বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

কিউবা: প্লেন দুর্ঘটনার পরে ইন্টারনেটে সংহতি

৬৮জন যাত্রীবাহী কিউবার এক বিমান দুর্ঘটনাকবলিত হয়েছে।

৬৮জন যাত্রীবাহী কিউবার এক বিমান দুর্ঘটনাকবলিত হয়েছে। ছবি এস্কাম্ব্রের সৌজন্যে।

গত ৪ঠা নভেম্বর বৃহষ্পতিবার বিকেলে এস্কাম্ব্রে সংবাদপত্রের ডিজিটাল ওয়েবসাইট নিশ্চিত করেছে যে মধ্য কিউবার সাংটি স্পিরিটাস শহরের ১৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত গুয়াসিমাল শহরের কাছে একটা প্লেন দূর্ঘটনা কবলিত হয়েছে এবং আটষট্টি জন এতে মারা গেছেন। কয়েক মিনিটের মধ্যে টুইটার ব্যবহারকারী কিউবানরা ভয়াবহ এই দূর্ঘটনা সম্পর্কে তথ্য আদান প্রদান করতে শুরু করেন।

সাংবাদিক @হাম্বক৬৬ ঘটনার প্রথমদিককার বিষয়গুলো টুইট করেছেন, আর তার সাথে যারা বেঁচে আছেন তাদের খোঁজার জন্য অ্যাম্বুল্যান্সের আর প্যারামেডিকের আগমন নিয়েও তথ্য দিয়েছেন। তারা যখন উদ্ধারের সম্ভাবনা নাকচ করে দেন ততক্ষণে দুর্ঘটনার শিকারদের আত্মীয়দের জন্য সমর্থনের বার্তা ওয়েব ব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে।

La solidaridad se hace presente. Mensajes de personalidades y personas comunes se conjugan en la red por #accidente en #SanctiSpíritus

সংহতি বাড়ছে। গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ব আর সাধারণ মানুষের কাছ থেকে প্রাপ্ত বার্তা ওয়েবের #দুর্ঘটনা #সান্কতিস্পিরিটাস হ্যাশট্যাগে মিশে গেছে।

হ্যাশট্যাগ #কিউবা ব্যবহার করে প্রথম উৎসাহদানকারী বার্তা ছিল বিদেশে থাকা কিউবানদের কাছ থেকে। @মারিয়ানেলি৫৪ লিখেছেন:

Mis pensamientos están con mi pueblo querido, que hoy llora por el trágico accidente del vuelo ATR-72.

আমার প্রিয় মানুষগুলোকে নিয়ে আমার চিন্তা যারা আজকে কাঁদছেন ফ্লাইট এটিআর ৭২ এর দু:খজনক দুর্ঘটনার কারনে।

কিউবার ওয়েবসাইটগুলোতে মন্তব্যের জন্য যে স্থান রাখা আছে তা প্রথম পর্যায়ের এই ঘটনার বিস্তারিত জানানোর একটি উপায় হয়ে উঠেছিল। কিউবাডিবেট থেকে ওসমেল বলেছেন যে তিনি ‘ভয়াবহ’ সেই স্থানে ছিলেন। জুভেন্টাড রেবেলদে ওয়েবসাইট এ আদ্রিয়ান ‘এই দুর্ঘটনার জন্য জাতীয় শোক দিবস’ পালন করার অনুরোধ করেছেন।

এই পর্যন্ত দূর্ঘটনার কারন অজানা, কিন্তু কিউবান ইন্সটিটিউট অফ সিভিল অ্যারোনটিকস সাথে সাথে বিশেষজ্ঞদের একটি কমিশন গঠন করেন এই দূর্ঘটনা তদন্তের জন্য, যেটাতে ৪০ জন কিউবান আর আর্জেন্টিনা, মেক্সিকো, হল্যান্ড, জার্মানি, অস্ট্রিয়া, স্পেন, ফ্রান্স, ইটালিয়া, জাপান আর ভেনেজুয়েলা এই ১০টি দেশের ২৮ জন নাগরিক জীবন হারিয়েছেন।

এল ব্লগ দে ইয়োহান্ড্রাই আর ডেস্টিনো কিউবা এই ভয়াবহ দুর্ঘটনার সাম্প্রতিক তথ্য একত্র করছেন।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .