বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

তিউনিশিয়া: মিডিয়াতে সাক্ষাৎকার দেয়ার কারনে ছাত্রকে জেলে দেয়া হয়েছে

তিউনিশিয়ার ছাত্র মোহাম্মাদ সৌদানি গত ২৪শে অক্টোবর ২০০৯ তারিখে রেডিও মন্টি কার্লো ইন্টারন্যাশনাল আর রেডিও ফ্রান্স ইন্টারন্যাশনালে সাক্ষাৎকার দেয়ার পরে গায়েব হয়ে যান।

সৌদানী ১৮ দিন ধরে গায়েব ছিলেন যখন তিউনিশিয়ার পুলিশ তার পরিবারের সাথে যোগাযোগ করে জানায় যে তাকে আটক রাখা আছে মুরনাগুইয়া জেলে যা রাজধানী তিউনিস থেকে ১৫ কিমি দূরে।

বিভিন্ন সূত্র অনুসারে, সৌদানীর পরিবারকে পুলিশ জানায় যে তাকে বিচার করা হয়েছে আর দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে ‘অনিয়ম তান্ত্রিক ব্যবহারের’ জন্য। তাকে আটক রাখার সময়ে কোন আইনী সহযোগিতা ছাড়া আর তাকে চার মাসের জেল দেয়া হয়। তারা আরো জানতে পারেন যে সাজার বিরুদ্ধে সে আপিল করেছে।

গত ৬ই ডিসেম্বর আদালতে হাজিরার সময়ে সৌদানী তার বিরুদ্ধে করা অভিযোগ অস্বীকার করেন আর দাবী করেন যে তাকে ভয়ঙ্কর ভাবে অত্যাচার করা হয় বেআইনিভাবে আটকের সময়ে। তার আইনজীবীরা সময় চান মামলাটি পরখ করে দেখার জন্য আর জামিনে তার মুক্তি দাবি করেন। জামিনের আবেদন খারিজ হয়ে যায় আর তার মামলাটি ডিসেম্বর ১৪, ২০০৯ পর্যন্ত মুলতবী করা হয়।

তিউনিশিয়ার ছাত্রদের সাধারণ ইউনিয়নে ছাত্র নেতা থাকাকালীন তার কাজ নিয়ে সাক্ষাৎকার নেয়া হয়েছিল। গত বছর তিনি ৫৬ দিনের একটা অনশনে যুক্ত ছিলেন আরো চারটা ছাত্রসহ তাদের স্কুলে ফিরে যাওয়ার অধিকারের দাবিতে। তারা তাদের অনশনের অভিজ্ঞতা দৈনিক ব্লগ করেছিলেন যা তিউনিশিয়াতে নিষিদ্ধ করা হয়।

একটি ফেসবুক দল আর একটি ব্লগ গঠন করা হয়েছে মোহাম্মাদ সৌদানি যে কষ্ট ভোগ করছে তার প্রতিবাদ ও তার প্রতি সমর্থনের জন্য ।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .