বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

মিশর: ভিডিওতে ২৫ জানুয়ারির বিক্ষোভ

এই পোস্টটি মিশরের প্রতিবাদ বিক্ষোভ-২০১১ এর উপর করা আমাদের বিশেষ প্রতিবেদন-এর অংশ।

মঙ্গলবার মিশরের রাজধানী কায়রোর রাস্তায় রাস্তায় এবং অন্য অনেক শহরে এক বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। ঘটনাক্রমে ওই একই দিন, ২৫ জানুয়ারি তারিখটা ছিল “পুলিশ দিবস” এবং জাতীয় ছুটির দিন। এই বিক্ষোভ ছিল রাষ্ট্রপতি মুহাম্মদ হোসনি মুবারকের ৩০ বছরের স্বৈরশাসনের বিরুদ্ধে। এই বিক্ষোভের প্রচেষ্টা ছিল তিউনিশিয়ার বিক্ষোভের সমকক্ষ হওয়া, যে বিক্ষোভের মাধ্যম তিউনিশীয় নাগরিকরা কয়েক সপ্তাহ আগে তাদের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি জিনে এল আবেদিন বেন আলিকে ক্ষমতা থেকে অপসারণ করতে সক্ষম হয়। মিশরের প্রতিবাদকারীরা এই বিক্ষোভের কর্মকাণ্ডের সমন্বয় সাধন করার জন্য সামাজিক প্রচার মাধ্যম, যেমন ফেসবুক এবং টুইটারের ব্যবহার করছে। আজকে সংবাদপত্র সমূহ জানাচ্ছে যে এল-তাহরির নামে পরিচিত কায়রোর মূল কেন্দ্র প্রায় ১০ হাজার মিশরীয় নাগরিক জড়ো হবার কথা, এবং তারা বলছে যে, বুধবার পর্যন্ত বিক্ষোভ চলবে।

অনেকে পর্যবেক্ষক উল্লেখ করেছে যে মূল ধারার সংবাদ মাধ্যমগুলো এই বিক্ষোভের তেমন একটা সংবাদ প্রচার করেনি। তবে আলজাজিরার সংবাদ ছিল উল্লেখযোগ্য ভাবে দুর্বল। নাগরিক সাংবাদিকরা বিক্ষোভের কেন্দ্রস্থলের অবস্থান করে, এর ভিডিও দৃশ্য ধারণ করে বিভিন্ন সাইটে উঠিয়ে দিয়ে, নেট নাগরিকদের এই ঘটনার উপর নানা সংবাদ প্রদান করেছে।

নির্দিষ্ট সমাবেশ স্থানে শত শত জনতা জড়ো হতে থাকে এবং ধীরে ধীরে তারা বড় বড় দলে পরিণত হয়, যারা বিক্ষোভ সমাবেশে যাত্রার জন্য সাফল্যের সাথে পুলিশের তৈরি করা বাঁধা ভেঙ্গে ফেলতে সক্ষম হয়। যেমনটা আপনারা নীচের এই ভিডিওতে দেখতে পাবেন। লুকাসজাকুবিকা এই ভিডিওটি পোস্ট করেছে:

বিক্ষোভ শান্তিপূর্ণভাবে শুরু হয়। যেমনটা নীচের এই ভিডিও প্রদর্শন করছে (ভিডিওর শব্দ তেমন পরিষ্কার নয়)। এই ভিডিওটি পোস্ট করেছে রামজাইয়াম। তিনি মন্তব্য করেছেন:

প্রতিবাদকারীরা খবুই শান্ত হয়ে রয়েছে এবং মিশরীয় পুলিশের নিরাপত্তায় রয়েছে।

http://www.youtube.com/watch?v=WCvFVJ46P_o

অন্য ভিডিও, যা পোস্ট করেছে নো২এগেইন, এটি আমাদের প্রদর্শন করছে যে, আরো কয়েকজন প্রতিবাদকারী অন্য সব স্লোগানের সাথে কিছু শান্তিপূর্ণ স্লোগান দিয়েছে: হোসনি মোবারক নিপাত যাক!”, রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা? রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা কোথায়? আমাদের কোন রাষ্ট্র নেই, কোন নিরাপত্তা নেই!”:

সংবাদ জানা গেছে যে, কায়রোতে দাঙ্গা পুলিশের সমাবেশ ঘটানো হয়েছে, দৃশ্যত দেশটির রাজধানীতে এক বিশাল গণ বিক্ষোভের আয়োজন করা হয়, যেমনটা মাদারঅফদিট্রাইবের পোস্ট করা ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে:

শীঘ্রই দাঙ্গা পুলিশের সাথে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষের সংবাদ ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে। এই ভিডিওটি পোস্ট করেছে মিডোগনপাপা:

নীচের এই ভিডিও পোস্ট করেছে এমএফএমএগি। নীচের এই ভিডিও পোস্ট করেছে এমএফএমএগি। এতে দেখা যাচ্ছে জল কামান পরিবাহী এক ট্যাঙ্কের সামনে এক তরুণ দাঁড়িয়ে, যেমন চীনের তিয়েন আন মেন স্কোয়ারের সামনে এক তরুণ এক ট্যাঙ্কের সামনে দাঁড়িয়ে ছিল। প্রতিবাদকারীদের ধাওয়া করার ক্ষেত্রে সে উক্ত ট্যাঙ্কের সামনে এক প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করে।

এই ভিডিওটি পোস্ট করেছে মি:পিপলনিউজ। যা আমাদের মনে করিয়ে দেয় তিউনিশিয়ার প্রতিবাদকারীদের কথা, যারা তাদের রাষ্ট্রপতির ছবি নামিয়ে তা ছিঁড়ে ফেলেছিল:

এই একই ঘটনা কায়রোর অনেক এলাকায় ঘটেছে। যেমনটা দেখা যাচ্ছে বি৭এআরওয়াই-এর পোস্ট করা ভিডিওতে:

সেই দিনেই এই ঘটনার কিছুক্ষণ পরে বিক্ষোভকারীরা কায়রোর প্রধান কেন্দ্র এল তাহরির স্কোয়ারে এসে জমা হয়। সে সময় তাদের চারপাশে দাঙ্গা পুলিশ এক প্রতিবন্ধকতা তৈরি করে, তাদের ঘিরে রাখে। তখন বিক্ষোভকারীরা আওয়াজ তোলে, “জনগণ এই স্বৈরশাসনের অবসান চায়”, যেমনটা নাদিয়াহারুন এর পোস্ট করা এই ভিডিওতে এ সব দৃশ্য দেখা যাচ্ছে:

সেদিন রাতে, যে সমস্ত বিক্ষোভকারী এল তাহরির স্কোয়ার ত্যাগ করতে অস্বীকার করে, তাদের সাথে দাঙ্গা পুলিশের এক প্রচণ্ড সংঘর্ষের সংবাদ পাওয়া যায়।

এই পোস্টটি মিশরের প্রতিবাদ বিক্ষোভ-২০১১ এর উপর করা আমাদের বিশেষ প্রতিবেদন-এর অংশ।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .