বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

বাংলাদেশ: আনকালচার্ড প্রোজেক্ট আর পরিষ্কার পানি

গত বছর যখন আমরা খোঁজ করেছিলাম আনকালচার্ড প্রোজেক্ট বাংলাদেশের সিডর সাইক্লোনে ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করছিল, কিন্তু এর উদ্যোক্তা শন আহমেদের সাহায্য করার প্রচেষ্টা এখনো থামে নি। গত বছর এই ত্রাণ কর্মসূচীর পরে, তিনি অসুস্থ হয়ে বাস ভূমি কানাডাতে ফিরত যান, আর সেখানে কয়েক মাস থাকার পরে আবার ফিরে আসেন বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে সাহায্য করার জন্য, সেভ দ্যা চিল্ড্রেন এর সহায়তায় আর বিশ্বব্যাপী ভক্তদের অনুদান নিয়ে।

তার ব্লগে তিনি জানিয়েছেন:

এ দেশে আসার পর থেকে আমি দারিদ্র বিমোচনের সাথে সংশ্লিষ্ট প্রকল্প শেষ করার চেষ্টা করছি। আপনারা কেউ কেউ হয়ত জানেন যে আমি পুকুরের পানি শুদ্ধ করার বালির ফিল্টার নিয়ে কাজ করছি আর একটা স্কুল মেরামত করছি। এখন প্রায় ৬ মাস হয়ে গেছে আর আমি পরবর্তী ৭২ ঘণ্টায় সব শেষ করতে চাই। হ্যাঁ… এটা একটু বেশী উচ্চাভিলাষী হতে পারে। দেখা যাক।

শন এই শেষ রাউন্ডের প্রকল্পের জন্য দান গ্রহণ করেছেন, আর দাতাদেরকে অনুরোধ করেছেন (যাদের বেশীরভাগ তার কার্যক্রমের উপর মন্তব্য রাখেন ভিডিওর মাধ্যমে) তারা যেখানে তাদের অর্থ কিভাবে খরচ করতে চান সেটা জানান, যেমন তার এক পোষ্টে তুলে ধরা নীচের ভিডিওটাতে তিনি অনুরোধ করেছেন:

একই পোস্টে, তিনি বোঝার চেষ্টা করেছেন যে এই সব প্রকল্পের ভবিষ‌্যৎ কি হবে, আর কিভাবে তিনি এইসব প্রকল্পকে স্বয়ং সম্পূর্ণ করতে পারেন, যাতে তিনি সাহায্য করে যেতে পারেন:

প্রশ্ন হল – আমি কি ছুটির জন্য ফিরত যাচ্ছি না একেবারে? জানুয়ারিতে আমি বলেছিলাম যে এই প্রকল্প যদি আমি টিকিয়ে রাখতে না পারি তাহলে ১২ মাসের মধ্যে আমি চলে যাব। ‘টিকিয়ে’ রাখা বলতে আমি এমন ভাবে করতে চাই যা আমার বাবা মাকে আরো দরিদ্র করবে না। আমার সঞ্চয় অনেক আগে শেষ হয়ে গেছে – আর এই কাজ আমি আমার বাবা মার কাছ থেকে টাকা ধার নিয়ে করি। আমরা দুর্ভাগ্যক্রমে (ধনী) রকফেলার্স না- কেবলমাত্র মধ্যবিত্ত শহুরে কানাডিয়ান (মূলতঃ আমেরিকানদের মতো… কিন্তু আমরা বিনা মূল্যে স্বাস্থ্য সেবা পাই)।

তার ব্লগের সর্ব শেষ পোস্টে, শন লক্ষ্য করেছেন যে টেড কনফারেন্সের ভিডিওতে একজন বক্তা, একজন আবিষ্কারক তার উদ্ভাবন দেখাচ্ছিলেন: একটা পানি শোধনাগার ব্যবস্থা (ফিল্টার) যা ময়লা পানিকে পান যোগ্য পানিতে পরিণত করে। মাইকেল প্রিটচ্যাড এই জীবন রক্ষাকারী বোতল ডিজাইন করেছেন, যা বিশ্বব্যাপী অনেক মানুষের জীবন রক্ষা করতে পারবে, আর দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার সমাধান দিয়েছেন: পানীয় জল দেয়ার পরিবর্তে, এই বহনযোগ্য পানির ফিল্টার যাতে পরিবারের সদস্যরা তাদের পানীয় জলের ব্যবস্থা বাড়িতেই করতে পারে শরণার্থী শিবিরে না গিয়ে।

শনবহনযোগ্য পানির ফিল্টারের ব্যাপারে জানেন কারণ তিনি একই ধরনের পানি শোধনাগার লাইফস্ট্র কে কাজ করতে দেখেছেন। গ্রামীণ কেনিয়াতে তার সফরের সময়ে তিনি একটা ভিডিও পোস্ট করেছিলেন, যেখানে তিনি গরুর গোবর সম্বলিত ময়লা পানি শোষণ করেছিলেন, দেখানোর জন্য যে ব্যবহারের আসল পরিবেশ, যেখানে মানুষ যে কোন স্থান থেকে পানি সংগ্রহ করে। এবং এতে সাধারণত সব ধরনের অশোধিত, ময়লা আর আবর্জনা থাকবে। এটা তার মাঠ পর্যায়ের পরীক্ষার ভিডিও যেটা তিনি করেছিলেন:

কিছু মানুষ তাকে প্রতিক্রিয়াশীল বলেছিল যখন তিনি গরুর গোবর সম্বলিত পানি শোধন করে পান করেছিলেন, তাই দ্বিতীয় আর একটা ভিডিওতে তিনি এর পিছনের কারণ ব্যাখ্যা করেছিলেন, যেখানে একজন বিজ্ঞানী নিশ্চিত করছেন যে লাইফস্ট্র কিভাবে ব্যাক্টেরিয়া আর ভাইরাসের বিরুদ্ধে নিরাপত্তা তৈরি করে যা পানির মাধ্যমে বাহিত হতে পারে, গরু থেকে মানুষের মধ্যেও:

শন পরিষ্কার করে বলেছেন যে লাইফস্ট্র এর কাছ থেকে তিনি অর্থ পান না বা তাদের দ্বারা সমর্থিত হন না, যখন তিনি এটার ব্যাপারে কথা বলেন তার কারণ তিনি এটাকে বর্তমানে প্রাপ্ত সব থেকে ভালো উপায় মনে করেন। লাইফ-সেভার এর মূল্য লাইফ–স্ট্র এর থেকে অনেক বেশী, কিন্তু কম পানি শোধন করে আর টেকে কম দিন, আর লাইফ স্ট্র পরিবারের চাহিদা অনুযায়ী আসে। এই দুটি ফিল্টারের কোনটিই পানিতে দ্রবীভূত লবন বা রাসায়নিক পদার্থের সাথে কাজ করতে পারে না, যেটাকে পণ্যের নতুন সংস্করণে যুক্ত করা দরকার মূল্যের পার্থক্যকে যুক্তিযুক্ত করার জন্যে।

লাইফস্ট্র ফ্যামিলির মূল্য ৩৫ আমেরিকান ডলার আর এটা পরিশোধন করে ১৮,০০০ লিটার পানি। লাইফসেভারের মূল্য ১০০ ডলারেরও বেশী আর এটা পরিশোধন করে মাত্র ৬০০০ লিটার পানি। যদিও এটা সম্ভব হতে পারে যে ভবিষ্যৎে একদিন লাইফসেভারের মূল্য কমে যেতে পারে, লাইভস্ট্র ফ্যামিলির মূল্য এখনই কম আর এরই মধ্যে জীবন রক্ষা করছে অনেকের…

টুইটারে আপনি আনকালচার্ড প্রোজেক্টের খবর দেখতে পারেন, যেখানে তিনি তার ত্রাণ কাজ নিয়ে লেখেন আর নতুন প্রকল্পের ছবি আপলোড করেন আর বিশ্বে কিছু পরিবর্তন আনতে তার প্রচেষ্টা তুলে ধরেন। আপনি শন আর সেভ দ্যা চিল্ড্রেনের বাংলাদেশে ত্রাণ দেয়া নিয়ে আরো ভিডিও দেখতে পারেন আনকালচার্ড প্রোজেক্টের ইউটিউব চ্যানেলে, বা শনের অন্য অ্যাকাউন্ট, দ্যা স্টুডেন্টে তার মোবাইলে ভিডিও আপলোডগুলো দেখতে পারেন। তার ভবিষ্যৎ কাজের জন্যে শুভ কামনা!

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .