বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

কলম্বিয়া: সেনুদের ঐতিহ্য আর সংস্কৃতি পুনরুদ্ধার

নুয়েভোস ডেসিমেরোস লোগো

নুয়েভোস ডেসিমেরোস লোগো

কলম্বিয়ার সেনু গোত্রের আদিবাসীরা তাদের গোত্রের মানুষের সাক্ষাৎকার নিয়েছেন আর খাদ্যের ব্যাপারে নানা গল্প একত্র করে সংক্ষিপ্ত ভিডিওর মাধ্যমে প্রকাশ করেছেন: যেমন ঐতিহ্য, রেসিপি আর তারা কি খান আর কেন খান সে বিষয়ে। তিনটি ভিন্ন গোত্রে অডিওভিজুয়ালের একটা দল সেনুদের শেখাচ্ছেন কিভাবে ক্যামেরা ব্যবহার করা যায়, গল্প লেখা আর তাদের গল্প শোনানো যায়, যার ফলশ্রুতিতে ৩টি ডকুমেন্টারি নির্মিত হয়েছে।

দ্যা নুয়েভোস ডেসিমেরোস (নতুন গল্প কথক) হচ্ছে জুলিয়ানা পানিয়াগুয়ার একটা প্রকল্প আর অত্রোচুয়েন্টো হচ্ছে স্বাধীন একটা চলচ্চিত্র নির্মাতা দল যারা অডিওভিজুয়াল বিষয় সম্পর্কে প্রশিক্ষন, তদন্ত আর উন্নয়ন করে থাকেন। এই প্রকল্প সরকারের জাতীয় অডিওভিজুয়াল পরিকল্পনার সহায়তায় পরিচালিত যাদের লক্ষ্য হচ্ছে কলম্বিয়ানদের অডিওভিজুয়াল সংস্কৃতির কাছে আনা আর বিভিন্ন কার্যের মাধ্যমে তাএই মাধ্যমকে তুলে ধরা।

নুয়েভোস ডেসিমেরোস ভিমিও চ্যানেলে তারা কেবলমাত্র সংক্ষিপ্ত ডকুমেন্টারি আপলোড করে নি, বরং কর্মশালার পিছনের ঘটনাবলির ভিডিও সন্নিবশিত করেছে।

লা ১৮ জারাগোজার আদিবাসী মানুষদের তৈরি ডকুমেন্টারি, এন্টিকুয়া গোত্র হিসাবে তাদের পরিচয়ের উপরে ভিত্তি করে ছিল। তাদের ব্লগ প্রশিক্ষকেরা ব্যাখ্যা করেছেন:

Los de La 18 rastrearon el mito del Yacabó, un pájaro símbolo de creciente y muerte para los indígenas Senú, además narraron la preparación del “Moncholo” uno de los principales alimentos de la comunidad, y de la “Chicha de Masato”, una bebida tradicional.

লা ১৮ এর মানুষ ইয়াকাবোর কল্পকাহিনী খুঁজে বের করেছে, একটি পাখি যেটা বাড়তে থাকা নদীর পানি আর সেনু ইন্ডিয়ানদের জন্য মৃত্যুর প্রতীক। এ ছাড়া তারা গোত্রের প্রধান একটা খাবার ‘মোঞ্চোলো’ আর আর ঐতিহ্যগত পানীয় ‘চিচা দে মাসাতো'র বানানো ব্যাখ্যা করেছেন।

পুয়েত্রো বেগিচার মানুষ ভূমি থেকে শুরু করে খাদ্যের ব্যাপারে কথা বলেছেন: পারিবারিক ক্ষেত থেকে যেখানে খাদ্য রোপন করা হয় ঐতিহ্যগত রীতি হিসাবে, ভূমির উর্বরতা রক্ষা আদিবাসীদের শারীরিকভাবে বেঁচে থাকার জন্যই কেবল গুরুত্বপূর্ণ না বরং সংস্কৃতি হিসাবেও দরকারী।

পুয়ের্তো ফ্লেভারে এল বাগ্রেতে এন্টিকিও গোত্রের দল জোর দিয়েছেন ওই এলাকায় প্রথম আদিবাসী দলের আগমনের ব্যাপারে ডকুমেন্টারিতে আর খাদ্যের ঐতিহ্য নিয়ে প্রশ্ন করেছেন। মানুষ তাদের নিজেদের খাদ্য উৎপাদনের গুরুত্ব নিয়ে কথা বলেছেন যার মধ্যে চাল, বিন আর ভুট্টা রয়েছে আর এই ভুট্টা তারা কিভাবে ঐতিহ্যগত খাবারে ব্যবহার করেন, চাষ করা অন্য ধরনের ভুট্টা না। তারা অবশ্য বলেছেন কিছু ঐতিহ্য কিভাবে প্রতিস্থাপিত হচ্ছে, খাদ্যসহ, নির্মান কৌশল আর ঐতিহ্যগত ডাক্তার যারা চিকিৎসার জন্য গাছ ব্যবহার করেন আর কিভাবে তারা চেষ্টা করছেন তাদেরকে সেনু পথে চালাতে, সেটা না হারাতে যা তাদেরকে আদিবাসী করেছে।

এই ছোট ফটো-ভিডিওতে একদল সেই প্রক্রিয়া বোঝাচ্ছেন যেভাবে চাল উৎপন্ন হয়, চাষ হয় আর পুয়ের্তো বেল্গিচার গোত্রে খাওয়ার যোগ্য করা হয়:

পুয়ের্তো বেল্গিচাতে অনেক গোত্রীয় স্বার্থ আছে বিশেষ করে বাচ্চা আর তরুণদের মধ্যে, তাই তারা অনেক দলে ভাগ হয়ে গেছেন জিনিষ তৈরি করতে আর উপরের ভিডিও এইভাবে তৈরি হয়েছে উদাহরণস্বরূপ। ছোট এই ডকুমেন্টারির তৈরির পিছনের কাহিনী এখানে:

ডকুমেন্টারিগুলো কমিউনিটিতে দেখান হয়, যারা এই সুযোগ নেয় এই অভিজ্ঞতা অন্যদেরকে জানাতে আর আপনারা এখানে তার ছবি দেখতে পারেন। এই ডকুমেন্টারি মেডেলিন, কলম্বিয়াতে ঘুরবে আর জাতীয় চলচ্চিত্র প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করবে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .