বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

চীন: শক্তিশালী রাষ্ট্র, গরিব জনগণ

রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন সম্প্রচার কেন্দ্র সিসিটিভি জুনের ২৮ তারিখে প্রচারিত এক অনুষ্ঠানে জানায় যে, চীন ২০১০ এর শেষে ৮ ট্রিলিয়ন ইয়ান (১.১৮ ট্রিলিয়ন ডলার) {১ ট্রিলিয়ন=১,০০০,০০০,০০০,০০০} রাজস্ব আয়ের কথা চিন্তা করছে। এই পরিমাণ অর্থ যুক্তরাষ্ট্রের পরেই চীনকে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম রাজস্ব আয়ের দেশে পরিণত করবে। এতে মনে হচ্ছে চীন একটি শক্তিশালী দেশ হিসেবে তার স্বপ্নকে উপলব্ধি করতে পেরেছে, তবে নেট নাগরিকদের এই সংবাদে খানিকটা সংশয় রয়েছে, কারণ সম্পদের অসম বণ্টন।

রাজস্ব আয়ের ক্ষেত্রে এক ধাক্কায় বিশাল পরিমাণ এগিয়ে যাওয়া

অনলাইনে সাম্প্রতিক ঘটনাবলীর (কারেন্ট এফেয়ার্স) উপর মন্তব্যকারী, হোজিনলিঙ্গ বলছে যে “এক লাফে বিশাল পরিমাণ রাজস্বের বৃদ্ধি” তা রাষ্ট্রের জন্য সহনশীল নয়

财政收入飞增,就像一个人吃了激素一样猛 长,外表很好很强大,很光鲜,可实质上是孱弱的。中国基尼系数超过国际警戒线,贫富差距日益拉大,劳动者之间分配不公…
…财政“坐火箭”, 一飞冲天,拿下了老二的位子,而民众的收入还在“骑蜗牛”。国际货币基金组织在2010年4月21日发布的数据显示,中国2009年的人均收入世界排名第 109位。可见,财政“大跃进”并不是一件值得吹嘘的事情,反而值得好好反思!

রাজস্ব আয়ের পরিমাণ এইভাবে দ্রুত বেড়ে যাওয়া মানে যেন একজন তার শক্তি বৃদ্ধির জন্য কৃত্রিম কোন উপাদান ব্যবহার করছে। এর ফলে তাকে বাইরে থেকে শক্তিশালী দেখায়, কিন্তু বাস্তবে ভেতরে সে প্রচণ্ড দুর্বল। এই যাদুকরী সংখ্যা যা বিস্তৃতভাবে রাজস্ব আয় বাড়িয়ে দিয়েছে, কিন্তু তা দেশে অসমতা এবং সমাজিক বৈষম্যের সৃষ্টি করেছে….

…এখন অর্থনৈতিক ভাবে আমাদের রাজস্ব আয় রকেটের গতিতে বেড়েছে এবং রাজস্ব আয়ের দিক থেকে আমরা বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম দেশে পরিণত হয়েছি। অন্যদিকে নাগরিকদের আয় বৃদ্ধি শামুকের পিঠে চড়ে এগিয়েছে। ২১ এপ্রিল, ২০১০-এ আইএমএফ যে তথ্য প্রদান করছে তাতে দেখা যাচ্ছে, ২০০৯ সালে চীনের জনগণ, গড় আয়ের দিক থেকে বিশ্বে ১০৯ নাম্বারে অবস্থান করছে। এটি দেখায় যে দ্রুত “লাফিয়ে রাজস্ব আয় বৃদ্ধির” ঘটনায় আমাদের গর্ব করার কিছু নেই। এর বিপরীতে আমাদের বর্তমান পরিস্থিতির উপর নজর দেওয়া উচিত।

ব্লগার ১৭৪১৫৯৬৫০৭ সাধারণ জনতার মাঝে তুলনামূলক বঞ্চনার এক অনুভূতির বিষয় বিস্তারিতভাবে তুলে ধরেছে:

我国政府财政巨大的收入与老百姓的低工资收入、低福利待遇、低社会保障、低医疗卫生条件、低教育投入,以及老百姓超高生活消费、天高的房价消费、极高的税收负担等等形成了巨大的反差。

এটি দেশটির অর্থনীতিতে রাজস্ব আয় এবং জনতার জীবনযাত্রা, একবারে বিপরীত বাস্তবতা তুলে ধরছে: নিম্ন আয়, সামাজিক নিরাপত্তার ও সুবিধার অভাব, স্বাস্থ্যসেবার অভাব ও শিক্ষায় ভর্তুকি প্রদান কমিয়ে আনা, মুদ্রার উল্টো পিঠের গল্প, সম্পত্তি এবং নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম ক্রমেই বাড়ছে এবং নাগরিকদের বিশাল পরিমাণ কর দিতে হচ্ছে।

শক্তিশালী দেশ, দরিদ্র্য জনতা
বাই ইয়েন উপসংহার টেনেছে যে, চীন একটি শক্তিশালী দেশ, কিন্তু তার নাগরিকরা দরিদ্র্য রয়ে গেছে:

整个国家,富的越来越富,穷的越来越穷。官员们越来越富,老百姓越来越穷。

এই দেশে ধনীরা আরো ধনী এবং দরিদ্র্য আরো দরিদ্র্য হচ্ছে। সরকারি কর্মকর্তারা যেখানে ধনী হচ্ছেন, সেখানে সাধারণ নাগরিকরা গরিব রয়ে যাচ্ছে।

国家财政收入增加了,又可以多办几届超豪华的奥运会世博会,又可以长长我国政府的脸面了。

বর্তমানে জাতীয় অর্থনীতিতে রাজস্ব আয়ের পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে, আমরা এখন সরকারের মুখ আরো উজ্জ্বল করতে আরো অসাধারণ সব অলিম্পিক প্রতিযোগিতা এবং বিশ্ব বাণিজ্য মেলার আয়োজনের পরিমাণ বৃদ্ধি করতে পারব।

如果我国国民收入分配不公的格局不改变,那么国家财政收入增加再多,对咱们普通老百姓来说也毫无意义。

যদি আয় বিতরণ কাঠামোর মধ্যে কোন পরিবর্তন না আনা হয়, তা হলে দেশটি যত ধনী হোক না কেন, তা সাধারণ জনগণের জন্য অর্থহীন বিষয় হয়ে দাঁড়ায়।

ঋণের ভারে স্থানীয় সরকার

সোয়ালঙ্গগিংগ তুলে ধরছেন যে চীনের স্থানীয় সরকারও গরিব:

地方政府基本上也归属于我们这些穷民一类了,欠下一屁股债,日子实在 不好过。要知道,1994年分税制度的改革,虽然客观上加强了中央政府的财力,但是却削弱了地方政府的财力… 另一方面,地方政府还要承担大量的公共事务支出,没有多余的财力实现城市发展和基础设施建设,政府要实现这一部分功能,贷款是非常重要的一部分。在2008年底经济刺激政策下,地方融资平台设立和贷款受到鼓励,政府甚至发文要求下级县按要求设立融资平台。各地政府做出了一致的选择——贷款开展项目建设。

চীনের স্থানীয় অনেক সরকারও দরিদ্র্য মানুষের মতই গরিব এবং অনেকে আবার ঋণভারে জর্জরিত। ১৯৯৪ সালে আনা কর সংস্কারের কেন্দ্রীয় সরকারের অর্থনৈতিক আয় বেড়েছে কিন্তু তা স্থানীয় সরকারের অর্থনৈতিক শক্তি দুর্বল করে দেয়। অন্যদিকে স্থানীয় সরকারের কাঁধে জন প্রশাসনের দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে এবং যে কোন কাঠামো নির্মাণের জন্য তাদের কাছে কোন বাড়তি আয়ের ব্যবস্থা নেই। এর ফলে তাদের টাকা ধার করতে হয়। ২০০৮ সালের শেষে নেওয়া নীতি স্থানীয় সরকারকে অর্থনৈতিক কাঠামো নির্মাণ ও ঋণ করতে উৎসাহ প্রদান করে। এমনকি উন্নয়ন পরিকল্পনায় ঋণ পাবার জন্য জেলা (কাউন্টির) পর্যায়ের সরকার অর্থনৈতিক পরিকল্পনা তৈরিতে যোগ দিয়েছে।

6月23日,审计署公 布的报告显示,地方债务总体规模较大,存在风险,一些债务风险较为集中的地区债务余额超过本级财政可用财力的100%…

২৩ জুন জাতীয় হিসাবরক্ষণ দপ্তর (ন্যাশনাল অডিট অফিস) ঘোষণা দিয়েছে যে স্থানীয় পর্যায়ে ঋণ নেওয়া সমাজে ঝুঁকির পরিমাণ বাড়িয়ে ফেলছে। কোন কোন ক্ষেত্রে স্থানীয় পর্যায়ে ঋণের পরিমাণ সরকারের ক্ষমতার চেয়ে ১০০ ভাগ বেশি…

এই পরিস্থিতিকে উন্নত করার জন্য ইয়েহ কাই বেশ কিছু গঠণ মূলক পরামর্শ প্রদান করছে:

1、  适度降低政府财政收入在GDP中的比重,还富于民。…
2、  建立更透明的财政收支监督管理体系。加大财政信息公开的力度,大力提高财政收支透明度。…
3、  优化财政支出、压缩行政办公费用、加大民生投入。民间对财政收支疑问颇多,其实关键还在财政收入的使用去向。如果财政收入的大头都切实的投向民生,民众是 欢迎的。但是,我们的财政收入中的相当部分却作为各级政府的行政办公费用,具体多少无从查考,但从庞大的公务员和事业编制、豪华的行政办公楼、以及各级官 员乘坐的车子来看,民众的疑问是有道理的。从另一方面,在社会保障、医疗、教育等方面的投入仍然不足,突出的表现是看病难、上学难、退休养老难。…中央政府有必要出台统 一性措施,硬性规定社会保障、医疗、教育在政府财政收入中的占比,并逐年提高,只有暂时采用强制性措施,才能切实加大民生投入,压缩行政办公费用,增进社 会的和谐稳定与健康发展。

১ জিডিপিতে রাজস্ব আয়ের অংশের পরিমাণ কমিয়ে আনা, জনতার মাঝে সম্পদকে রেখে দেওয়া
২ রাষ্ট্রীয় অর্থনীতিতে একটি স্বচ্ছ পদ্ধতি তৈরি করা। রাষ্ট্রের বাজেট ও ব্যয়কে অবশ্য স্বচ্ছ রাখতে হবে এবং জনতাকে সে সব তথ্য পাবার অধিকার প্রদান করতে হবে…
৩. প্রশাসনিক ব্যয় কমিয়ে আনা এবং মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে আরো বেশি ব্যয় করা। রাষ্ট্রের আয় এবং ব্যয়ের ব্যাপারে জনগণের সন্দেহ রয়েছে। মানুষের জীবন যাত্রার ব্যয়ে খরচ করার বিষয়টিকে জনতা স্বাগত জানাবে, কিন্তু এই মূহূর্তে আমাদের রাষ্ট্রীয় আয়ের একটা বড় অংশ স্থানীয় সরকারের প্রশাসনের পেছনে ব্যয় হয়। সরকারি চাকরিজীবীদের ব্যয়ের মধ্যে দিয়ে আমরা ব্যাপারটি দেখতে পাই, বিলাসবহুল সরকারি বাড়ি ও গাড়ি, অন্যদিকে সামাজিক নিরাপত্তার ক্ষেত্রে সরকারের বিনিয়োগ একেবারে অপর্যাপ্ত। হাসপাতাল, বিদ্যালয় এবং অবসর জীবন যাপনের পর কোন কিছু উপভোগ করার জন্য তাদের কোন টাকা নেই… কেন্দ্রীয় সরকারকে এমন নীতি চালু করতে হবে যা সরকারের আয়ের যে অংশ সরকারি কাজে সেই ব্যয়ের পরিমাণ নিয়মিত যাচাই করে দেখা হয় এবং সরকারকে ধারাবাহিকভাবে জনকল্যাণ খাতে ব্যয়ের পরিমাণ বাড়িয়ে তুলতে হবে, এক সমতা ভিত্তিক ও স্বাস্থ্যকর সমাজ গড়ার জন্য।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .