বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ক্রিকেট: পাকিস্তান বিপত্তির সম্মুখীন

পাকিস্তানী ক্রিকেট প্রেমী দর্শক জয়ের পরে। ছবি ফ্লিকার ব্যবহারকারী আচিন এর সৌজন্যে, ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সের আওতায় ব্যবহৃত http://www.flickr.com/photos/acyn/3722402256/

পাকিস্তানী ক্রিকেট প্রেমী দর্শক জয়ের পরে। ছবি ফ্লিকার ব্যবহারকারী আচিন এর সৌজন্যে, ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সের আওতায় ব্যবহৃত http://www.flickr.com/photos/acyn/3722402256/

গত জুনে, পাকিস্তান যখন বিশ্ব টুয়েন্টি ২০ কাপ চ্যাম্পিয়নশীপ জিতেছিল ফাইনালে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে, এই ক্রিকেট প্রেমী জাতি আনন্দে আত্মহারা হয়ে গিয়েছিল। ১৯৯২ এর বিশ্ব কাপের পর থেকে পাকিস্তান বড় কোন ক্রিকেট চ্যাম্পিয়নশীপ জেতে নি, তাই এই জয় এর থেকে ভালো সময়ে আসতে পারত না। গর্বিত পাকিস্তানীরা আনন্দিত ছিল আর তাদের আনন্দ ধ্বনি ব্লগেও শোনা যাচ্ছিল। সেসময়ে কিছু পাকিস্তানী ব্লগার একটা ই র‌্যালী শুরু করেছিলেন পাকিস্তানের ক্রিকেট দলের সমর্থনে।

দ্যা গ্লোবাল পাকিস্তানী এই বিজয়ের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন:

পাকিস্তানীরা এই বিশ্বে সব থেকে লেগে থাকা মানুষের মধ্যে পড়ে বলে কথিত আছে। অন্য কোন জাতি এত চাপ সহ্য করতে পারবে না যা পাকিস্তান সাম্প্রতিক কালে করেছে।

তাই এটা আশ্চর্যজনক না যে ১৫ মাসের বেশী সময় ধরে উচ্চ পর্যায়ের ক্রিকেট থেকে বঞ্চিত থাকা অবস্থায়, আন্তর্জাতিক ভাবে এক ঘরে থাকলেও, আর এই খেলার সব থেকে অনাকাঙ্খিত ঘটনার কারনে ঝামেলার মধ্যে থাকলেও, আমাদের সীমান্তের ভেতরে একটা যুদ্ধ লড়ার মাঝ আর আমাদের ৩০ লাখ ভাই বোনকে এই সমস্যার কারনে গৃহহীন হতে দেখলেও, আমরা বিশ্বে মাথা উঁচু করে বেরিয়ে আসতে সমর্থ হয়েছি গতকালের টি২০ ফাইনালে।

আ স্টুডেন্টস ভিউ তে জুবায়ের শেখ বলেছেন ক্রিকেটে জেতার মানে পাকিস্তানিদের কাছে কি:

আমাদের ক্রিকেট দল টি২০ বিশ্ব কাপ জিতেছে আর নতুন ক্যাপ্টেনের নেতৃত্বে মনে হচ্ছে এই শিরোনাম ধরে রাখতে পারবে।

এই সব ঘটনা এই বেদনা মুখর জাতিকে অনেক কিছু ভাবার আর আনন্দ করার সুযোগ করে দিয়েছে।

তবে শ্রীলংকাতে তাদের সাম্প্রতিক খেলার ট্যুরে বেশ খারাপ ফলাফল হয়েছে। অনেক ভক্ত চিৎকার করছেন যে পাকিস্তান তাদের খেলার পারঙ্গমতায় নতুন করে পিছলে পড়েছে। লেগস্লিপ ব্লগে খান সাহাব বলেছেন:

পাকিস্তান এই টেস্ট সিরিজ খুব খারাপ ভাবে হেরেছে আর তার পরে তারা ওয়ানডে সিরিজ ও হেরেছে। কিছু মানুষের কাছে এটা ভালো লাগতে পারে যে ওয়ানডে সিরিজের একেবারে শেষে পাকিস্তান কিছুটা গর্ব ফিরত আনতে চেয়েছে, কিন্তু ধারাবাহিকভাবে যিনি দেখছেন তার কাছে, পাকিস্তান থেকে নতুন কিছুই দেখা যায় নি।

শ্রীলংকার ব্লগার কাপুতাও ভাবছেন যে পাকিস্তান এত খারাপ খেলল কেন:

প্রথম দুই টেস্টে খারাপ ব্যাটিং এর চেষ্টার পরে, দেখতে ভালো লাগছিল যে প্রথম সারির পাকিস্থানী ব্যাটসম্যানরা, আমরা যেমন জানতাম যেভাবে তারা পারেন সেই ভাবে ব্যাট করছিলেন। তারা এইভাবে আগে করতে কিভাবে ব্যর্থ হলেন সেটা ব্যাখ্যার অতীত।

এর ফলে একটা প্রশ্ন উঠে এসেছে যে পাকিস্তান কি কেবলমাত্র টুয়েন্টি ২০ ফরম্যাটেই ভালো খেলে ‌আর অন্য সব ধরনের ফরমাটের জন্য ব্যর্থ? ভক্তরা শ্রীলঙ্কাতে খারাপ খেলাটাকে হালকা ভাবে নেন নি এবং দেশে ফিরে খেলোয়াড়রা তোপের মুখে পড়েছিলেনম্যাচ ফিক্সিং এর গুজবও শোনা যাচ্ছে।

আমার নিজের ব্লগে সিরিজ হারার প্রভাব পাকিস্তানে কিভাবে পড়েছে তা লিখেছি:

ক্রিকেট খুবই নিষ্ঠুর খেলা। এক মাসের কম সময়ে সারা জাতি উল্লাস করছিল যখন ইউনুস খান আর তার দল টুয়েন্টি ২০ বিশ্ব কাপ জিতে আসল। তাদেরকে নায়কোচিত সম্মান দেয়া হল ফাইনালে শ্রীলংকাকে এত নিখুঁত ভাবে হারানোর জন্য। তবে শ্রীলংকাতে টেস্ট সিরিজ হারার কারনে সমালোচনার আক্রোশ বেরিয়ে এসেছে আবার।

এক মাস আগে চ্যাম্পিয়ন হওয়া আমাদের সবার জন্য ঠিক ছিল, কিন্তু এখন এই দলকে দেখাতে হবে যে তারা ইচ্ছুক আর যোগ্য এই উপাধির মত ক্রমাগত খেলা দেখানোয়, জাদু আর বোকার মতো গুটি কয়েক মুহূর্ত দিয়ে না।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .