বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

থাইল্যান্ড: রেড শার্ট নামক আন্দোলনকারীরা আবার রাস্তায় নেমেছে

রেড শার্টদের প্রতিবাদ মিছিল। ছবি দিথাইরিপোর্টের টুইটপিক থেকে নেওয়া

থাইল্যান্ডের সরকার বিরোধী রেড শার্ট (সরকার বিরোধীরা লাল জামা পরে রাস্তায় মিছিল করে, তাই এদের রেড শার্ট নামে ডাকা হয়) নামক আন্দোলনকারীরা সরকারের মধ্যে অধিকতর গণতান্ত্রিক সংস্কারের দাবীতে ব্যাংকক শহরের কেন্দ্রে হাজার হাজার লোক জমা করে। পুলিশের হিসাব অনুযায়ী ৩০,০০০ এবং এই প্রতিবাদ শোভাযাত্রার আয়োজকদের মতে ৬০,০০০ লোক রাস্তায় সমবেত হয়।

কয়েক মাস আগে সরকার সহিংস উপায়ে রেড শার্টদের প্রতিবাদ দমন করার পরে এটাই ছিল রেড শার্টদের সবচাইতে বড় মিছিল। একই সাথে রাজধানী থেকে জরুরি অবস্থা প্রত্যাহারের পর এটাই হচ্ছে প্রথম প্রধান প্রতিবাদ সামাবেশ।

রেড শার্ট দলের মূল সদস্যরা নির্বাসিত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রার সমর্থক। তবে, পরবর্তীতে দলটি থাই সরকার এবং সমাজের প্রকৃতি পরিবর্তনের জন্য বৃহত্তর এক আন্দোলনের আহ্বান জানায়।

ব্যাংকক পণ্ডিত নিশ্চিত করেছেন যে, গত বছরের সড়ক অবরোধের পর, রবিবারের অনুষ্ঠিত রেড শার্ট নামক দলের এই সমাবেশটি ছিল সবচাইতে বড় সমাবেশ।

বলা যায় মার্চ-মে মাসের প্রতিবাদ বিক্ষোভের দীর্ঘ বিরতির পর এটাই সবচেয়ে বড় প্রতিবাদ মিছিল। গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসে ব্যাংকক, প্রায় ১০,০০০ রেড শার্ট সমর্থক প্রথম প্রতিবাদের উপর সরকারী হামলা পরবর্তী বিক্ষোভে অংশ নেয়। একই বছরের ১০ অক্টোবরে, প্রায় ৮,০০০ প্রতিবাদকারী ব্যাংককে জমা হয়, এবং ১৭ অক্টোবর তারিখে প্রায় ১২,০০০ জন প্রতিবাদকারী আয়ুত্থায়ায় এসে হাজির হয় এবং আবার ১৯ নভেম্বর তারিখে, প্রায় ১০,০০০-এর বেশি প্রতিবাদকারী ১৯ মে তারিখে অনুষ্ঠিত সরকারি হামলার ছয় মাস পূর্তি উপলক্ষ্যে সমাবেত হয়।

রিচার্ড বারো এই মিছিলের কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় পর্যবেক্ষণ করেছেন। তিনি সেগুলো আমাদের জানাচ্ছেন।

জাতুপরন প্রোমপান নামক এলাকার ডেমোক্রেসি মুনমেন্টে (গণতন্ত্র ভাস্কর্য) নামক স্থান থেকে এই মিছিল বের হয়। আদালত আদেশ দিয়েছিল রেড শার্ট দলের নেতা এই শোভাযাত্রায় অংশ নিতে এবং বক্তৃতা দিতে পারবেন না। তবে সে আজ এই আদেশ অমান্য করেছে। সে কেবল মিছিলে অংশ নেয়নি, একই সাথে সে এখানে ভাষণ দিয়েছে। এটা সত্যিকার অর্থে এই মিছিলকে অন্য সব প্রতিবাদ বিক্ষোভ থেকে আলাদা করে ফেলেছে, যা আমরা সামরিক বাহিনীর রক্তক্ষয়ী অভিযানের পর দেখতে পেলাম। এই সব অভিযানে ৯১ জন ব্যক্তি মারা যায়। এই প্রথম এই রকম কোন মিছিলে ভাষণ দেওয়া।

বলা যায় এই মিছিল ব্যাংককের অনেক রাস্তাকে একেবারে ছবির মত স্থির করে ফেলেছিল। তা সত্ত্বেও আমি দেখেছি যে, অনেক দোকানদার রেড শার্টের মিছিল যখন তাদের দোকানের সমানে দিয়ে যাচ্ছিল, তখন তারা দোকান ছেড়ে রাস্তায় বেড়িয়ে আসে এবং হাততালি দেয়। হাজার হাজার লোক আজ নিজ উদ্যেগে এই মিছিলে সমাবেত হয়েছে, যাদের বেশীর ভাগ ব্যাংককের আশেপাশের এলাকা বা প্রদেশ থেকে এসেছে।

এই সব নাগরিকদের দাবী খুব সাধারণ। রেড শার্ট নেতাদের জামিনে জেল থেকে মুক্ত করা। তারা জোরালো কণ্ঠে জানাচ্ছে যে, ইয়োলো শার্টের (সরকারের সমর্থকরা ইয়োলো শার্ট নামে পরিচিত) নেতারা সরকারি ভবন দখল করে এবং বিমান বন্দর বন্ধ করে দেয়। তা সত্ত্বেও তারা মুক্ত বিহঙ্গ হয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে, যা মোটে ন্যায় সঙ্গত নয়।

ব্যাংকক থেকে টুইটারে পাওয়া কয়েকটি প্রতিক্রিয়া:

ফ্রাইডেলাভসং: রেড শার্টরা আবার মাঠে নেমে পড়েছে…আর তার ফলে রাস্তায় প্রচণ্ড ট্রাফিক জ্যাম দেখা যাচ্ছে, আর এর প্রতিক্রিয়ায় দেশ শীঘ্রই অর্থনৈতিক এবং বাণিজ্যিক সমস্যা দেখা দেবে। আমার মত এক অরাজনৈতিক ব্যক্তির মনেও তাদের এই কর্মকাণ্ড এক ধাঁধার সৃষ্টি করে। সবচেয়ে বড় কথা, আমি কোন “যুগে” বিশ্বাস করি না। খুব কম জনতাই সত্যিকার অর্থে গণতন্ত্রকে নিয়ে ভাবে, বা তার জন্য লড়াই করতে আগ্রহী। বাস্তবতা হচ্ছে বেঁচে থাকার জন্য আমাদের কাজ করে যেতে হবে।
লেওসিয়া: আজকে, রেড শার্টদের মিছিলের প্রচুর সমালোচনা হচ্ছে। তবে তাদের এই দৃঢ়তায় আমি বিস্মিত এবং উৎসাহিত বোধ করছি।
মিস্টারমেকস:@সাকসিথ, আমি রেড শার্টদের পরামর্শ প্রদান করব যদি তারা রাস্তায় পাগলামি দেখানোর চেয়ে ভালো কিছু করতে চায়, তাহলে যেন থাকসিনের ছায়া থেকে বের হয়ে আসে।
জায়ান্টরোবট৭: রেড শার্টদের এই প্রতিবাদ যাত্রা শেয়ার বাজারের একেবারে পেটে লাথি মেরেছে… তারা, আজ সকালে সূচক ১২ পয়েন্টে নিয়ে এসেছে…কাবাঙ্কের (কাসিকরন ব্যাঙ্ক-বা থাই কৃষকদের ব্যাঙ্ক) মূল্য সূচক ৩.৮ শতাংশ নেমে গেছে।
নিকডে১৩: এই মিছিলে অংশ নেবার জন্য তারা ৩০,০০০ জনতাকে সমাবেত করতে পেরেছে। সরকারি ভবনের সামনে ১০টি তাবু ফেলা হয়েছে। কোন দলটি বেশি বিশ্বাসযোগ্য?
চোচিজ: আরটি@পিসইন থাইল্যান্ড: রেড শার্ট আন্দোলনকারীদের জন্য পরামর্শ। দয়া করে রাত ১০ টার পর পাগলামি শুরু করুন, যাতে আমরা শান্তিতে বাজার করতে পারি।:) // পছন্দ হয়েছে++

রেড শার্ট নামক আন্দোলনকারীদের মিছিলের ছবি মাটিচোন অনলাইন এবং থাই ফ্রি নিউজে পাওয়া যাবে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .