বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

প্যালেস্টাইন: টুইটারের রিপোর্ট বলছে যে ইজরায়েল রাফাহ আর খান ইউনিসে বোমা হামলা চালাচ্ছে

গত জানুয়ারী ২০০৯ এ গাজাতে ইজরাইলের হামলার সময়ে, ব্লগার আর টুইটার ব্যবহারকারীরা প্রচার মাধ্যমের স্থান নিয়েছিল, কারণ সাংবাদিকদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। এই নাগরিক সাংবাদিকেরা প্রধান ধারার প্রচার মাধ্যমে প্রকাশের বেশ আগেই সব ঘটনার ব্যাপারে রিপোর্ট করে। আজ (১৯শে নভেম্বর, ২০০৯) রাতে, টুইটার ব্যবহারকারীরা প্রচার মাধ্যমের আগে খবর প্রচার করেছেন। গ্রীনিচ মান সময় ১১.৩০টার দিকে (স্থানীয় সময় ভোর ১.৩০) ফ্রম_গাজা নামে টুইট করা ইব্রাহিম সাইদ জানিয়েছেন:

قصف في خانيونس ورفح : الان

খান ইউনিস আর রাফায় বোমা হামলা হচ্ছে – এখন

কিছুক্ষণ পরে তিনি বিস্তারিত জানিয়েছেন:

tweet

ইজরায়েলের বিমান বাহিনী রাফার সুড়ঙ্গ সমূহকে লক্ষ্য করে বোমা ফেলেছে। এবং গাজা স্ট্রিপের খান ইউনিসে লোকজন সরিয়েছে কাসাম রকেটের উৎসকে আক্রমণ করার জন্যে। ৫ জন মারা গেছে এবং একজন গুরুতরভাবে আহত।

ব্লগার পলিটিকাল থিয়াট্রিকস ঘটনার বর্ণনা দিয়েছেন:

বুধবার রাতে ইজরায়েলী বিমান বাহিনী গাজা- মিশর সীমান্তে চোরাচালানের সুড়ঙ্গে হামলা করেছে। এই ঘটনা ঘটে ফিলিস্তিনি জঙ্গীরা একদিন আগে গাজা স্ট্রিপ থেকে পশ্চিম নেগেভে একটি কাসাম রকেট ছোঁড়ার পরে।

আইডিএফ মুখপাত্রের অফিস জানিয়েছেন যে ইজরায়েল বিমানবাহিনীর প্লেন কাছের একটা কাঠামোতেও আঘাত করেছে যা বিশ্বাস করা হচ্ছে গাজার শহর খান ইউনিসে অস্ত্রাগার হিসাবে ব্যবহৃত হচ্ছিল।

ফিলিস্তিনি সূত্র জানিয়েছে যে হামলায় তিন জন আহত হয়েছেন, আর তারা দাবি করেছেন যে সেনা প্রশিক্ষণ ক্ষেত্রকেও লক্ষ করা হয়েছিল।

আইডিএফ রিপোর্ট আরো ইঙ্গিত করেছে যে আঘাত করা হয়েছিল বুধবার ভোরে গাজা স্ট্রিপ থেকে যে কাসেম রকেট ছোঁড়া হয়েছিল তার জবাবে, আর যা শার হেনেগেভ আঞ্চলিক কাউন্সিল, পশ্চিম নেগেভে পড়েছিল।

[সম্পাদকের উক্তি: উপরের ব্লগার আসলে হারেটজ পত্রিকার প্রতিবেদন থেকে উদ্ধৃতি দিয়েছেন, ভুলের জন্য আমি একান্ত দু:খ প্রকাশ করছি।]

সর্বশেষ (৮.০৬ পূর্বের সময়): বিবিসি আক্রমণের খবর নিশ্চিত করেছে, আর ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ কোন হতাহতের কথা জানাননি।

টুইটার ব্যবহারকারী পাকিনামামের আরো উত্তরের অপেক্ষায় আছেন। তিনি জিজ্ঞাসা করেছেন:

tweet

আপনারা কি কেউ নিশ্চিত বলতে পারবেন যে খান ইউনিস আর রাফায় ইজরায়েল হামলা চালিয়েছে কি না? কোন বিশ্বাসযোগ্য সংবাদ মাধ্যম কি সংবাদটি প্রচার করেছে?

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .