বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ব্রুনাই: সুলতানের অপ্রত্যাশিত স্কুল পরিদর্শন সাড়া জাগিয়েছে

ব্রুনাই দারুসসালামের সুলতান আর রাষ্ট্রপ্রধান হাজি হাসানাল বলকিয়াহ তার ৬৪তম জন্মদিনের এক দিন পূর্বে রাজধানী ব্রুনাইয়ের এক হাইস্কুল পরিদর্শনে এসে সবাইকে চমকে দিয়েছেন। কাটক অঞ্চলে ষষ্ঠ ফর্ম সেন্টারে (পিটেক) অনুষ্ঠিত এই ঘটনাটি কোন উৎসব আর জৌলুশ ব্যতীত ছিল। এটি প্রথম নয় যে মহামান্য সুলতান বিদ্যালয়ে হঠাৎ পরিদর্শন করেছেন এবং “এই কর্মঠ রাজকীয় ব্যক্তিত্বের” পরিকল্পনার অংশ হচ্ছে বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের উচ্চাকাঙ্ক্ষা এবং স্কুলের সমস্যা সম্পর্কে জানা।  মহামান্য সুলতান গত মে মাসে পিটিই মেরাগাঙ স্কুল পরিদর্শন করেছিলেন, জানিয়েছেন ভ্যান্স ট্যান

একটি সূত্র অনুসারে, মেরাগাঙ স্কুলে সুলতানের নিজে থেকে এবং কোন প্রস্তুতি ব্যতীত আসার ইচ্ছা ছিল যাতে তিনি কোন আনুষ্ঠানিকতা ছাড়া ছাত্রছাত্রীদের সাথে কথা বলতে পারেন এবং তাদের কঠোর পরিশ্রম এবং প্রতিভার প্রশংসা করতে পারেন।

ব্রুনাই টাইমস সুলতানের পিটেক পরিদর্শন নিয়ে একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে যেটি অনেক ছাত্রদের অনুপ্রাণিত করেছে। ব্রুনাইয়ের টুইটগুলো এই অঘোষিত পরিদর্শন নিয়ে মন্তব্য করায় ব্যস্ত ছিল।

আলিয়ানা জৈন: মহামান্য সুলতান পিটেক পরিদর্শন করছেন।

ইটসটিকা: রিটুইট @হানি৫০৪, রিটুইট @ব্রুনাইটুইট চমৎকার! মহামান্য সুলতানের পিটেক পরিদর্শন নিয়ে সরাসরি খবর পাচ্ছি।

কে-ফিতরি: মহামান্য সুলতান এখন পিটেক এ।

লিয়ানা ইউসুফ: আমিন! রিটুইট @হানি৫০৪ মহামান্য সুলতান গত দুই বছর ধরে নিয়মিত পিটেক পরিদর্শন করেছেন। আমি এখন পিটেকে। উনি কি আগামী বছর আবার এখানে আসবেন? আমিন!

হানি৫০৪ একজন ছাত্রী/ব্লগার যিনি সুলতানের সাথে দেখা করার সৌভাগ্য পেয়েছেন

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রীকে আতিথেয়তা প্রদান এবং সুলতানের নিজের জন্মদিন উদযাপনের মধ্যে মাত্র একদিন বিরতি থাকলেও, মহামান্য গতকাল কাটকের পিটিইতে এসেছিলেন এবং আমাদের চমকে দিয়েছিলেন। গত সপ্তাহ থেকে আমাদের আমরা তার আগমনের প্রতীক্ষায় ছিলাম, কিন্তু ঘুণাক্ষরেও ভাবিনি যে তার জন্মদিনের পূর্বের দিন তিনি আসবেন। এটি সত্যিই আমাদের অনেক কৃতজ্ঞতা প্রদর্শনের কারণ ছিল। তার সাথে কিছু কথা বলার সৌভাগ্য হয়েছিল আমার। তার স্বাক্ষর নিয়েছিলাম এবং এটি একটি মহান সম্মান ছিল!

র‍্যাণ্ডমলি লক্ষ্য করেছে যে পিটেকের ছাত্রছাত্রীরা তার অপ্রত্যাশিত সাক্ষাৎকারের মূল্যায়ন করে। আরেকটি জেলা থেকে আসা ছাত্র ভ্যান্স ট্যান রাজকীয় সাক্ষাৎকারের সম্বন্ধে জেনেছিল এবং এ সম্বন্ধে তার ব্লগে লিখেছিল।

ব্রুনাই লাইফস্টাইল ব্লগ ব্রুনাইয়ের নাগরিকদের আবেগ গুলোর প্রতিফলন ঘটিয়েছে যারা ভাগ্যবান অনুভব করে যে এই রাজকীয় ব্যক্তিত্ব তার জনগণের উচ্চাকাঙ্ক্ষা ও উদ্বেগ সম্বন্ধে আরও বেশি জানতে কৌতূহলী।

আমি মনে প্রাণে ভাবি যে মহামান্য সুলতান অনেক দূরদৃষ্টিসম্পন্ন শাসক এবং তার লক্ষ্য ব্রুনাইয়ের কল্যাণ এবং উন্নত ভবিষ্যৎ।

ছবি হানি মাজিদাহর সৌজন্যে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .