বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ভারত: পুনেতে সন্ত্রাসী হামলা

ছবি টুইট পিক থেকে http://twitpic.com/photos/abhi_bol

ছবি টুইট পিক থেকে http://twitpic.com/photos/abhi_bol

১৩ই ফেব্রুয়ারী শনিবার সন্ধ্যা ০৭:৩০ মিনিটের দিকে ভারতের পশ্চিমের পুনে শহরের নামকরা একটা রেস্টুরেন্টে বোমা হামলার ফলে ৯ জন নিহত আর ৫৭ জন আহত হয়েছেন। বোমা পরিত্যক্ত পিঠে ঝোলানোর একটা ব্যাগে ছিল আর রেস্টুরেন্টের একজন ওয়েটার এর ভিতরে কি আছে দেখতে গেলে বিষ্ফোরণটি ঘটে। শশী বেলামকোন্ডা তার ব্লগ মাই ডিজিটাল থটসজানিয়েছেন:

কয়েক ঘন্টা আগে (১৩ই ফেব্রুয়ারী ২০১০) ভারতের পুনের জনপ্রিয় ক্যাফে ‘জার্মান বেকারি’তে বোমা বিষ্ফোরণ ঘটে। এটা পোস্ট করার সময়ে প্রেস জানাচ্ছে যে ৮ জন নিহত আর ৪০ জন আহত হয়েছে এই বিষ্ফোরণের ফলে কিছু দেহ পুড়ে গিয়ে চেনা যাচ্ছে না। এই বেকারি বিদেশী পর্যটকদের মধ্যে বেশ জনপ্রিয়।

শশী আরো বলেছেন:

প্রাগম্যাটিক ইউফোনি সাবধান করেছেন:

জেহাদিরা আবার আক্রমণ করেছে ভারতের মূল ভুমিতে; এইবার পুনেতে, নভেম্বর ২০০৮ এ মুম্বাইতে জঘন্য হামলার এক বছরের কিছু সময় পরে। প্রাথমিক প্রতিক্রিয়া হিসেবে যা সব থেকে সম্ভাব্য আর গ্রহনযোগ্য তা হল যে এই বিষ্ফোরণ পাকিস্তানে অবস্থিত জেহাদী দলের কাজ, আর এর ফলে সাড়া ছিল ঘৃণার। এর ফলে বোঝা যায় যে রাগ চড়ে যাচ্ছিল মানুষের। আর এই মনোভাব আরো বেড়ে যেতে পারে যখন ভারতের প্রধান ধারার মিডিয়া মানুষের আবেগ উস্কে দিয়ে প্রয়োজনের থেকে বেশী এটা প্রচার করে।

মানুষে পাকিস্তানের সাথে সম্পর্ক এরই মধ্যে খুঁজে পাচ্ছেন। অফস্টাম্পড জানিয়েছে যে পুনের বিষ্ফোরণ লস্কর-এ-তাইয়েবার হুমকির পরে হয়েছে। পাকিস্তানে অনুমতিপ্রাপ্ত একটি জন সমাবেশে লস্কর –এ- তাইয়েবার উচ্চ পর্যায়ের এক নেতা পুনের নাম নিয়েছে পরবর্তী লক্ষ্য হিসেবে। দ্যা অ্যকর্ন বলেছে:

লস্কর-এ-তাইয়েবার হুমকি সত্ত্বেও এখনই পাকিস্তানী এই মিলিটারি-জিহাদি চক্রকে হামলার দায়ভার দেয়া সম্ভব না। কিন্তু এটা পরিষ্কার যে এই পাকিস্তানী মিলিটারি- জিহাদি চক্রের ভারতে সন্ত্রাসবাদের মাধ্যমে অশান্তি ছড়ানোর অভিসন্ধি আছে। ‘পুর্বের অশান্তির’ বাহানা ছাড়া, ওয়াশিংটনের কাছে পাকিস্তানের তালিবানদের সম্পর্কে তাদের দ্বৈত নীতি ব্যাখ্যা করার কিছু থাকবে না।

দিলিপ ডি'সুজা তার ডেথ এন্ডস ফান ব্লগে মনে করিয়ে দিয়েছেন যে ভারতের উচিত দেশে বাড়তে থাকা সন্ত্রাসের ব্যাপারেও কিছু করা:

যতক্ষণ না আমরা দেশে বাড়তে থাকা সন্ত্রাসকে বুঝতে পারছি- যা বাইরের থেকে কোন অংশে কম না- আর যতক্ষণ না আমরা সব ধরনের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে দাঁড়াই, আমরা কখনো সন্ত্রাসবাদ দমন করতে পারবো না।

টুইটার জগত টুইট আর রিটুইটে ভরা ছিল যা এই সংবাদ ছড়াচ্ছিল। এখানে কিছু প্রতিক্রিয়া আছে:

ইন্ডিয়াহ্যাপেনিং: ৯ জন নিহত, ৩২ আহত পুনে সন্ত্রাসী হামলায় http://bit.ly/arLssZ #ইন্ডিয়া

আর_শেখাওয়াত: আমার শহর পুনেতে সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে – আবার নিরাপরাধ মানুষ কিছু বেখেয়াল সন্ত্রাসী দ্বারা নিহত হলেন। পুনে, মহান শহর, আহত ও ক্ষতবিক্ষত।

প্রাগম্যাটিক_রেবেল: ভ্যালেন্টাইন দিবসের দু:খজনক আরম্ভ পুনেতে! এখনো বিষ্ফোরণে নাড়া খেয়ে আছি, আমি আশা করি ভারত এবারে সত্যিকারের আলাদা কিছু করবে।

ভুবন_চেলসি: ভারতের দরকার ব্যাটম্যানের মতো কোন বীরের – খবরদারি করার জন্য।

টুইটসম্রাট: সম্প্রতি পুনে বোমা বিষ্ফোরণে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য প্রার্থনা করছি।

নেহাশশী: রিটুইট @দিপিতগাঞ্জু: জাহাঙ্গির হাসপাতাল পুনেতে রক্ত দরকার এবি+ আর বি+ যোগাযোগ করুন: ১০৬৬। যারা পুনেতে আছেন, দয়া করে খবরটি ছড়িয়ে দিন।

_ইন্ডিয়া_: পাকিস্তানের সাথে আলোচনায় পুনে বিষ্ফোরণ কালো ছায়া ফেলেছে।

সন্দেহ নেই পুনের বিষ্ফোরণ ভারত আর পাকিস্তানের মধ্যকার সম্প্রতি আলোচনাতে প্রভাব ফেলবে। কিন্তু মনে হচ্ছে সন্ত্রাসীরা সুবিধাজনক অবস্থায় আছে কারণ চতুর্দিকে আবেগ দিয়ে সবাই ঘটনা বিচার করছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .