বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

কলম্বিয়া: মেডিলিনে হানাহানির বিপক্ষে শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ

কলম্বিয়ার মেডেলিনের এন্টিওকুইয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে আরো একবার পুলিশ, বিদ্র্রোহী দল এবং ছাত্রদের মাঝে ত্রিমুখী এক লড়াই অনুষ্ঠিত হয়, যেখানে ছাত্রদের বিজয় অর্জিত হয় তখন, যখন হানাহানিমুক্ত পরিবেশে পড়ার অধিকারের দাবীতে সোচ্চার হয়ে তারা ক্যাম্পাস থেকে দাঙ্গা পুলিশের দলকে বের করে দেয়।

যখন ঘটনাটি ঘটে তখন পাবলো রেনডন সেখানে উপস্থিত ছিল এবং সে ঘটনাটি সরাসরি উন্মোচন করার জন্য ঘটনাস্থলের সরাসরি ভিডিও দৃশ্য প্রদান করার জন্য তার মোবাইল ফোন ব্যবহার করে। এই ভিডিওটির ছবি পরিষ্কার নয় এবং মাঝে মাঝে শব্দে সমস্য রয়েছে। কিন্তু এটি ছিল ঘটনার উপর তথ্য পাওয়ার একমাত্র উৎস, সে সময় বিশ্ববিদ্যালয়ে আসলে কি ঘটেছিল:

এখানে যে কথাগুলো রয়েছে, তার মাধ্যমে পাবলো রেনডন (টুইটারে @পাবলো রেনডন নামে সে পরিচিত) ব্যাখ্যা করছে, কি ভাবে ছাত্ররা একত্রিত হবার সিদ্ধান্ত নেয় এবং গান গেয়ে এবং শ্লোগান দিয়ে দাঙ্গা পুলিশকে ক্যাম্পাস থেকে সরে যেতে বাধ্য করে, যা ছিল তার ভাষায় শান্তিপূর্ণ ভাবে বিক্ষোভ প্রদর্শন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় [স্প্যানিশ ভাষায়] ওয়েবশো টোডোলোকহেতে [স্প্যানিশ ভাষায়] তাকে দেখা যাবার কথা, যেখানে তিনি এন্টিওকুইয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিস্থিতি সম্বন্ধে বলবেন।

বিগত মাসগুলোতে বিশ্ববিদ্যালয়টি বেশ উত্তেজনাকর পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে গিয়েছে, যেখানে এর ক্যাম্পাসের ভেতরে গেরিলা কার্যক্রম এবং মাদক পাচারের মত ঘটনা ঘটেছিল এবং এই সব ঘটনা প্রতিরোধের জন্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। দেখে মনে হচ্ছে যে এই কার্যক্রম বিশেষ অস্ত্রধারী দলের কাছে ভালো লাগেনি এবং অভিযোগ রয়েছে ফার্কের সদস্য মুখোশধারী একদল লোক ৯ নভেম্বর, মঙ্গলবার, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেতরে প্রবেশ করে এবং একটি শৌচাগারে বোমা রেখে যায়। এর কারণে সরকার বিশ্ববিদ্যালয়ে দাঙ্গা পুলিশের একটি দল মোতায়েন করে এবং বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করে দেয়।

এই ভিডিও প্রদর্শন করছে যে কিছু মুখোশধারী ছাত্র গ্রন্থাগারে রাখা নিরাপত্তা ক্যামেরার ক্ষতিসাধন করছে। এই ভিডিওর বর্ণনা অনুসারে ছাত্ররা পাইপ বোমা নিক্ষেপ করে এবং প্রবেশ মুখে ছাত্রদের পরিচয়পত্র যাচাই করার কাজে ব্যবহার করা কিছু ল্যাপটপ ধ্বংস করে। ভিডিওর শেষ দৃশ্যে মুখোশপরা একজন ছাত্রকে একটা জিনিস ধ্বংস করতে দেখা যায়, যেটি মাটিতে পড়ে থাকা একটি ল্যাপটপ হতে পারে:

এটা মনে হতে পারে যে ছাত্ররা পরিস্থিতিতে বিরক্ত হয়ে উঠেছে, যেখানে তারা নির্বিঘ্নে পড়ালেখা চালাতে পারছে না। সেখানে ধর্মঘট, বাজেট কাঁটছাট করা হচ্ছে, এবং ক্যাম্পাসের ভেতরে হানাহানির ঘটনা ঘটছে এবং সবচেয়ে বড় কথা তারা প্রতিদিন সশ্রস্ত্র বাহিনীর মুখোমুখি হচ্ছে, যে বাহিনী বিশ্ববিদ্যালয়ের সব জায়গায় ছড়িয়ে রয়েছে, কিন্তু সমস্যার কোন সমাধান হচ্ছে না। শিক্ষকরা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি লিখেছে, যা ফেসবুকে প্রকাশ করা হয়েছে [স্প্যানিশ ভাষায়], যেখানে তারা মঙ্গলবারের ঘটনা নিয়ে আলোচনা করেছে এবং ঘোষণা দিয়েছে:

La tensa calma que venía imperando fue rota por esta acción abrupta a la cual respondió el Esmad cuyo cerco sobre el campus ha sido permanente, aun a pesar de la posición de la Asociación de Profesores en el sentido de rechazar toda forma de violencia venga de donde viniere y de invocar canales dialógicos y de construcción de acuerdos

এই চাপা উত্তেজনা প্রশান্ত হওয়া প্রমাণ করছে যে, এসমাদ নামের দাঙ্গা পুলিশের এই রূঢ় আচরণের মধ্যে দিয়ে নিয়ম ভঙ্গ করেছিল এবং ক্যাম্পাসের চারপাশে তাদের যে বেড়া, তা স্থায়ীভাবে বসানো হয়েছিল। যেখান থেকে তৈরি হোক না কেন , শিক্ষক সমিতি সকল প্রকার দাঙ্গার কথা বাতিল করে দিয়েছে এবং আলোচনায় বসা এবং চুক্তি তৈরির কথা জানিয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে এই হানাহানির ঘটনার নিন্দা জানানোর জন্য প্রশাসন একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। যখন ক্যাম্পাসের ভেতরে একটি বোমা বিস্ফোরিত হয়, তখন বাইরে দাঙ্গা পুলিশ মোতায়েন করা হয়। এটাই পাবলো (@প্রেনডন) লিখেছিল:

Manifestación en contra de la violencia. Suena una papabomba. Asistentes aplauden. Absurdo. #udea

হানাহানির বিরুদ্ধে এক প্রচারপত্র। একটি পাইপ বোমা বিস্ফোরিত হয়েছে। দর্শকরা হাততালি প্রদান করেছে। অবিশ্বাস্য #ইউডিয়ে

আরেকটি ভিডিও সব জায়গায় ছড়িয়ে পড়তে শুরু করেছে। এবার এটা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিজিটাল নিউজ সাইট ডে লা উরবা ডিজিটাল থেকে ছড়িয়ে পড়ছে:

কে পাসা উদেএ নামক ফেসবুক অ্যালবামে বৃহস্পতিবারের অনেক ঘটনার ছবি দেখতে পাওয়া যাবে, যেখানে ছাত্ররা এসমাদ বা দাঙ্গা পুলিশের মুখোমুখি হয়েছিল এবং এখানকার মন্তব্যগুলো এই ঘটনার উপর চারপাশে যে অনুভূতি তৈরি হয়েছে সে বিষয়ে বলছে। এসমাদ নামক দাঙ্গা পুলিশকে যে “শান্তিপূর্ণভাবে” বিশ্ববিদ্যালয় থেকে হটিয়ে দেওয়া এমন চিন্তার সাথে জু কারভাজাল দ্বিমত পোষণ করেন:

A mi no me parecio que los rechazaran de “forma pacifica” los que lideraban ese movimiento estaban exageradamente alterados, vi a uno de ellos, como un gallo de pelea, a alguien que le dijo algo, parecia que le queria pegar, y los insultos a los del esmad, tampoco son de forma pacifica, ojala se enfrentaran asi a los capuchos.

আমি দেখতে পাইনি যে তাদের “শান্তিপূর্ণভাবে” সরানো হয়েছিল, ওই সমস্ত বিষয় এই আন্দোলনকে দারুণভাবে হতাশ করেছিল, আমি তাদের একজনকে পোষা মোরগের মত লড়তে দেখেছিলাম। সে কোন একজনকে কিছু একটা বলছিল, মনে হচ্ছিল সে লোকটিকে আঘাত করতে চায়, এবং তারা এসমাদকে অপমান করেছিল, এটা মোটেও শান্তিপূর্ণ কোন ঘটনা নয়। আমি চাই মুখোশ পরিহিত লোকদেরকে তারা এভাবে মোকাবেলা করুক।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .