বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

কিরগিজস্তান: জাতীয় টেলিকম অপারেটর বিক্রি নিয়ে বিতর্ক

কিরগিজস্তানের প্রথমসারীর ইন্টারনেট ফোরাম ‘ডিজেল‘ এর ব্যবহারকারীরা নিজেরাই তদন্ত করেছেন জাতীয় টেলিকম অপারেটর কিরগিজটেলিকমের শেয়ার বিক্রি সংক্রান্ত অনিয়ম। তাদের কথা অনুসারে এই অপারেটরের নতুন মালিকরা কিরগিজ প্রেসিডেন্ট কুরমানবেক বাকিয়েভের ছেলে ম্যাক্সিমের সাথে সম্পর্কিত, যাকে সম্প্রতি সরকারের গুরুত্বপূর্ণ অর্থনৈতিক পদে নিয়োগ দেয়া হয়

কোন মিডিয়ায় প্রচারের আগে গত ৪ঠা ফেব্রুয়ারী বিকেলে কিরগিজটেলিকমের বড় একটা অংশের বিক্রির খবর ‘ডিজেলে’ আসে।

“২রা ফেব্রুয়ারী তারা বিক্রি করেছেন [কিরগিজটেলিকম] কিন্তু পুরো মিডিয়া চুপ ছিল”, এভাবেই ব্যবহারকারী এস.এস.এস.আর আলোচনাটির শুরু করেন।

এই সংবাদ তার ১২ ঘন্টা পরে নিশ্চিত করা হয়। রাষ্ট্রিয় সম্পদ মন্ত্রী তুরসুন তুরদুমামাতোভ সাংবাদিক সম্মেলন ডেকেছিলেন জানাতে যে জাতীয় অপারেটরের শতকরা ৭৮ ভাগ চার কোম্পানীর একটা কন্সোর্টিয়ামের কাছে টেন্ডার নিলামের মাধ্যমে বিক্রি করা হয়েছে।

চারটের মধ্যে দুটোর নিবন্ধন সাইপ্রাসে, আর একটা কাজাখস্তানে। চতুর্থ কন্সোর্টিয়ামের সদস্য ‘আলা তু কেনি’, কিরগিজ জয়েন্ট স্টক কোম্পানী। ‘ডিজেলের’ সদস্যরা শেষেরটার দিকে তাদের দৃষ্টি নিবন্ধ করেছেন।

মন্ত্রীর বক্তব্যের দুই ঘন্টা পরে ব্যবহারকারী মাকা কিরগিজ বিচার মন্ত্রণালয়ের অনলাইন ডাটাবেজ থেকে তথ্য পোস্ট করেছেন। এই তথ্য অনুসারে ‘আলা তু কেনির’ মালিক আদাই রুস্তেমোভ।

অন্যান্য ব্যবহারকারীরা সাথে সাথে দেখিয়ে দিয়েছেন যে একই ব্যক্তি “এমজিএন ক্যাপিটাল’ কোম্পানির পরিচালক হিসাবে তালিকাভুক্ত, যার অধিকার আছে কিরগিজ প্রজাতন্ত্রের উন্নয়ন ফান্ড পরিচালনা করার।

পরিশেষে, এই উন্নয়ন ফান্ড বিনিয়োগ, উন্নয়ন আর আবিষ্কারের কেন্দ্রীয় এজেন্সির সাথে সরাসরি সম্পর্কিত, নতুন সৃষ্ট রাষ্ট্রীয় অংশ যার নেতৃত্বে আছেন মাক্সিম বাকিয়েভ।

মজার ব্যাপার হলো, ২০০৯ সালে রাশিয়ার ম্যাগাজিন ‘স্ট্যান্ডার্ড’ লিখেছিল যে এম. বাকিয়েভ কিরজিগটেলিকমকে বেসরকারীকরণ করতে চাচ্ছেন এবং ‘ডিজেল’ এর সদস্যরা সেই রিপোর্ট থেকে উদ্ধৃতি দিয়েছে:

“ম্যাগাজিন অনুসারে, প্রেসিডেন্টের ছেলে মাক্সিম বাকিয়েভ বেসরকারীকরণ প্রক্রিয়াতে যুক্ত হয়েছেন। ‘স্ট্যান্ডার্ডের’ কিরগিজ সূত্র জানিয়েছে যে এম. বাকিয়েভ কিরগিজটেলিকমে নিয়ন্ত্রণ পেতে চান।”

ডিজেলের সদস্য মোগুল ‘বিষণ্ন’ বোধ করছেন রাষ্ট্রিয় সম্পত্তির গোত্রগত বাটোয়ারায়। ব্যবহারকারী জুমলা ভয় পাচ্ছেন যে ‘ফোন ট্যাপ করা হবে কিরগিজ বিশেষ পুলিশ দ্বারা’, কারন আদাই রুস্তেমোভ একজন কাজাখ নাগরিক।

ডিজেলের সদস্য ই-২২০ প্রস্তাব করেছেন:

“মাক্সিম বাকিয়েভকে সাবাস দেন মানুষের পক্ষ থেকে সাম্প্রতিক ক্রয়ের ব্যাপারে। তিনি জানেন রাশিয়ান সরকারের অর্থ কিভাবে ব্যবহার করা যায়।”

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .