বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

মন্টিনিগ্রো: ইউটিউব তারকার জন্যে বীরত্বের সম্মান

গত ১১ই জুলাই ইউটিউব তারকা একরেম জেভরিক গসপোদা তার দেশ মন্টিনিগোতে ফিরে আসার পর তাকে বীরত্বের সম্মান দেয়া হয়। তার সুনাম আরও ছড়ায় যখন তিনি একটি নামকরা ফ্যাশন ব্র্যান্ডের জন্যে মডেল হয়ে ছবি তুলেন (তার ইউটিউবের জনপ্রিয়তার সাথে সম্পর্কিত নয়)।

পদগোরিকা এয়ারপোর্টে জেভরিককে স্বাগত জানিয়েছিল ক্যাম্প গায়ক পুরাসেভিচ এবং তার “আত্মীয়রা ও শতাধিক ফ্যান”। ঐদিকে বলকান অঞ্চলের অনেক বিনোদন পোর্টাল এবং টিভি স্টেশন — যেমন ম্যাসেডনিয়া থেকেও — এই ঘটনার একটি ভিডিও প্রচার করেছে – যা এখন ইউটিউবে পাওয়া যাচ্ছে।

এক মহিলা সাংবাদিকের অনুরোধে এই ক্লিপে এই গীতিকার ও গায়ক, যার গান এতদিন চাকুরি করা মেয়েদের গালি দিয়েছে কারণ তারা সন্তান পালন করতে পারে না, ব্যাখ্যা করেছেন যে “মেয়ারা কাজ করে। আমাদের সব মেয়েরা কাজ করেছে সমস্ত ধুসর পৃথিবীতে, মেয়েরা কাজ করে।” এবং তিনি জানান যে এ ব্যাপারে তিনি চিন্তিত নন।

কিন্তু যার ভিডিও ইউটিউবে এই পর্যন্ত ৩৯ লাখ বার দেখা হয়েছে, তিনি অনুযোগ করেছেন যে তিনি তার থেকে কোন টাকা বানাতে পারেন নি। কারণ ভিডিও দেখানোর জন্যে তিনি টাকা পান না। তাই “এই সবই বিনে পয়সায়, কিছুর বিনিময়েই না, এবং হয়ত ভবিষ্যৎে, আমি হয়ত কিছু আয় করতে পারব।”

এ ছাড়াও কয়েক সপ্তাহ আগে, অনেক বলকান পোর্টাল এই সংবাদ ছড়িয়েছে যে জেভরিক একটি একজন দর্জি হিসেবে পুরুষের পোষাকের মডেল হয়ে ছবি তুলেছে। এদের মধ্যে একটি, সার্বিয়ানেট, আরও প্রকাশ করেছে [সার্বিয়ান ভাষায়] একটি অডিও ক্লিপ যাতে টেলিফোনে সাক্ষাৎকারের একটি অংশ আছে। জেভরিকের বক্তব্য অনুসারে:

আমি একজন বড় এবং নামকরা বিলিওনিয়ারের হয়ে কাজ করেছি যার নাম ডলচে এন্ড গাব্বানা। আমি একটি শুঁড়িখানার সামনে বসেছিলাম [আমার স্যুট পরে] এবং তিনি আমার পাশ দিয়ে যাচ্ছিলেন আর আমাকে জিজ্ঞেস করলেন আমি ইটালিয়ান কি না? আমি বললাম “দু:খিত আমি নই। তবে আমার বাড়ি ইটালির খুব কাছে।”

তারপরে তিনে বললেন “আপনি কি অনুমতি দেবেন আপনার ছবি তোলার এবং আপনার ফোন নম্বর আমাদের দেবার? আমরা দশদিনের মধ্যে আপনাকে জানাব আপনি যদি নির্বাচিত হন।” এবং তারা আমাকে কাজে নিল ৫০০ ডলার প্রতিদিন এই হিসেবে। আমি দুদিন কাজ করে হাজার ডলার পেয়েছি। আমার বাড়ি থেকে তারা গাড়ি করে আমাকে নিয়ে যেত এবং আবার বাড়ি পৌছে দিত। তারা আমাকে আরও বলেছে আমাকে আবার কাজের জন্যে ডাকতে পারে.. আমি কি জানি…

এই সাক্ষাৎকার গ্রহণকারী রক্ষণশীল জারভিককে খুঁচিয়ে দেবার চেষ্টা করেছে ডলশে এন্ড গাব্বানার সমকামিতার কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে তবে এই গায়ক ও মডেল বিষয়টি এড়িয়ে যান।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .