বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ওমান: একজন ব্লগিং পথিকৃতের কথা

আশেপাশের অন্যন্য দেশের মতই ওমানে ইন্টারনেট ফোরামের চাইতে ব্লগিং কম জনপ্রিয় হলেও সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ওমানে ব্লগিং বৃদ্ধি পাচ্ছে। গ্লোবাল ভয়েসেস এই বিষয়ে ব্লগার মুয়াইয়াহ আলরাহির সংগে কথা বলেছে। মুয়াইয়াহ আলরাহি ওমানের একজন তরুন ব্লগার যিনি ওমানি জনগনকে ব্লগিং করতে এবং দেশের মধ্যে গণবিতর্ক তৈরিতে উৎসাহিত করেন। তাঁর মূল যুক্তি হলো “যে বিষয় নিয়ে আমরা আলোচনা করিনা সে বিষয়গুলোর আমরা সমাধান করি না”।

Muawiyah Alrawahi

মুয়াইয়াহ আলরাহি। ছবি জিলিয়ান সি ইয়র্ক

আপনি কিভাবে ব্লগিং শুরু করলেন?

لعله ستضحك الإجابة، أو سيضحك منها كثيرون، في الحقيقة بدأت التدوين بسبب نصيحة من صديق، هو القاص وليد النبهاني. كنت أكتب الشعر الفصيح، والقصة القصيرة وتوقفت لفترة عن الكتابة الأدبية بعدما تغيرت الكثير من الرؤى التي كنت أؤمن بها في السابق، في فترة الدراسة الجامعية. بدأت أكتب نصوص ساخرة سريعة، وكان الهدف في البداية هو الكتابة عن المسكوت عنه، لم تكن تجربة البداية جادَّة، كنت أسميها [مهذونة] وهي كلمة تجمع بين التدوين والهذيان كما يقول الصوت باللغة العربية، وبعد سنة كاملة تعرضت لمجموعة من الضغوط الاجتماعية التي كادت أن تكون سببا لتوقفي، ولكن غيرت الموقع، وأرشفت المدونة السابقة وأنشأت مدونة جديدة باسمي وبدأت أكتبُ فيها ببعض الجدية، بعضها، وليس الكثير منها وحتى هذه اللحظة لا زلت مستمتعا بالكتابة، تجربة التدوين غيرت حياتي فعلاً، ولكنها كانت جحيما لا يطاق، جحيم اجتماعي من الصور النمطية التي تمارس دورَها الصعب. لا أحب أن أكون متململا أو شاكياً، ولكن التجربة لها جوانبه

আমার উত্তর শুনে আপনি হয়তো হাসবেন। সত্যি কথা বলতে কি আমার বন্ধু লেখক ওয়ালিদ আল নাব্বানীর পরামর্শে আমি ব্লগিং শুরু করি। আগে আমি কবিতা আর ছোটগল্প লিখতাম। বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াকালীন আমি যে ধ্যান-ধারণা পোষণ করতাম তা পরিবর্তিত হওয়ায় আমি আমার লেখালিখি বন্ধ করি। তখন থেকে আমি দ্রুত বক্রোক্তিমূলক লেখা শুরু করি (আমার ব্লগের জন্য)। প্রথমে আমার লক্ষ্য ছিল এমন সব বিষয়গুলোকে নিয়ে লেখা যেগুলো নিয়ে খুব একটা আলোচনা হয়না। প্রথম দিকে বিষয়টা তেমন সিরিয়াস ছিল না। এটাকে আমি বলতাম “মুহাদ্ধনাহ” – যা ব্লগিংয়ের আরবী শব্দ (তাদুঈন) এবং দৃষ্টিবিভ্রম বা হ্যালুসিনেশন এর আরবী শব্দ (হাদায়ান) এর সমন্বয়ে তৈরি। একবছর পর আমি প্রচুর সামাজিক চাপের সম্মুখীন হলাম এবং এর ফলে আমাকে ব্লগটি বন্ধ করে দিতে হল। পরবর্তিতে আমি আমার নামে একটি নতুন ব্লগ চালু করি এবং তাতে পুরোনো ব্লগ তুলে আনি এবং গুরত্বপূর্ণ-অগুরুত্বপূর্ণ নির্বিশেষে সব ধরণের লেখাই শুরু করি। এখন পর্যন্ত আমি আমার লেখালেখিকে উপভোগ করছি। ব্লগিংয়ের অভিজ্ঞতা সত্যিকার অর্থেই আমার জীবনকে পরিবর্তন করে দিয়েছে কিন্তু একই সঙ্গে প্রতিনিয়ত আমাকে সমাজের অনড় কিছু অসহনীয় যন্ত্রণার মুখোমুখি করে দিচ্ছে। আমি আসলে এ বিষয়টি নিয়ে একঘেয়েমিতে ভুগি না বা কোন অভিযোগ ও করতে চাইনা কিন্তু এ অভিজ্ঞতার [ব্লগিংয়ের] একটা নেতিবাচক দিক ও রয়েছে।

ওমানে কি ব্লগিং জনপ্রিয়?

لا يمكنني أن أقول أن التدوين له تلك الشهرة في عُمان مثل بعض الدول، ولكن للأسف الشديد بسبب واقع الإعلام المرير والسيء للغاية في بلادنا أصبحت للمواقع الإلكترونية شهرة كبيرة ومصداقية وجرأة في نقد الواقع الاجتماعي والسياسي العُماني، ولعل أشهر الأمثلة على ذلك هي سبلة العرب، وسبلة عُمان، ومنتدى الحارة العُمانية، التي تمثل الإعلام البديل في عُمان. التدوين هُنا له تأثير مختلف، وله وظيفة تختلف عن التدوين المتعارف عليه، لديك مثلا المدون حمد الغيثي أحد الطليعيين في التدوين في عُمان ناقش قضايا فكرية ربما لم تكن لتناقشَ من قبل في الكتابة الإلكترونية، وكذلك مدونة مثل مدونة عبد الله الحراصي التي تناولَ فيها أشياء مهمة تتناول كسر المألوف في التفكير وتجاوزه، ومدونة مثل مدونة عمار المعمري التي كان له دور في كشف وثائق تتناول مشكلات حكومية، وكذلك تناول قضايا كثيرة لها علاقة بالحقوق القانونية للإنسان العُماني. المدونات الآن حاضرة في المشهد الإعلامي العُماني، وأصبحت محل تساؤل وحديث من قبل الناس، ولعلي ــ مع ثقتي الشديدة بأن الإعلام مهم للغاية ــ لا أجد المدونات ستقوم بدورِ الإعلام المؤسسي، ولكنها ستساهم في أن يتجاوز الإعلام المؤسسي تلك الخطوط الموضوعة والتي يرسمها شخوص من وفي الإعلام لا يريدون له أن يتغير أو أن يتقدم وأن يعبر عن البلاد وأن يمثلها خير تمثيل.
একথা আমি বলিনা যে পৃথিবীর অন্যান্য দেশের মতো ওমানেও ব্লগিং জনপ্রিয় যদিও দুঃখজনকভাবে আমাদের দেশের মিডিয়াগুলোর তিক্ত এবং ভয়াবহ বাস্তবতার কারণে ফোরামসমূহ খুবই জনপ্রিয় হচ্ছে এবং গ্রহণযোগ্যতা পাচ্ছে, ওমানের রাজনৈতিক এবং সামাজিক অবস্থা সমালোচনা করার সাহস এই ফোরামগুলোর রয়েছে। সম্ভবতঃ সাবলাত আল আরব, সাবলাত ওমান এবং আল হারা ফোরাম বহু পরিচিত কিছু ফোরামের উদাহরণ হতে পারে যারা ওমানে বিকল্প মিডিয়া হিসাবে কাজ করছে। এখানে ব্লগিংয়ের একটা আলাদা প্রভাব রয়েছে যা প্রচলিত ব্লগিংয়ের কাজের চাইতে ভিন্ন। উদাহরণ স্বরুপ ওমানের অন্যতম পথিকৃত ব্লগার হামাদ আল ঘাইতির ব্লগের কথা বলা যেতে পারে যেখানে এমন সব ধারনা নিয়ে আলোচনা হয় যা নিয়ে সম্ভবতঃ এর আগে অনলাইনে আলোচনা হয়নি। এরপর আরেকটি ব্লগ যেমন আব্দুল্লাহ আল হারাসির ব্লগ যেখানে চ্যালেঞ্জ করে এছাড়া আরেকটি ব্লগ যেমন আম্মার আল মামারির ব্লগ যা ওমানী জনগণের বিভিন্ন আইনগত অধিকারের বিষয়গুলোর পাশাপাশি সরকারের সংগে বিভিন্ন চুক্তির সমস্যা নিয়ে আলোচনা করে। এখন ওমানী মিডিয়াতে ব্লগের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায় এবং ব্লগগুলো জনগনের চিন্তা-ভাবনার প্রতিফলন এবং আলোচনার জায়গাতে পরিণত হচ্ছে। আমি এ কথা গভীর আত্মবিশ্বাসের সাথে বলতে চাই যে, মিডিয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ এবং এ কথা আমি কখনোই বিশ্বাস করিনা যে প্রচলিত মিডিয়ার যায়গা ব্লগ দখল করে নেবে কিন্তু ব্লগিং প্রচলিত মিডিয়াগুলো যে পরিবর্তনএবং উন্নয়ন আনতে ব্যর্থ হচ্ছে এবং দেশকে সঠিকভাবে উপস্থাপন করতে ব্যর্থ হচ্ছে সেখানে ব্লগিং ভূমিকা পালনে সক্ষম হবে।

ব্লগিংয়ে আগ্রহ বৃদ্ধির ক্ষেত্রে আপনি কি করে থাকেন? এটাকে আপনি এত গুরুত্বপূর্ণ মনে করেন কেন?

جميل أنك سألت هذا السؤال!! حقيقةً كنت من البداية مؤمناً أنَّ أحدا ما عليه أن يفعلَ ذلك، يفعل ماذا؟ عليه أن يكتب عن المجتمع وأن يجعل من هذه المنطقة العذراء البكر التي لم تطأها أقلام الكثير من الكتاب، منطقة متحركة قابلة لأن تكون مادة للكثير من الكتابات. كان دافعي بسيطة للغاية، وهو أنَّ القضية التي لا نتحدث عنها، هي قضية لن نحلها، لا يمكن أن نحل شيئا ما دام في خانة المسكوت عنه، الفكرة كانت بسيطة في البداية أنشأت مدونة وقمت بتعيين مجموعة ممن أسميتهم [مخبرين] وللكلمة قصد واضح كما ترين. كنت أدفع لهؤلاء بطاقات شحن هاتفية، طبعا ما عدا مخبرة واحدة أصبحت لاحقا أحد أشهر المدونات العُمانيات بعدما قررت إنشاء مدونتها الخاصَّة. لم تطل هذه التجربة طويلا لأنني استعضت عنها بالأصدقاء الذين تعرفت عليهم في عالم الأونلاين، وهذا ما جعلني أصل للكثير من المعلومات بسهولة أكثر من السابق، وهذا ما جعلني أيضا أكتب عددا كبيراً جدا من المقالات التي أشعر أنني فخور ببعضها. كنت أحاول جاهداً اجتذاب مجموعة من الكتاب عبر المنتديات، وكذلك الاتصال بعدد من الكتاب وإقناعهم بإنشاء مدونات، ومع الوقت بدأ التدوين يأخذ دورَه في المسألة، بدأت قضايا تناقشها المدونات تصلُ إلى التلفاز والإذاعة بل وقامت بعض القنوات العالمية بتغطية بعض نشاطات المدونين.
এ প্রশ্ন করায় আমি আনন্দিত। সত্যিকার অর্থে একেবারে শুরু থেকে আমি ভাবতাম যে কাউকে না কাউকে এটা শুরু করতে হবে- কিন্তু কিভাবে? সে সমাজের এমন বিষয় নিয়ে লিখতে পারে যে বিষয়ে ইতঃপূর্বে কেউ কখনো লেখেনি এমন একটা বহুমাত্রিক জায়গা যেখানে অন্য লেখকরা লেখার উপাদান খুজে পাবেন। আমার প্রণোদনা ছিল খুবই সাধারণ এবং এটা ছিল এই যে যে বিষয়গুলো নিয়ে আমরা আলোচনা করিনা আমরা সেই বিষয়গুলো সমাধানও করতে চাই না। যে বিষয়গুলো নিয়ে কোন আলোচনা হয়না সে বিষয়গুলোর সমাধান অসম্ভব। শুরুতে আমার ধারনা ছিল সাধারণ। আমি একটা ব্লগ শুরু করি এবং একটা দল নিয়োগ করি যাদেরকে আমি বলি “ইনফরমার”-শব্দটার অর্থ আপনার কাছে পরিষ্কার। আমি তাদের ফোন কার্ডের খরচ দিতাম। এরই মধ্যে একজন মহিলা ইনফরমার আলাদাভাবে ব্লগ প্রতিষ্ঠা করেছেন এবং তিনি একজন অন্যতম জনপ্রিয় ব্লগারে পরিণত হয়েছেন। আমার এ পরীক্ষাটি খুব বেশি দিন টেকেনি, কারন আমি ইনফরমারদের আমার অনলাইন বন্ধু করতাম, তাতে করে আগের তুলনায় আমি সহজেই অনেক বেশি তথ্য পেতে শুরু করি এবং অনেক বেশি পোস্ট দিতে সক্ষম হই। আমি ফোরামের মাধ্যমে একদল লেখককে আকৃষ্ট করতে তাদের সংগে যোগাযোগ করতে এবং তাদের দিয়ে ব্লগ শুরু করতে উদ্বুদ্ধ করতে সচেষ্ট হই। সময়ের সাথে সাথে ব্লগিং ভূমিকা রাখতে শুরু করে; ব্লগের আলোচিত বিষয়গুলো টিভি এবং রেডিওতে পৌছে। কিছু আন্তর্জাতিক টিভি স্টেশন ব্লগারদের কর্মকান্ডের উপর প্রতিবেদন প্রচার শুরু করে।


আপনি কি আপনার বিতর্কিত পোস্টগুলোর বিষয়ে আমাদের কিছু বলবেন? এ গুলো সম্পর্কে আপনি কি ধরণের প্রতিক্রিয়া পেয়েছেন?

لا أدري ما هو السبب، هل لأنني كائن طويل اللسان، أم لأنني ببساطة أكتب دون أن أحاول أن أكون مسالما سياسيا، عدة مقالات يمكنني أن أقول أنها سببت ضجة كبيرة للغاية وصداعا هائلاً لي، المؤسف في المسألة أنني أؤاخذ وكأنني [لا ينبغي أقول] بينما طرق قضية مسكوت عنها يفتح الباب للجميع، ببساطة عندما أكتب مثلا مقالاً أنادي فيه بتوسيع قاعدة بيع الكحول في عُمان، فإنني أيضا أفتح الباب لمن يريد منع الكحول، حتى هذه اللحظة لا يكتبون أنهم ليسوا مع بيع الكحول وأنهم ضده، ولكنهم ضدي عندما أكتب وجهة نظر في جانب اقتصادي له علاقة بعدالة السوق في عُمان. ردة الفعل التي تعرضت لها كانت بشكل كبير منها اجتماعية .. إزعاج متواصل وسوء فهم وتنميط من قبل الأصدقاء قبل الأعداء، وكأنما الكتابة فقط هي بحث عن الشهرة، ولا يدركون أنَّ الشهرةَ في هذه البلاد ليس شيئا جميلا، ليس شيئا يبحث عنه، بالطبع لا أنكر هناك عامل تسويقي يجب على كل إعلامي أن يأخذ به، ولكن أن يسوق من أجل التسويق تبدو الفكرة غبية للغاية. معظم ما أتلقاه من ردود يتمثل في البريد الإلكتروني، وأتعمد أحيانا نقل بعض المقالات إلى بعض المواقع الشهيرة في عُمان لكي أستفيد من وجهات النظر ومن طريقة المجادلة التي يتبعها الكتاب الإلكترونيون، المؤسف طبعا وجود عدد هائل من البشر ممن يهاجمون بأسماء مستعارة، وللأسف الشديد يحاسبونني على كلام لم أقلْه، يعني يستنبطون من كلامي ما لم أشر إليه، ولا أعتقد أن هذه الحالة ستزول إلا بعد أن يصلب الإعلام المؤسسي ظهره ويتجه للمجتمع، وأنا أتحدث عن عُمان في هذا السياق.
আমি জানিনা এর কারণ কি- হতে পারে আমি একজন বাচাল মানুষ- কিন্তু মনে হয় আমি আমার লেখা রাজনৈতিক পূর্বাপর বিবেচনা না করেই লিখে থাকি। আমার একাধিক লেখা সত্যিকার অর্থেই বড় ধরণের হৈচৈ ফেলে দিয়েছে। দু:খজনক বিষয় হলো এই যে বিষয়টি নিয়ে আমাকে এমনভাবে দোষারোপ করা হয়েছে যে যেনো আমি একজন (আমি ওই শব্দটি বলতে চাইনা) এতে করে এমন একটি বিষয়ের দ্বার খুলে গেছে যে বিষয়ে এর আগে সবাই নিশ্চুপ ছিল। উদাহরণ স্বরুপ বলা যায় আমি এক লেখায় ওমানে অ্যালকোহল আরো ব্যাপকভাবে সহজপ্রাপ্য করার বিষয়ে লিখেছিলাম। যারা অ্যালকোহল নিষিদ্ধের পক্ষে তাদের জন্যও আমি আলোচনার দরজা খুলে রেখেছিলাম, যারা আমার এ লেখার আগে অ্যালকোহল বিক্রির নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে কখনো লেখেননি। কিন্তু আমি যখন অর্থনীতি-নির্ভর একটি লেখা ওমানের ফেয়ার মার্কেটের উপর লিখলাম তখন তাঁরা আমার বিরুদ্ধে অবস্থান নিলো। এর প্রতিক্রিয়ায় আমাকে বিপুল পরিমান সামাজিক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছে, আমি আমার শত্রুদের চাইতে আগে আমার বন্ধু-বান্ধবের দ্বারা ভুল বোঝাবুঝির শিকার হয়েছি যেন আমার এ লেখাটির মাধ্যমে আমি খ্যাতি অর্জন করতে চেয়েছি। তাঁরা জানেনা যে, এ দেশে খ্যাতি কোন ভাল জিনিষ না এবং চাইলেও তা পাওয়া যায়না। অবশ্য আমি অস্বীকার করিনা যে, প্রত্যেক সাংবাদিকেরই নিজেকে তুলে ধরার জন্য মনোযোগী হওয়া উচিত তবে শুধুমাত্র শুধুমাত্র নিজেকে উপস্থাপনের খাতিরে উপস্থাপনকে আমি একটি বাজে ধারণা বলে মনে করি। আমি আমার লেখার প্রতিক্রিয়াগুলো বেশিরভাগ ক্ষেত্রে পেয়ে থাকি ইমেইলের মাধ্যমে এবং কখনো কখনো আমি ইচ্ছাকৃত ভাবে ভিন্নমত পাওয়ার জন্য কোন জনপ্রিয় ফোরামে লিখে থাকি এবং বিতর্কের মাধ্যমে উপকৃত হই। দুঃখজনকভাবে কখনো কখনো ছদ্মনামে কোন ব্যক্তি আমাকে লেখার মাধ্যমে আক্রমণ করে এমন সব বিষয়ে আমার উপর দোষ চাপায় যে বিষয় নিয়ে আমি হয়তো কিছুই বলিনি; আমি বলতে চাইছি যে তাঁরা আমার কথাগুলোর অপব্যাখ্যা করে। আমি মনে করি প্রচলিত মিডিয়া স্বাধীনভাবে বিকশিত হতে না পারলে এবং সমাজের দিকে দৃষ্টি ফেরাতে না পারলে এ অবস্থার পরিবর্তন হবেনা বিশেষতঃ ওমানে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .