বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

কোস্টা রিকা: নিকারাগুয়ার সাথে সীমান্ত নিয়ে সংঘাত

সান জুয়ান নদী পরিষ্কার বা খনন করার মত সাধারণ এক বিষয় থেকে ঘটনার সূত্রপাত। এই নদী কোস্টা রিকা এবং নিকারাগুয়ার মাঝে এক প্রাকৃতিক সীমানা তৈরি করেছে। এই ঘটনা দেশ দুটির মধ্যে কূটনৈতিক এবং সামরিক দ্বন্দ্বের সৃষ্টি করেছে।

সান জুয়ান নদী। ছবি ফ্লিকার ব্যবহারকারী গুয়েলিয়ারমো এ ডুরান-এর।এটিকে এট্রিবিউশন-ননকর্মাশিয়াল-ননডিরাইভস ২.০ জেনেরিক ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সের অধীনে ব্যবহার করা হয়েছে।

বড় আকারের নৌযান যাতে সহজে চলতে পারে সেই লক্ষ্যে নিকারাগুয়ার সরকার সান জুয়ান নদীর খনন কাজ শুরু করে। এটা কোন সমস্যা ছিল না, কারণ নদীর মালিকানা তাদের। তবে যেদিন তারা নদী খনন করার কাজ শুরু করে, সেদিনই কোস্টা রিকার সরকার উপলব্ধি করে যে, নদী থেকে উত্তোলিত সামগ্রী কোস্টা রিকার এলাকায় জমা করা হচ্ছে। এই বিষয়ে কোস্টা রিকার সরকার অভিযোগ করার পর, নিকারাগুয়ার সরকার জনায় যে সকল কিছু আসলে ভুল করে করা হয়েছে এবং এমনটা আর ঘটবে না। কিন্তু সেটা ছিল আসলে সমস্যার শুরু।

১ নভেম্বর কোস্টা রিকার সংবাদপত্র লা ন্যাশিওন [স্প্যানিশ ভাষায়] সংবাদ প্রকাশ করে যে :” কোস্টা রিকার সরকার নিশ্চিত করেছে, নিকারাগুয়ার সামরিক বাহিনী কোস্টা রিকার ভূখণ্ডে হামলা চালিয়েছে”।

El Gobierno confirmó esta tarde la incursión de tropas del Ejército de Nicaragua en territorio costarricense, específicamente en la Isla Calero, ubicada en la zona fronteriza, en la desembocadura de los ríos San Juan y Colorado.

“Esto es una lesión a la soberanía nacional, no se puede interpretar de otra manera,” [Ministro de Seguridad José María Tijerino.]

আজ বিকেলে সরকার নিশ্চিত করেছে যে নিকারাগুয়ার সামরিক বাহিনীর সদস্যরা কোস্টা রিকার ভূখণ্ডে হামলা চালিয়েছে, বিশেষ করে তারা কালেরো আইল্যান্ডে হামলা চালায়। এটি সান জুয়ান এবং কলোরাডো নদীর মুখে অবস্থিত একটি সীমান্ত এলাকা।

“এটা জাতীয় স্বার্বভৌমত্বের উপর হামলা। এটাকে অন্য কোনভাবে ব্যাখ্যা করা যায় না।“ নিরাপত্তা মন্ত্রী জোসে মারিয়া তিজেরিনো]

এর ফলে, কোস্টা রিকা আমেরিকার রাষ্ট্র সংঘ (ওএএস) [অর্গানাইজেশন অফ আমেরিকান স্টেটস]-এর স্থায়ী পরিষদের সভা আহ্বান করে। যেখানে দেশটি ছবি, ভিডিও এবং সেই এলাকার প্রতিবেশীদের স্বাক্ষ্য সহকারে এর প্রমাণ দাখিল করবে। মন্ত্রী তেজিরিনো বলছেন [স্প্যানিশ ভাষায়] যে :

“Costa Rica, que no tiene ejercito, confía en los canales diplomáticos para evitar una confrontación que solo agravaría la situación.”
“কোস্টা রিকার নিজস্ব কোন সামরিক বাহিনী নেই। দেশটি সম্মুখ যুদ্ধ এড়ানোর জন্য কূটনৈতিক উপায়ের উপর নির্ভর করে থাকে, এই সমস্ত যুদ্ধ কেবল পরিস্থিতিকে খারাপের দিকে নিয়ে যায়। “

এই সমস্যা সীমান্ত সংঘর্ষ ছাড়িয়ে গেছে, কারণ এটি অভিবাসন সংক্রান্ত এক সমস্যাকে আরো বাড়িয়ে দিতে পারে। কোস্টা রিকায় প্রায় ৬০০,০০০ জন নিকারাগুয়ার অধিবাসী বাস করে, যাদের বেশীর ভাগের কাছে কোন কাগজপত্র নেই। এটা এখন আর কোন গোপনীয় বিষয় নয় যে জাতিগত ঘৃণা এমন একটি জটিল বিষয় যা সীমান্ত সংঘর্ষকে আরো খারাপের দিকে নিয়ে যেতে পারে।
লা সুইজা সেনট্রোআমেরিকানোতে ডিন করিনটো লিখেছেন [স্প্যানিশ ভাষায়]:

Cualquier otro país latinoamericano que hubiera sufrido la violación de su territorio, ya estaría en estado de guerra con su vecino. Y eso exactamente es lo que quiere Daniel Ortega, que siempre que tiene un problema interno, busca como desviar la atención del público creando un conflicto externo artificial.
অন্য যে কোন ল্যাটিন আমেরিকার দেশ, যারা অভ্যন্তরীণ সমস্যায় রয়েছে, তারা ইতোমধ্যে তাদের প্রতিবেশী দেশের সাথে যুদ্ধে জড়িয়ে পড়েছে। ড্যানিয়েল ওর্টেগা ঠিক এই কাজটি করতে চাইছেন [ওর্টেগা নিকারাগুয়ার রাষ্ট্রপতি]। তার দেশে সব সময় সমস্যা লেগেই রয়েছে এবং তিনি জনতার মনোযোগ অন্যদিকে সরিয়ে দেবার জন্য দেশের বাইরে কৃত্রিম এক সংঘর্ষের সৃষ্টি করেছেন।

বিভিন্ন ব্লগে যে সমস্ত মন্তব্য করা হয়েছে সে অনুসারে কোস্টা রিকার নাগরিকরা এটিকে একেবারে স্বাভাবিক এক পরিস্থিতির দৃষ্টিতে দেখছে। সেখানে বলা হচ্ছে, যখনই নিকারাগুয়ায় নির্বাচনের সময় ঘনিয়ে আসে, তখনই সেখানকার সরকার অন্য বিষয়ের দিকে মনোযোগ সরিয়ে দেবার চেষ্টা করে, যাতে তাদের আভ্যন্তরীণ সমস্যা তেমন চোখে না পড়ে এবং ক্ষমতাসীন সরকার যেন ভোট না হারায়। এল ইনফিয়ারনো এন কোস্টা রিকা [স্প্যানিশ ভাষায়] এ বিষয়ে লিখেছে

Una de las tradiciones más arraigadas en la cultura política nicaragüense en las últimas décadas, es que cuando se acercan las elecciones, se debe provocar un diferendo con Costa Rica, preferiblemente por el Río San Juan; lo anterior con la finalidad de limpiar la imagen del gobernante de turno, llena de corrupción, incapacidad para solucionar los problemas, entre otros [..]

সাম্প্রতিক দশকে নিকারাগুয়ার রাজনৈতিক সংস্কৃতির গভীরে এই ঐতিহ্য তৈরি হয়েছে যে, যখনই সেখানে নির্বাচনের সময় ঘনিয়ে আসে, তখনই তারা কোস্টা রিকার সাথে এক ঝামেলার সৃষ্টি করে। সান জুয়ান নদী নিয়ে তারা সমস্যা সৃষ্টি করতে পছন্দ করে; এটি তারা করে ক্ষমতাসীন শাসকদের ভাবমূর্তি পরিষ্কার করার জন্য, যারা পুরোমাত্রায় দুর্নীতিগ্রস্ত, আভ্যন্তরীণ সমস্যার সমাধান করতে অক্ষম, ইত্যাদি […]

অনেক ব্লগারের মতামত হচ্ছে, এখন পরিষ্কারভাবে ভাবা এবং ভালো সিদ্ধান্ত নেবার সময়, যাতে দুটি দেশের কোনটি এর দ্বারা আক্রান্ত না হয়। কারণ প্রতিবেশী হিসেবে হিসেবে যৌথ সহযোগিতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কোস্টা রিকা এবং নিকারাগুয়া যৌথ বাণিজ্যের অংশীদার এবং এই সমস্যা উভয় দেশের রপ্তানির জন্য ক্ষতিকর হবে; অনেক কাজের উৎস এর দ্বারা ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

সিয়েনসিয়া ফিকিশওন কন জুলিয়া কর্ডোবা ব্লগে জুলিয়া কর্ডোবা মনে করে [স্প্যানিশ ভাষায়]:

Como representante de nuestro país el ministro debe promover como valor superior la paz y el Derecho como única herramienta para resolver el conflicto y dejar a otros la promoción de la guerra, valor que no forma parte del sentir costarricense.
আমাদের দেশের প্রতিনিধি হিসেবে মন্ত্রীকে অবশ্যই শান্তিকে উচ্চতর মূল্যবোধ হিসেবে প্রচার করতে হবে এবং সমস্যা সমাধানে আইন হতে পারে একমাত্র মাধ্যম। আর অন্যদের যুদ্ধের ডামাডোল বাজানোর জন্য ছেড়ে দেওয়া হোক, এটি এমন এক মূল্যবোধ, যা কোস্টা-রিকার চরিত্র নয়।

কোস্টা-রিকার সাধারণ অনুভূতি হচ্ছে তারা এই বিষয়ে পরিষ্কার যে, এ দেশটি মহাদেশের একমাত্র দেশ যেখান ১৯৪৮ সাল থেকে কোন নিয়মিত সামরিক বাহিনী নেই: নিকরাগুয়ার সাথে অস্ত্রের লড়াই তাই কোন আলোচনার বিষয় হতে পারে না, যেখানে দেশটির সুম্মুখ লড়াইয়ের নামার কোন উপায় নেই। এইচ৩ডিচো [স্প্যানিশ ভাষায় ] বলছে:

Los gobernantes Nicas son los más trogloditas de la región, y con tal de desviar la atención de sus problemas internos, no les importa poner en riesgo vidas de costarricenses y nicaragüenses. […]

Dichosamente nunca es tarde, y ante una nueva incursión del ejercito nicaragüense a nuestra frontera, nuestro gobierno solicita la intervención de la OEA, como país de paz que somos. […]

A las autoridades nicas las debemos enfrentar con firmeza real, sin dar un paso atrás, pero con diplomacia, nunca con las armas contra un país hermano.

নিকারাগুয়ার কর্তৃপক্ষ এ অঞ্চলের এক নিষ্ঠুর শাসক, এবং দেশের অভ্যন্তরীণ সমস্যা থেকে জনগণের মনোযোগ অন্য দিকে সরিয়ে দেবার জন্য তারা কোস্টা রিকা বা নিকারাগুয়ার মানুষের জীবনকে ঝুঁকিতে ফেলে দিতে পরোয়া করে না। […]

সৌভাগ্যক্রমে, খুব একটা বেশী দেরি হয়ে যায়নি এবং নতুন এক নিকরাগুয়ার সেনাবাহিনী যা সিমান্তে অভিযান চালিয়েছে, তাদের বিপক্ষে আমাদের সরকার ওএএসের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে, শান্তিকামী রাষ্ট্র হিসেবে আমরা এ রকমই […]

পিছু না হটে, সত্যিকারের শক্তি নিয়ে আমাদের নিকারাগুয়ার সরকারের মুখোমুখি হতে হবে, তবে সমস্যার সমাধান কূটনৈতিক উপায়ে করতে হবে। ভ্রাতৃপ্রতীম একটি রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে কখনোই অস্ত্রের মাধ্যমে সমস্যার সমাধান প্রয়োজন নেই। […]

এই পরিস্থিতিকে উভয় দিকের বাণিজ্যিক সম্পর্কের উপর এবং একই সাথে যেন কোস্টা রিকায় বাস করা নিকারাগুয়ার বাসিন্দাদের উপর প্রভাব না ফেলে তার দিকে খেয়াল রাখা দরকার। সরকার আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংঘকে সবচেয়ে সেরা উপায়ে এই সমস্যার সমাধান করার জন্য আহ্বান জানিয়েছে। লা সুইজা সেন্ট্রোআমেরিকানোতে [স্প্যানিশ ভাষায়] কোরনিটো তুলে ধরেছেন:

Con todo y todo, es mejor tolerar una violación de nuestra soberanía por algunas semanas hasta que el sistema interamericano de defensa mutua se mueva a favor de Costa Rica, que lanzarnos a una guerra sinsentido e innecesaria para nosotros. Nuestras autoridades tienen mucha razón al proceder con cautela.

সর্বোপরি, আমাদের সার্বভৌমত্বের উপর হামলার বিষয়টি কয়েক সপ্তাহের জন্য সহ্য করা ভালো, যতক্ষণ না আন্ত-আমেরিকার নিজস্ব যৌথ প্রতিরক্ষা বাহিনী কোস্টা-রিকার সমর্থনে এগিয়ে আসে, এরপর তারা আমাদের উপর চাপিয়ে দেওয়া এই অর্থহীন এবং অপ্রয়োজনীয় যুদ্ধে জড়িয়ে পড়বে। সতর্কতার সাথে সিদ্ধান্ত নেবার ফলে আমাদের সরকার ঠিক কাজটি করছে।

তাজা খবর ৬/১১: স্প্যানিশ ভাষায় এই পোস্ট লেখার পর এএফপি এবং অন্য সব সূত্র সংবাদ প্রদান করেছে যে নিকারাগুয়ার সরকারের এক কর্তা ব্যক্তি কোস্টা রিকার সংবাদপত্র লা ন্যাশিওনে সাক্ষাৎকার প্রদানের সময় বির্তকিত সীমান্ত এলাকায় হামলার সপক্ষে যুক্তি তুলে ধরার জন্য“ গুগলে প্রকাশ হওয়া সীমান্ত মানচিত্রের কথা উল্লেখ করেছে। “গ্লোবাল ভয়েসেস এই বিষয়ের উপর এই সংক্ষিপ্ত তাজা সংবাদ প্রকাশ করেছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .