বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

পেরু: অন্ধ আইনজীবীর বিচারক হওয়ার প্রচেষ্টা

পেরুর চুস্কো শহরের বাসিন্দা এডউইন বেজার রোজাস ৩০ বছর বয়সী একজন আইনজীবী। ১৭ বছর বয়স থেকে তিনি দৃষ্টিহীনতায় ভুগছেন, কিন্তু এটা তার কাজের জীবনে বাধা তৈরি করতে পারে নি।

তিনি সান আন্তোনিও আবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন স্কুলের তার ক্লাস থেকে প্রথম হয়ে স্নাতক ডিগ্রী অর্জন করেন। তিনি ফৌজদারী আর প্রসিডিউরাল সিভিল আইনে মাস্টার্স, কোতোয়ালী আর প্রসিডিউরাল ক্রিমিনাল আইনে মাস্টার্স, ডক্টরেট ডিগ্রি আইন ও তদন্তে আর মানবাধিকার, সাংবিধানিক আইন, ব্যবস্থাপনা আইন, মিউনিসিপাল আইন, কর আইন, শ্রম আইন আর প্রসিডিউরাল সাংবিধানিক আইনেও পড়েছেন। এ সাথে কলেজের প্রফেসর হিসেবেও তিনি কাজ করেছেন।

ব্লগ ডিস্কাপাসিডাড এন আসিওন বলেছে:

Cabe indicar, que el Abog. Edwin Bejar Rojas, es un profesional conocido en la ciudad del Cusco, por ser ejemplo de superación y su trabajo a favor de las personas con discapacidad visual, como profesor y especialista en nuevas tecnologías para personas con discapacidad visual (proyecto REDSOCIAL); y por su constante apoyo a las Organizaciones de Personas con Discapacidad.

এটা মনে রাখা উচিত যে চুস্কো শহরে এডুইন বেজার রোজাস একজন সুপরিচিত ব্যক্তি, তার [দৃষ্টিহীনতা] কাটিয়ে ওঠার মনের জোর, আর দৃষ্টিহীন অন্য লোকদের জন্য তার কাজের কারনে। আর দৃষ্টিহীনদের নতুন প্রযুক্তির ব্যাপারে তিনি বিশেষজ্ঞ (রেড সোশাল প্রোজেক্ট) এবং প্রতিবন্ধীদের বিভিন্ন সংস্থার জন্য তার লাগাতার সমর্থন সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে।

গত জুলাই এ, তিনি চুস্কোর উপ আঞ্চলিক বিচারকের পদ লাভের চেষ্টা করেন, কিন্তু ম্যাজিস্ট্রেসির জাতীয় কাউন্সিল (ন্যাশনাল কাউন্সিল অফ ম্যাজিস্ট্রেসী – স্প্যানিশে সিএনএম) তার প্রার্থীতা বাতিল করে দেয় তার প্রতিবন্ধীতার কারনে, যা জানিয়েছে ফেডারেটেড সেন্টার পোন্টিফিকাল ক্যাথোলিক বিশ্ববিদ্যালয় পেরুর আইন স্কুলের ব্লগ:

El 12 de junio, postuló a la plaza de Fiscal Adjunto Provincial en la ciudad de Cusco, cumpliendo con los requisitos establecidos por ley e indicando su discapacidad. Inicialmente, fue declarado postulante apto para dar el examen escrito el 19 de julio. No obstante, por decisión del Pleno del CNM, fue excluido de la postulación por motivo de su discapacidad visual e impedido de rendir su examen, [aunque] hoy no existe impedimento [legal] para que personas con discapacidad sean magistrados.

গত ১২ই জুলাই তিনি চুস্কোর উপ আঞ্চলিক বিচারকের পদের চেষ্টা করেন, যেহেতু তার প্রতিবন্ধকতা বাদ দিয়ে আইনগত যোগ্যতা তার ছিল। প্রথমে, তাকে যোগ্য প্রার্থী মনে করা হয়েছিল – জুলাই ১৯ এ লিখিত পরীক্ষা দেয়ার যোগ্য। তারপরেও, ম্যাজিস্ট্রেসির জাতীয় কাউন্সিলের প্লেনারী তার প্রার্থীতা বাতিল করে দেয় তার দৃষ্টিহীনতাকে কারণ দর্শিয়ে, আর তাকে পরীক্ষা দিতে দেয়া হয় নি। যদিও [আজকাল] কোন [আইনগত] বাধা নেই দৃষ্টিহীন কোন লোকের বিচারক হওয়ার ব্যাপারে।

২০০৯ সালের জুলাই মাসে প্রতিবন্ধী মানুষের একাত্মীকরণের জাতীয় কাউন্সিল (স্প্যানিশে কোনাডিস) যেটা নারী আর সামাজিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের অংশ, জনাব বেজারের প্রার্থীতা বাতিলের কারণ জানতে চান। মানবাধিকারের জাতীয় সাদৃশ্যকরন কমিটি তৃতীয় চুস্কোর সিভিল আদলতের সামনে অ্যামিকাস কুরি হিসেবে মধ্যস্থতা করেছেন যেখানে জনাব বেজার আইনগত নিরাপত্তার মামলা করেছেন।

পরিশেষে, নভেম্বর ১৩, ২০০৯ তারিখে চুস্কোর একটা আদালত জনাব বেজারের পক্ষে রায় দিয়েছে সিএনএমকে নির্দেশ দিয়ে যে যেন তার পরীক্ষা নেয়া হোক অন্য সব প্রার্থীর মতো ‘একই মাত্রার জটিলতা‘ দিয়ে। এর সাথে, এই রায় সিএনএমকে আরো আদেশ দিয়েছে জনাব বেজারের জন্য প্রযুক্তিগত সকল সুবিধাসহ এই পরীক্ষা দিতে অনুমতি প্রদান করতে। আদালতের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সিএনএম একটা আপিল করেছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .