বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

উরুগুয়ে: যে কাগজ তৈরির কারখানা নিয়ে আর্জেন্টিনার সাথে দ্বন্দ্ব, আন্তর্জাতিক আদালত তার উপর রায় প্রদান করেছে

২০ এপ্রিল, ২০১০-এ, নেদারল্যান্ডের শহর হেগে অবস্থিত আন্তর্জাতিক আদালত উরুগুয়ের বিরুদ্ধে আদেশ জারী করে যে দেশটি রিও উরুগুয়ে নদী ব্যবহারের ক্ষেত্রে আর্জেন্টিনার সাথে যে যৌথ চুক্তি করেছিল সেটি লঙ্ঘন করেছে। হেগের আদালত রায় প্রদান করেছে যে উরুগুয়ে তার দেশে একটি কাগজের মণ্ড কারখানা তৈরি করার সময় আর্জেন্টিনার সাথে আলোচনা না করে চুক্তি লঙ্ঘন করেছে। তবে আদালত কারখানাটি বন্ধ করা বা তাকে নতুন এলাকায় স্থানান্তর করার বিষয়টিকে প্রয়োজনীয় বলে মনে করছে না, কারণ আর্জেন্টিনা যথেষ্ট প্রমাণ উপস্থাপন করতে পারেনি, যাতে প্রমাণিত হয় যে কারখানাটি উভয় দেশের ব্যবহার করা এই নদীর পানি দূষিত করছে।

The International Court of Justice at The Hague. Photo uploaded by Flickr user Alkan Chaglar and used under a Creative Commons license.

হেগের আন্তর্জাতিক আদালত। এখানে ছবি জমা দিয়েছেন, ফ্লিকার ব্যবহারকারী আলকান চাগলার এবং ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সের আওতায় ব্যবহার করা হয়েছে।

উরুগুয়ে এবং আর্জেন্টিনা যথেষ্ট মনোযোগের সাথে এই রায় পর্যবেক্ষণ করছে। তারা এই আদেশ শোনা এবং পাঠের অপেক্ষায় ছিল এবং এই বিষয়টি উরুগুয়ে এবং আর্জেন্টিনার মধ্যে অনেক বছর ধরে চলা এক দ্বন্দ্বের উৎস

উরুগুয়ের ব্লগাররা এই আদেশটি নিয়ে মন্তব্য করেছে এবং তারা তাদের বিশেষ দৃষ্টিকোণ থেকে এই রায়কে বিশ্লেষণ করছে। উরুগুয়ের ব্লগ লাস কোসাস ডে নেস্টার [স্প্যানিশ ভাষায়] হেগের বিচারালয়ে উচ্চারিত রায়ের ভেতরে প্রবেশ করেছে, তারা এটিকে আরো গ্রহণযোগ্য ভাবে তৈরি করেছে। পিয়া লোপেজ [স্প্যানিশ ভাষায়] এই পোস্টে এই বলে মন্তব্য করেছে:

Lo que hay que rescatar de este asunto es que NO se puede continuar con esta falta de colaboración (mutua), y que como uruguaya me sentiría más que orgullosa si Argentina acepta mejorar las medidas de control y monitoreo pero CONJUNTAMENTE con Uruguay.

এই বিষয় থেকে বের হয়ে আসার জন্য আমাদের যে চিন্তার প্রয়োজন, তা হল, যৌথ সহযোগিতার অভাবের মধ্যে দিয়ে এই সম্পর্ক চালিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। একজন উরুগুয়েবাসী হিসেবে আমি গর্ব অনুভব করবো যদি আর্জেন্টিনা এই নিয়ন্ত্রণ এবং অতিরিক্ত পরিমাপের বিষয়টির উন্নয়ন ঘটায়, তবে তা করতে হবে উরুগুয়ের সাথে মিলিত হয়ে।

হেগে যেদিন এই রায়ের আদেশ জারি হয়, ঠিক তার পরের দিন একই ব্লগ আরেকটি প্রবন্ধ প্রকাশ করে, যার শিরোনাম “দি ডে আফটার” [স্প্যানিশ ভাষায়], যেখানে এই রায়ের ব্যাপারে ভিন্ন প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করা হয়, যার মধ্যে তাদের নিজস্ব মতামতও ছিল:

Y nosotros, los comentaristas del blog, quedamos en algún caso con huevo en la cara (yo, por haber predicho que Uruguay no violó el Estatuto), otros indignados, otros resignados, pero espero que todos convencidos de que es una nueva ocasión de empezar a acercar a nuestros dos países.

এবং আমরা যারা এই ব্লগের মন্তব্যকারী, কোন কোন ক্ষেত্রে আমাদের মুখে পঁচা ডিম ছুড়ে মারা হয়েছে (উরুগুয়ে এই চুক্তি ভঙ্গ করেনি, এ কথা বলার পর স্বয়ং আমার উপর এই আঘাত আসে)। অন্যদের কেউ ক্ষিপ্ত, কেউ আবার এই রায় হাসিমুখে মেনে নিয়েছে, তবে আশা করা যায় যে আমরা সবাই এ ব্যাপারে বিশ্বাস করছি যে, আমাদের এই দু'টি রাষ্ট্রকে একসূত্রে বাঁধার ক্ষেত্রে এটা একটা সুযোগ।

অনেক উরুগুয়েবাসী এই রায়কে জাতির জন্য বিজয় হিসেবে দেখছে। ব্লগ নোটিসিয়াস পারা উরুগুয়াস পোর এল মুন্ডো [স্প্যানিশ ভাষায়] (সারা বিশ্বের উরুগুয়েবাসীর জন্য সংবাদ) তাদের সংবাদ প্রকাশের সময় এর শিরোনাম দেয় “হেগের আদালতে আমরা জয়ী”।

উরুগুয়ের সাংবাদিক ও ব্লগার এন্টোনিও আলভারেজ [স্প্যানিশ ভাষায়] তার ব্লগে একটি প্রবন্ধ লিখেছেন যেখানে হেগের এই মামলার রায়ের প্রতিক্রিয়া এবং বড় আকারে দ্বন্দ্বের বিষয়টি তুলে ধরেন। এই প্রবন্ধের শিরোনাম “ফ্রেই বেনটোস নো ক্রি লাগরিমাস” (ফ্রেই বেনটোস কান্নায় বিশ্বাস করে না)। এই প্রবন্ধটি তিনি ফ্রেই বেনটোস শহর থেকে পাঠান, যে শহরটিতে উরুগুয়ের এই কাগজের মণ্ড তৈরির কারখানাটি অবস্থিত।

আলভারেজ বলেন এই তিন বছরে অন্তত ৪০ টি নতুন ধরনের ব্যবসা চালু হয়েছে। এর জন্য এই কারখানাটিকে ধন্যবাদ; এছাড়াও তিনি জানাচ্ছেন যে এই কারখানা চালু হবার প্রভাবে এখন ফ্রেই বেনটোস-এ এখন আগের চেয়ে বেশি রেস্তোরা, ব্যাংক, ভালো মানের স্কুল বা বিদ্যালয় (যার অনেকগুলো দ্বিভাষিক) এবং সুপার মার্কেট তৈরি হয়েছে।

Le pregunto a Leticia, una joven madre que está con su hijo en el acto si no es significativo este aire solemne a 24 horas del fallo.

“Aquí nadie da bolilla a lo que pase en La Haya. ¿Qué nos pueden decir a nosotros unos señores que usan peluquines y están a 20.000 kilómetros de acá? La verdad, nada”.

En Fray Bentos, Botnia quiere decir solución, una salida económica, algo en lo que ya ni se piensa porque está incorporado al paisaje y a la vida.

অনুষ্ঠানের দিন আমি লেটেসিয়া নামের এক তরুণী মাতাকে প্রশ্ন করেছিলাম। সে তার সন্তান সহ এখানে এসেছিল (১৯ এপ্রিল দিনটি উরুগুয়েতে একটি গুরুত্বপূর্ণ ছুটির দিন হিসেবে উদযাপন করা হয়)। এটা কি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নয় যে, এই রায়ের ২৪ ঘন্টা আগে এখানে একটা উৎসবমুখর পরিবেশ ছিল।

“হেগে কি হচ্ছে তা নিয়ে এখানে কারো মাথাব্যথা নেই। পরচুলা পরা লোক, যারা এখান থেকে ২০,০০০ কিলোমিটার দুরে বাস করে, তারা আমাদের কি বলবে? আসলে কোন কিছুই বলবে না”।

ফ্রেই বেনটোস (কারখানাটি যেখানে অবস্থিত)-এ বোটনিয়া মানে সমাধান, অর্থনৈতিকভাবে পলায়নপর মনোবৃত্তি ধারণ করা। এটি এমন এক বিষয়, যার সম্বন্ধে লোকজন আর ভাবতে চায় না, কারণ এই বিষয়টি এখনকার প্রেক্ষাপট ও জীবনযাত্রার সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে।

তিনি ফ্রেই বেনটোস এবং তার প্রতিবেশি আর্জেন্টিনার শহর গুয়ালেগুয়াইচুর মধ্যে সম্পর্কের বিষয় নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করেছেন:

Botnia dio mucho al producto bruto pero también desató fuertes costuras entre una y otra orilla.

Fray Bentos y Gualeguaychú son una misma etnia, una misma geografía, un paseo corto inevitable para los fines de semana.

Para Fray bentos, Gualeguaychú suponía los mismos bailes, una televisión compartida, una misma forma de hablar, de entender la vida al costado del río.

Sin embargo, esos árboles genealógicos fueron convertidos en celulosa, y sólidas amistades sólidas terminaron descompuestas por las supuestas amenazas del ácido sulfhídrico.

সামগ্রিক ভাবে বোটনিয়া প্রাকৃতিক পণ্য প্রচুর উৎপাদন করে, কিন্তু তা একই সাথে দুই তীরের মধ্যে এক শক্তিশালী বন্ধন তৈরি করে।

ফ্রাই বেনটোস এবং গুয়ালেগুয়াইচুর লোকেরা একই গোত্র থেকে উদ্ভূত, একই এক অঞ্চলের বাসিন্দা, তাদের এলাকা সেই এক সংক্ষিপ্ত অদম্য যাত্রার পথ।

ফ্রাই বেনটোস-এর ক্ষেত্রে, গুয়ালেগুয়াইচু মানে একই ধরনের নৃত্য, একই ধরনের টিভি অনুষ্ঠান, একই ভাবে কথা বলা এবং নদীর ওপারের জীবনকে বুঝতে চেষ্টা করা।

তবে, এই জীনগত গাছগুলো এখন কোষে রুপান্তরিত হচ্ছে এবং নিখাঁদ বন্ধুত্বে পচন ধরেছে, সম্ভবত সালফরিক এসিড বৃষ্টির কারণে।

A sticker placed on a thermus (next to the traditional drink Mate) reads, "Group of Uruguayans residing in Gualeguaychu say: Yes to the union of brotherly people." Photo uploaded by Flickr user sebaperez and used under a Creative Commons license

থার্মোফ্লাক্সে একটি স্টিকার লাগানো রয়েছে ( যা ঐতিহ্যবাহী পানপাত্রের পাশে দাঁড়িয়ে), এর বাণীটি পড়ুন, “যে সমস্ত উরুগুয়েবাসী গুয়ালেগুয়াইচু এলাকায় বাস করে, তারা বলছে, ভ্রাতৃসুলভ এক সংঘের প্রতি হ্যাঁ” “ছবি তুলেছেন ফ্লিকার ব্যবহারকারী সেবাপেরেজ এবং ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্স এর অধীনে তা ব্যবহার করা হয়েছে।

এই রায়ের পর, উরুগুয়ে এবং আর্জেন্টিনা এখন এমন দু'টি দেশ হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে, যারা দ্বন্দ্বের মধ্যে দিয়ে নি:সঙ্গ রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে। ব্লগ ভামোস এ আন্ডার [স্প্যানিশ ভাষায়]-এ আলেজান্দ্রো সংবাদপত্রের উদ্দেশ্য লেখা এক খোলা চিঠি-যেখানে সবাইকে স্বাক্ষর করার জন্য অনুরোধ করেন-সেখানে তিনি দু'টি দেশের মধ্যে যৌক্তিকতা, শ্রদ্ধা এবং প্রতিবেশিসূলভ সম্পর্ক পুনরুদ্ধারের আহ্বান জানান ।

Se ha cerrado una etapa. El Tribunal ha marcado una guía a seguir, la de la racionalidad, la de la cooperación, la de la no agresión, la de la buena fe. Ha defendido el derecho de los países a aprovechar sus recursos naturales para desarrollarse, en la forma que entiendan conveniente, siempre que respeten los derechos de sus vecinos.

একটি অধ্যায়ের সমাপ্তি হল। এই আদালত একটি অনুসরণীয় রাস্তা তৈরি করে দিয়েছে, যা এক যৌক্তিক, সহযোগিতামূলক এবং আক্রমণাত্বক নয়, সরল বিশ্বাসে তারা এই রায় তৈরি করেছে। মনে রাখতে হবে এই রায়ে প্রতিবেশী দেশের অধিকারের প্রতি শ্রদ্ধা প্রকাশ করা হয়েছে।

উরুগুয়ের রাষ্ট্রপতি জোসে মুজিকা এবং আর্জেন্টিনার রাষ্ট্রপ্রধান ক্রিস্টিনা ক্রিচনার এই রায়ের বিষয় নিয়ে এবং এ ক্ষেত্রে পরবর্তী কি পদক্ষেপ নেওয়া যেতে পারে তা নিয়ে এক আলোচনায় বসতে রাজি হয়েছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .