidak boleh diberi anggaran oleh negara. Kubu Nurdin Halid balik menyerang Andi Malarangeng, dan meminta agar menteri itu dipecat dari jabatannya.

যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রী আন্ডি মালারাঙ্গেং অনুগ্রহ করে পিএসএসআই এর নেতৃত্ব বন্ধ করে দেন, আর তাহলে অবশ্যম্ভাবীভাবে রাষ্ট্র পিএসএসআইকে বাজেট দিতে পারবে না। নুরদ্দিন হালিদ তার পরে আক্রমনটি এইভাবে ফিরত দিয়েছেন যে মন্ত্রীকে তার পদ থেকে সরিয়ে দেয়ার অনুরোধ করেছেন।

গ্রাসনিউজ ফুটবল জানিয়েছে এই ব্যাপারটা আর্ন্তজাতিক হয়ে গেছে:

Dalam sebuah kolom yang dituliskan di ESPNSPORT.com, Jesse Fink menilai FIFA sebaiknya turun tangan dalam memperbaiki sepakbola Indonesia. Ini menurutnya adalah langkah untuk menyelamatkan sepakbola Indonesia.

ইএসপিএনস্পোর্ট.কমে লেখা একটি কলামে জে সি ফিঙ্ক মনে করেন যে ফিফার উচিত সাহায্য করা ইন্দোনেশিয়ার ফুটবলকে উন্নত করার জন্য। তার মতে ইন্দোনেশিয়ার ফুটবলকে বাঁচাতে এই পদক্ষেপ দরকার।

আর ইয়াহু আনসার্সে কেউ প্রশ্ন করেছেন:

“Mengapa prestasi sepakbola Indonesia sangat jelek, Padahal olahraga ini populer di Indonesia?”

কেন ইন্দোনেশিয়ার ফুটবল দলের খারাপ পরিবেশন, যখন এই খেলা ইন্দোনেশিয়াতে বেশ জনপ্রিয়?

টুইটার ব্যবহারকারী স্লামেত নুরুল আনোয়ার পরামর্শ দিয়েছেন যে ইন্দোনেশিয়ার ফুটবলকে উন্নত করার জন্য এলপিআই আর পিএসএসআই এর উচিত একসাথে কাজ করা:

LPI dan PSSI harusnya berdampingan bukan berseberangan, kasihan rakyat rindu dengan tontonan bola nasional yang bagus dan berkualitas.”

এলপিআই আর পিএসএসআই এর একসাথে থাকা উচিত একে অপরের বিপক্ষে না। এটা নাগরিকদের জন্য দু:খজনক যদি তারা ভালো খেলোয়াড়দের দ্বারা ভালো একটা খেলা দেখা থেকে বঞ্চিত হন।

ব্লগার মাল্টিব্র্যান্ড দেশের ফুটবলের নেতৃত্বকে দোষ দিয়েছে:

পিএসএসআই উপরোক্ত দুর্বল নেতৃত্বের কারনে এটা কষ্টকর চিন্তা করা যে আমাদের ফুটবল দল ভালোভাবে খেলবে যা তারা আগে খেলছিল তার থেকে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .