বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ভিডিও: ডেমোক্রেসি নাও চ্যালেঞ্জ প্রতিযোগিতার জন্য ভিডিও জমা দেবার আহ্বান

দুই মাস আগে ২০০৯ সালের ডেমোক্রেসি নাও চ্যালেঞ্জ বা বর্তমানে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় বাধা, নামক ভিডিও প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের নাম আমরা ঘোষণা করি। এই সমস্ত ভিডিওতে বিশ্বের বিভিন্ন এলাকার লোকজন বলেছে তাদের কাছে গণতন্ত্র মানে কি। সম্প্রতি এই একই বিজয়ীরা দুই সপ্তাহ যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণ করে। তারা সেখানে ওয়াশিংটন, নিউ ইয়র্ক এবং হলিউড ঘুরে দেখে এবং ইতোমধ্যে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ২০১০ সালের ডেমোক্রেসি নাও ভিডিও কনটেষ্ট বা গণতন্ত্র এখন ভিডিও প্রতিযোগিতার কথা ঘোষণা করেছেন

এই প্রতিযোগিতার এ বছরের নিয়ম গত বছরের মতো। এই প্রতিযোগিতায় মূলতঃ তিন মিনিটের কম সময়ের একটি ভিডিও পাঠাতে হয়, যে ভিডিওতে উল্লেখ থাকবে “গণতন্ত্র কি…” এই শব্দের ব্যাখ্যা। ভিডিওটি ইংরেজী ভাষায় নির্মাণ করতে হবে বা অন্য ভাষায় তৈরি করা হলে তাতে ইংরেজী সাবটাইটেল বা ইংরেজী অনুবাদ ভিডিওর নিচের অংশে যোগ করতে হবে। প্রতিযোগিতায় ভিডিও পাঠানোর শেষ তারিখ ২০১০ সালে ৩১ শে জানুয়ারি। এরপর অনলাইন সম্প্রদায়ের ভোটে ছয়টি ভিন্ন ভৌগোলিক এলাকার ছয়জন ব্যক্তিকে বেছে নেওয়া হবে এবং তারা যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণ এবং সেখানকার সরকারের কর্তা ব্যক্তি ও প্রচার মাধ্যমের লোকদের সাথে আলোচনার সুযোগ পাবে।

এই প্রতিযোগিতার প্রচারণার জন্য যে ভিডিও তৈরি করা হয়েছে সেই ভিডিওটি এখানে রয়েছে:

এই প্রতিযোগিতা ইউটিউব, আমেরিকার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং অন্য সব অংশীদারদের যৌথ উদ্যোগে তৈরি করা হয়েছে। এই ভিডিও জমা দেবার আগে এই ব্যাপারে আরো বিস্তারিত গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানার জন্য স্টেট ডিপার্টমেন্ট ইউটিউব চ্যানেল বা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ইউটিউব চ্যানেলে ক্লিক করুন।

যদি আপনি চান তা হলে ইউটিউব ব্লগে ২০০৯ সালের বিজয়ীদের টেলিভিশনে উপস্থিতির কিছু টুকরো দৃশ্য দেখতে পাবেন, তাদের ৪ জন নিজেদের অবস্থান ভিডিওতে উপস্থাপনের মাধ্যমে ভিডিওটি জমা দিয়েছিল।

ফিলিপাইন্স থেকে ইসিসা পেনাফিয়েল:

ইরান থেকে রোডিন হামিদি:

ব্রাজিল থেকে আনা ইজরায়েল:

এবং পোল্যান্ড থেকে লুকাস সোজসাডা:

অংশগ্রহণের জন্য উৎসাহ প্রয়োজন? ২০০৯ সালের যারা বিজয়ী তাদের উপর এক নজর চোখ রাখি না কেন?

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .