বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

কাতার: আগমন কালে বন্দরে প্রাপ্ত ভিসা ব্যবস্থা বাতিলের পরিকল্পনায় বিদেশিরা ক্ষুব্ধ

আগামী পহেলা মে থেকে বেশ কয়েকটি দেশের পর্যটকদের বিমানবন্দরে ভিসা নেয়ার পরিবর্তে তাদের দেশ থেকেই নিয়ে আসতে হবে।  ছবি জেমি স্যান্ডফোর্ডের।

আগামী পহেলা মে থেকে বেশ কয়েকটি দেশের পর্যটকদের বিমানবন্দরে ভিসা নেয়ার পরিবর্তে তাদের দেশ থেকেই নিয়ে আসতে হবে। ছবি জেমি স্যান্ডফোর্ডের।

স্থানীয় সংবাদের এক রিপোর্ট প্রকাশিত হবার পরে গুজব ভাসছে যে কাতার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে বেশ কয়েকটি দেশের জন্য আগমন কালে বন্দরে প্রাপ্ত ভিসা ব্যবস্থা বাতিলের।

গাল্ফ টাইমস অনুসারে, এই পরিবর্তন যা পহেলা মে থেকে কার্যকর হওয়ার কথা, সেখানে ইউরোপিয়ান, পশ্চিমা আর এশিয়ার ৩৩ টি দেশের নাগরিকদের কাতারে আসার আগে তাদের দেশের কাতার দূতাবাসের সাথে যোগাযোগ করে ভিসা নিয়ে আসতে হবে ।

যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটিশ আর ফরাসী দূতাবাস দোহাতে জানিয়েছেন যে তাদের নাগরিক এই পরিবর্তনের মধ্যে পড়বেন, কিন্তু অন্যান্য দেশের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন তারা এখনো খোঁজ করছেন।

টুইটারে এই সংবাদ হতাশার সাথে অনেক দোহাবাসী গ্রহন করেছেন।

কিছু ব্লগার মনে করছেন এই পরিবর্তন ‘পারষ্পরিক লেনদেন’ এর কারনে হচ্ছে এবং এটি একটি প্রতিক্রিয়া সেই সব দেশের জন্য যেখানে যেতে কাতারিদের ভিসা লাগে।

কাতার থেকে মার্জোরি বলেছেন:

এটা কাতারের নতুন ‘পারষ্পরিক লেনদেন’ নীতির এর ধাক্কা। কয়েক মাস আগে তারা ‘পারষ্পরিক লেনদেন’ নীতি গ্রহন করে গাড়ী চালকের লাইসেন্সের ব্যাপারে: আমেরিকার লাইসেন্স এমনিতেই কাতারি লাইসেন্সে পরিণত করা যাবে না, কারন আমেরিকা কাতারি লাইসেন্স আমেরিকার লাইসেন্সে পরিবর্তন করে না।

অন্যরা মনে করছেন গত জানুয়ারি মাসে হামাস নেতা মাহমুদ আল মাভুর হত্যার পরে এটি কাতারের সীমান্তকে নিরাপদ করার একটি পদক্ষেপ। ধারণা করা হয় তাকে হত্যা করেছে নকল ইউরোপিয়ান আর ব্রিটিশ পাসপোর্টধারীরা। দুবাই ইজরায়েলের গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদকে দোষারোপ করেছে।

টুইটারে, ইবনে কাফকা বলেছেন:

মোসাদের দুবাই হত্যাকান্ডের সাথে এটি সম্পৃক্ত?

জনপ্রিয় অনলাইন ফোরাম কাতার লিভিং এ, নীতি পরিবর্তন নিয়ে লেখা একটি পোস্ট ১০০টির বেশী মন্তব্য পেয়েছে। ব্লু বলেছেন:

আসলে, এটা দুবাইতে যা হয়েছে তার পরে সাময়িক একটা ব্যবস্থা হতে পারে…এটা যে কোন কিছু হতে পারে।

জেনেসিস আরো বলেছেন:

আমি ব্লুর সাথে এই ব্যপারে একমত যে এটা জাতীয় নিরাপত্তার ব্যাপার হতে পারে। কিন্তু কাতারে প্রায় ইরানী, সিরিয়ান আর হামাস কর্মকর্তারাও আসেন।

ক্যানারিবার্ড লাভের একটা উদ্দেশ্যের কথা বলেছেন:

আমার মনে হয়না কতজন বিদেশী এখানে বাস করেন বা কাজ করেন এটা সেই ব্যাপার, কিন্তু অবশ্যই পুরো অর্থনীতির উপরে প্রভাব পড়বে আর অনেক বিদেশীদের স্ত্রীদের যাদের ভিসা নেই কিন্তু অল্প সময়ের জন্য আসেন, আর অনেকে যারা স্বল্প সময়ের ব্যবসায়িক ভ্রমণের জন্য আসেন। এটি অবশ্যই ভিসা প্রক্রিয়াতে অর্থ যোগাবে।

যে কারনেই হোক, অনেকেই একমত যে কাতারে যেতে যে অতিরিক্ত কাগজ যোগাড় করতে হয় আর অনেক দেশে কাতারের দূতাবাস না থাকা দেশের পর্যটনকে তুলে ধরার প্রচেষ্টাকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে।

কাতার লিভিং এ মন্তব্যকারী ফুবার বলেছেন:

পর্যটন কর্তৃপক্ষ এই সংবাদে নিশ্চয় খুব খুশি। আপনি যদি একটা বহুজাতিক কোম্পানি হতেন যারা পশ্চিমা দেশ থেকে ১০০০ উচ্চ ব্যয় কারী প্রতিনিধিদের জন্য কনফারেন্স আয়োজন করবেন, যেমন সাম্প্রতিক সাইটেস কনফারেন্স, বা একই ধরনের ইউএন কনফারেন্স, আপনি কি কাতারে আসবেন, যেখানে প্রায় সবাইকে ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে, নাকি দুবাইতে যাবেন?

অন্যরা বলেছেন যে এই পদক্ষেপ ব্যবস্থায় ন্যায্যতা এনেছে।

ইউকেইন্জকাতার বলেছেন:

ব্রিটেনে যাওয়ার আগে কাতারিদের ভিসা নিতে হয়। এটা ঘটনা হলে কাতার যা করেছে তা ন্যায়। ব্রিটেন, আমেরিকা আর অন্যান্য ইউরোপিয়ান নাগরিকদের এতে অভ্যস্ত হতে হবে।

এস.অতর বলেছেন:

ন্যায্য পাওনা! অনেকের জন্য আমেরিকা/ব্রিটিশ ভিসা একটা বিভীষিকা। এই ‘৩৩’ দেশের জন্যে কেন এটা সহজ হবে? তারপরেও সাধারণ আমেরিকা/ব্রিটিশ ভিসার থেকে এটা সহজ হবে। পরস্পর সমতাযুক্ত লেনদেন কেবল ন্যায় না সঠিক ।

তারপরেও যারা পরিবার পরিজন থেকে দূরে আছেন চিন্তা করেন যে এইভাবে যোগাযোগ রাখা আরো কঠিন হবে।

মান্দিলুলুর বলেছেন:

আমি জানি গালফে (কাতারে অবস্থিত) প্রায় ছয়জন ব্রিটিশ নাগরিককে যাদের বানিজ্যিক ভিসা আছে। তাদের স্ত্রীরা বাহরাইনে প্রতি মাসে ভিসার জন্য যান। আর নিশ্চয় না। তারা চলে যাবে। এমন ধরনের বিদেশীদের কি আপনারা চলে যেতে দেখতে চান? আসল গুণী বিদেশিরা যেকোন জায়গায় কাজ পাবেন!… মাঝেমাঝে নিজেকে হাঁড়িতে চিংড়ির মতো লাগে- কখন এই ধরনের সিদ্ধান্তের অস্বস্তি কাতারের জন্য আমার ভালোবাসার থেকে কম হবে? আমি আপনাদের একটা জিনিষ বলতে পারি – এটা অবশ্যই সম্ভাব্য পেশাজীবিদের দোহাতে আসা প্রভাবিত করবে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .