বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

তিউনিশিয়া: হাইতির ভূমিকম্পে তিউনিশিয়ার কূটনীতিবীদ মারা গেছেন

180px-Hedi_Annabiগত রাতে তিউনিশিয়া বাসীরা নিমগ্ন হয়েছিল জাতীয় ফুটবল দলের খেলায়। সে রাতে দলটি জাম্বিয়ার বিপক্ষে খেলছিল। একই খেলায় মগ্ন হয়েছিল দেশটির ব্লগাররাও। দেশটির ফুটবল সমর্থকরা দেশের পক্ষে জয়সূচক আনন্দধ্বনি দিচ্ছিল, কারণ দেশটি ২০১০ আফ্রিকান কাপ অফ নেশন্স নামক প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছে। ডি গ্রুপে পড়া তিউনিশিয়ার খেলাগুলো অনুষ্ঠিত হচ্ছে লুবাঙ্গাতে।

গতকাল পোস্টের সংখ্যাও অন্যান্য দিনের চেয়ে কম ছিল এবং খুব কম লোকই হাইতির ভূমিকম্প নিয়ে লিখেছে। যারা এই ভূমিকম্প নিয়ে লেখে, তারা হেদি আন্নাবির মৃত্যু নিয়ে লেখে। তিনি তিউনিশিয়ার ৬৬ বছর বয়স্ক এক কূটনীতিবীদ। আন্নাবি হাইতিতে জাতি সংঘের সেক্রেটারী জেনারেল বা জাতি সংঘ প্রধানের বিশেষ প্রতিনিধি ছিলেন (মিনুসথা)।

আদিবস১ : হাইতিতে ভূমিকম্প: তিউনিশিয়ার হেদি আন্নাবি, যিনি মিনুসথার প্রধান, তিনি নিখোঁজ রয়েছেন এই শিরোনামে একটি লেখা পোস্ট করেন। ব্লগার বলেন:

Hier à 23h heure locale, 17h heure a Haïti, un violent tremblement de terre de magnitude 7 sur l'échelle ouverte de richter a frappé de plein fouet l'île de Haïti faisant des centaines de morts et des dégats matériels énormes.

Le siége de l'ONU à Port Prince à été completement déteruit, des centaines de casques bleues sont portés disparus dont le chef de la Minsutah le diplomate Tunisien Hédi Annabi.
Agé de 63 ans, Annabi est un diplomate tunisiende carrière qui dirigeait depuis le 28 janvier 1997 le département des opérations de maintien de la paix aux côtés du français Jean-Marie Guéhenno.

গতকাল স্থানীয় সময় রাত ১১.০০টা, হাইতির সময় বিকেল ৫.০০টায়, হাইতিতে ৭.০ মাত্রার এক ভয়াবহ ভূমিকম্প আঘাত হানে। এই ভূমিকম্পে দ্বীপ রাষ্ট্রটির ১০০ জনের মত মানুষ নিহত হয় এবং অসংখ্য সম্পত্তি বিনষ্ট হয়। এতে জাতিসংঘ সদর দপ্তর একেবারে ধ্বংস হয়ে গেছে। প্রায় শ'খানেক ব্লু হেলমেটধারী (জাতিসংঘ শান্তি রক্ষী বাহিনীর লোক) নিখোঁজ রয়েছে, এদের মধ্যে মিনুসথার প্রধান তিউনিশিয়ার কূটনীতিবিদ হেদি আন্নাবি রয়েছেন।

তার বয়স হয়েছিল ৬৩ বছর। আন্নাবি তিউনিশিয়ার এক কূটনীতিবীদ, যার পেশার গুরুত্ব ছিল অনেক উঁচুতে। তিনি ২৮ জানুয়ারি, ১৯৯৭-এ ফরাসী নাগরিক জাঁ মারি-গুয়ান্নোর অধীনে শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে অংশ নেওয়া শুরু করেন।

স্টুপিড আইডিয়া একটি লেখা পোস্ট করেছেন, যার শিরোনাম, ‘হাইতিতে জাতি সংঘের শান্তি প্রক্রিয়ায় কর্মরত তিউনিশিয়ার প্রতিনিধি সম্ভবত মারা গেছেন’। এই লেখায় ব্লগার বলেছেন:

D'apres le yahoo, le représentant de l'ONU qui est un tunisien est décédé. J'espère que l'information soit fausse mais selon l'articleMr Hedi Annabi -ancien sous-secrétaire général adjoint aux opérations de maintien de la paix de l'ONU de 1997 à 2007, et chef de la Mission des Nations unies pour la stabilisation en Haïti (MINUSTAH) depuis le 1er septembre 2007- était parmi les personnes qu'abritaient le bâtiment de l'ONU lors du tremblement de terre qui a frappé la ville. Tous ceux qui étaient dans le bâtiment ont péri.
Mes pensées pour sa famille.

ইয়াহুর সূত্রমতে জাতি সংঘের তিউনিশিয় কর্মী মারা গেছেন। আমি আশা করি এই তথ্য মিথ্যায় পরিণত হবে। কিন্তু প্রবন্ধের সূত্রমতে ১৯৯৭-২০০৭ পর্যন্ত জাতি সংঘ শান্তি রক্ষা কর্মসূচির পূর্বতন সহকারী প্রধান এবং ১ সেপ্টেম্বর, ২০০৭, থেকে হাইতিতে জাতি সংঘ প্রধানের বিশেষ দূত হিসেবে কর্মরত (মিনুসথা) জনাব. হেদি আন্নাবি ভূমিকম্পের সময় জাতি সংঘ ভবনে আশ্রয় নেন। এই ভূমিকম্প শহরটিতে ভয়াবহ ভাবে আঘাত হানে। জাতি সংঘ ভবনে আশ্রয় নেওয়া সকল ব্যক্তি ভূমিকম্পে নিহত হয়েছে।
আমরা চিন্তা এখন তার পরিবারকে নিয়ে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .