বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

চিলি: পিনেরার জয়ে পিনোশের প্রভাব নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে

১৭ জানুয়ারি, ২০১০-এ সেবাস্তিয়ান পিনেরা চিলির পরবর্তী রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হলেন। ২০ বছর দেশটিতে বামপন্থী মনোভাবাপন্ন সরকার শাসন করার পর তিনি নির্বাচিত হলেন। দেশটির স্বৈরশাসক আগুস্তো পিনোশের একনায়কতান্ত্রিক শাসনের অবসানের পর বাম দলের শাসন ছিল গণতন্ত্রের পথে উত্তরণের এক প্রতীক। স্প্যানিশভাষী ব্লগ এবং অনলাইন প্রচার মাধ্যম বর্তমানে নির্বাচিত রাষ্ট্রপতি পিনেরা এবং মৃত স্বৈরশাসক পিনোশের মধ্যে সম্পর্ক নিয়ে আলোচনা করছে; অনেক পর্যবেক্ষণ করছে পিনেরার জয় যেন জনতার পিনোশের প্রতি সমর্থন।

পিনেরাকে ভোট দেওয়া এক ব্যক্তি প্রাক্তন স্বৈরশাসক আগুস্তো পিনোশের প্রতি তার সমর্থন প্রকাশ করছে। ছবি ডারসি ভেরগারার তোলা।

পিনেরাকে ভোট দেওয়া এক ব্যক্তি প্রাক্তন স্বৈরশাসক আগুস্তো পিনোশের প্রতি তার সমর্থন প্রকাশ করছে। ছবি ফ্লিকার ব্যবহারকারী ডারসি ভেরগারার তোলা যা ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্স-এর অধীনে ব্যবহার করা হয়েছে।

চূড়ান্ত ভোটের দিন পিনোশের অনুসারীদের উপর মন্তব্য করতে গিয়ে লুইজ রামিরেজ [স্প্যানিশ ভাষায়] তার ব্লগে লেখেন:

Sí, ya es un hecho: Los Piñeristas Pinochetistas están entre nosotros.

হ্যাঁ, এটা বাস্তবতা: আমাদের মাঝে পিনোশের সমর্থকরা (পিনেরিয়েস্তাস পিনোশে) রয়েছে।

উপরের ছবি এবং নিচের ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে চিলিবাসীরা আওয়াজ তুলেছে “জেনারেল পিনোশে, এই বিজয় তোমার জন্য” এবং “চি চি চি লে লে লে, চিলি দীর্ঘজীবী হোক, পিনোশে দীর্ঘজীবী হোক”, এটা ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়েছে, কিছু দ্বিধা, এবং অন্যরা তেমন একটা উদ্বিগ্ন নয়, তারা বলছে যে এই দেশে এ রকম বিষয় নতুন কিছু নয়।
ভিডিও র‌্যাম্প৮১-এর:

এই সকল স্লোগান এবং প্রতীকের ব্যাপারে অনলাইন সংবাদপত্র লা অলটারনাটিভা [স্প্যানিশ ভাষায়] ব্যাখ্যা করছে:

El hecho causó estupor en varios adherentes del propio empresario, así como también en medios internacionales, incluso aquellos ligados a la derecha, quienes consideran al fallecido dictador en un nivel similar a Hitler Mussolini o Francisco Franco. La noche del domingo 17 de enero será recordada como el momento en que muchos aduladores del gobierno militar “salieron del closet” y expresaron públicamente que la retórica del emprendimiento, el futuro, la reconciliación y la esperanza, no eran más que vacías frases de campaña para “enchular” a una derecha.

এই নির্বাচন বিভিন্ন ব্যক্তি, বিশেষ করে যারা ব্যবসায়ীদের কাছাকাছি অবস্থান করছে তাদের এবং একই সাথে আন্তর্জাতিক প্রচার মাধ্যমকে বিস্মিত করেছে। এমনকি যারা ডানপন্থীদের সাথে গাঁটছড়া বেঁধেছিলেন তাদের কাছেও এই নির্বাচনের ফলাফল বিস্ময়কর। কারণ, তাদের অনেকে পরলোকগত রাষ্ট্রপতি পিনোশেকে, হিটলার, মুসোলিনি অথবা ফ্রান্সিস্কো ফ্রাঙ্কোর সাথে তুলনা করেন। ১৭, জানুয়ারি, রোববার রাতটিকে স্মরণ করা হবে এমন রাত হিসেবে, যখন, সেই সামরিক সরকারের অনেক ভক্ত “গুহা থেকে বের হয়ে আসে” এবং জনসম্মুখে তাদের এগিয়ে যাবার বিষয়টি নিয়ে উল্লাস প্রকাশ করে, ভবিষ্যৎ-এ এবং সবকিছু মিটমাট হয়ে যাবার লক্ষ্যে এবং এক আশায়, এটি হয়েছে ডানপন্থীদের শূন্যগর্ভ প্রচারণার উন্নতির ফলে।

কেশ্চিয়োনাটেলো টোডো [স্প্যানিশ ভাষায়] একটি স্প্যানিশ ব্লগ। এর মানে সকল কিছুতেই প্রশ্ন করা। চিলির গণতন্ত্র ইতিবাচক দিকে এগুচ্ছে অনেকের এই ধারণা এই ব্লগের লেখক বাতিল করে দিয়েছে। তিনি বলেছেন পিনেরার জয় আসলে চিলির গণতন্ত্রকে এক ধাপ পিছিয়ে দিয়েছে:

Su triunfo representa una resurrección del pinochetismo […] Pinochet nunca murio realmente, y el triunfo de Piñera solo significa la consecuencia natural de una transición que nunca fue tal cosa, sino simplemente la continuación de lo mismo con rostros aparentemente mas amables.

El triunfo del partido de Piñera es un paso atras en el avance hacia la democracia chilena,

তার জয় পিনোশেবাদের “পুনরুত্থান” ছাড়া আর কিছুই না।[…] পিনোশেরা আসলে মারা যায় না, এবং পিনেরার জয় কেবল এক রুপান্তরের স্বাভাবিক প্রভাব থেকে তৈরি হয়, যা কখনই নতুন করে ঘটে না এবং এটি একই জিনিসের সাধারণ এক ধারাবাহিক প্রক্রিয়া, যা অনেক মিথ্যা বন্ধুত্বপূর্ণ চেহারা নিয়ে নতুন করে হাজির হয়। পিনেরার দলের জয় চিলির গণতন্ত্রের পিছিয়ে যাওয়া ছাড়া আর কিছুই নয়।
ভিক্টর জারার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার সময় অনেকে পিনেরার নির্বাচন প্রতীক নামিয়ে ফেলার চেষ্টা করে। জারা পিনোশের স্বৈরশাসনের সময় নিহত হন। ছবি ফ্লিকার ব্যবহারকারী এমাবেল ওডিয়াবেলের তোলা এবং ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সের অধীনে ব্যবহার করা হয়েছে।

ভিক্টর জারার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার সময় অনেকে পিনেরার নির্বাচন প্রতীক নামিয়ে ফেলার চেষ্টা করে। জারা পিনোশের স্বৈরশাসনের সময় নিহত হন। ছবি ফ্লিকার ব্যবহারকারী এমাবেল ওডিয়াবেলের তোলা এবং ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সের অধীনে ব্যবহার করা হয়েছে।

অন্যরা এই নির্বাচনের ফলাফলকে চিলিবাসী যে পিনোশে এবং তার স্বৈরাতন্ত্রকে পিছনে ফেলে এসেছে তার প্রতীক হিসেবে দেখছে। দেশটির বামদল, যারা ১১ মার্চের সংসদে বিরোধী দলের আসনে বসবে, তাদের এখন থেকে ভোটারদের মন জয় করার জন্য নতুন পন্থার কথা ভাবতে হবে। পেরুর ব্লগার আলেজান্দ্রো লোজটাউনাউ নিয়েরা [স্প্যানিশ ভাষায়] লিখেছেন:

Esta situación ha brindado la oportunidad para que los partidos que apoyaron la candidatura del exitoso empresario se desprendan de una vez por todas del fantasma de Augusto Pinochet. […] Sólo este triunfo sobre la Concertación de Partidos por la Democracia puede desligar el fantasma del amado y odiado militar, fallecido en diciembre de 2006.[…] La centro izquierda siempre tenía ventaja porque una manera de bajarse al contrincante era recordar los momentos de oscuridad de la dictadura. Ahora todo eso ya no será posible porque el pueblo chileno ha legitimado a los hasta ahora opositores.

এই পরিস্থিতি দলগুলোর জন্য এক সুযোগ তৈরি করে দিয়েছে, যারা সফল ব্যবসায়ীদের প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত করেছিল এবং আগুস্তো পিনোশের ছায়া থেকে নিজেদের সকল কিছু সরিয়ে ফেলেছিল, তাদের জন্য […]। কেবলমাত্র কনসারটাসিওন ডে পার্টিডোস পোর লা ডেমেক্রেসি বা বহুদলীয় গণতন্ত্র, কারো কাছে প্রিয় এবং কারো কাছে ঘৃণিত সেই সামরিক নেতার ছায়াকে অপসারিত করতে পারে। পিনোশে ২০০৬ সালে মারা যায়। কেন্দ্রীয় বাম ধারার এ দেশের রাজনীতির ক্ষেত্রে সব সময় এক সুবিধা রয়েছে, কারণ তারা বিরোধীদের নীচু করার জন্য সব সময় পিনোশের স্বৈরশাসনের কথা স্মরণ করিয়ে দিতে পারে। কিন্তু এখন এসব আর সম্ভব নয়, কারণ চিলিবাসী এখন পর্যন্ত সকল বিরোধীদের বৈধ করে নিয়েছে।

লুইস মেন্ডেজ একজন চিলিবাসী। তিনি এডিকটোস ২.০ [স্প্যানিশ ভাষায়] নামের এক ব্লগ পরিচালনা করেন। তিনি এই বিজয়কে চিলিবাসীর ৩৭ বছরের এক বিভক্তির সমাপ্তি হিসেবে দেখছেন। পিনোশেকে নিয়ে তাদের এই বিভক্তি বজায় ছিল। তিনি তার ব্লগের উপসংহার টেনেছেন পিনেরার প্রতি উৎসাহব্যঞ্জক শব্দ প্রকাশ করে। তিনি এমন এক ভবিষ্যতের জন্য আহ্বান জানান যেখানে সকল চিলিবাসী অবশেষে সামরিক বাহিনীর এই অভ্যুত্থান এবং পিনোশের স্বৈরশাসনের ইতিহাসের পাতা পাল্টে ফেলবে।

Ojala que por el bien de todos, a Sebastian Piñera le vaya bien, ya que de una vez queremos que los que paso el 11 de septiembre de 1973 quede en la historia de Chile y no siga siendo presente, ya que las nuevas generaciones queremos un viva Chile presente y futuro!!

আশা করা যায় সকলের মঙ্গলের জন্য সেবাস্তিয়ান পিনেরা শাসনকার্যে দক্ষতা দেখাবে, কারণ আমরা চাই ১১ সেপ্টেম্বর, ১৯৭৩-এ চিলির ইতিহাসে যা ঘটেছিল তা যেন ইতিহাসে থেকে যায় এবং বর্তমানে যেন তা আবার উঠে না আসে। কারণ নতুন প্রজন্ম “চিলি দীর্ঘজীবী হোক” এই আওয়াজ দিতে ভালোবাসে। এটি তাদের বর্তমান এবং ভবিষ্যত।

বাস্তবতা হচ্ছে নির্বাচনী প্রচারণার সময় পিনেরা নিজেকে পিনোশের থেকে বিচ্ছিন্ন করে সবার সামনে উপস্থাপন করার জন্য কঠিন পরিশ্রম করেছেন। তিনি সে সময় ইতিবাচক কথা বলেছেন। বেশিরভাগ চিলিবাসী এই স্বৈরশাসনকে তাদের ইতিহাসের এক নির্মম অধ্যায় বলে মনে করে। মেক্সিকোর সংবাদপত্র ইনফরমাডোরকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকার সে সময়কার প্রার্থী পিনেরাকে যখন প্রশ্ন করা হয়, সেই স্বৈরশাসক এই নির্বাচনের উপর প্রভাব কেমন, তখন তিনি উত্তর করেন, পিনোশে অতীতের এক অংশ। আমরা ভবিষ্যতের জন্য জাতীয় ঐক্য গঠন করতে চাই। এটি করতে চাই, “সকলের উন্নতি এবং ন্যায়বিচারের জন্য”।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .