বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ক্যাম্বোডিয়া: এইডস কলোনি

বিভিন্ন মানবাধিকার গ্রুপ ক্যাম্বোডিয়ার সরকারের বিরুদ্ধে কার্যত এক এইডস কলোনি (এইডস আক্রান্ত ব্যক্তিদের বসতি) বসানোর অভিযোগ করেছে। সরকার এইচআইভি ও এইডসে আক্রান্ত ৪০টি পরিবারের জন্যে রাজধানী নমপেন থেকে ২৫ কিলোমিটার দূরে এই নতুন বসতি গড়ে দিয়েছে।

এই পরিবার গুলো নমপেনের বোরেই কেইলা নামক এলাকা থেকে এসেছে। সরকারের নগর উন্নয়ন পরিকল্পনার এক অংশ হিসেবে তাদেরকে পুরানো ঘর থেকে উচ্ছেদ করা হয়। এই সমস্ত পরিবার গুলো এখন টুওল সম্বো গ্রামে বাস করছে।

“এইডস ভিলেজে” নামে পরিচিত হওয়া গ্রামের এই পরিবারগুলো সেখানকার পরিস্থিতি সম্বন্ধে অভিযোগ করছে।

সেখানে অপর্যাপ্ত শৌচাগার ও পানি সরবরাহের কোন ব্যবস্থা নেই। এই এলাকাটি এইচআইভি আক্রান্তদের জন্য মোটেও কোন স্বাস্থ্যকর এলাকা নয়, যাদের আলাদা মনোযোগ ও যত্নের প্রয়োজন।

এইচআইভি আক্রান্ত লোকজন যারা এই গ্রামে বাস করছেন তারা বলছেন, এখনো সরকারি ভাবে তারা বাড়ির মালিকানা সংক্রান্ত কাগজ বুঝে পান নি। একই সাথে তাদের পুরানো ঘর হারানোর কোন সরকারি ক্ষতিপূরণ ও তারা পান নি।

ডিটেইলস আর স্কেচি এরকম বিশ্রী ভাবে পরিবার গুলোকে স্থানান্তর করানো জন্য যে দায়ী, সেই দায়িত্বশীল কর্তৃপক্ষকে খুঁজে বের করতে চান।

কে এই সিদ্ধান্তের জন্য দায়ী? প্রচার মাধ্যমকে অবশ্যই তা খুঁজে বের করতে হবে এবং রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীকে এর জন্য মামলা দায়ের করতে হবে। কারণ এটা নিশ্চিত যে এইচআইভি আক্রান্ত ৪০ পরিবারের একজন এইভাবে এক স্থান থেকে সরিয়ে আরেক স্থানে আনার ফলে মারা গেছে। এটা উপেক্ষা জনিত হত্যা, অন্তত যদি তা নয় হয় তা হলে তা পুরোদস্তুর পরিকল্পনা মাফিক এক স্পষ্ট খুন।

বিশ্ব নেটওয়ার্কের মধ্যে যে সমস্ত এইচআইভি আক্রান্ত লোকেরা বাস করে তার ক্যাম্বোডিয়ার সরকারের কাছে আবেদন জানাচ্ছে এই উচ্ছেদকৃত পরিবার গুলোর সাথে মানবিক বিবেচনায় আচরণ করতে।

  • টুওল সাম্বো এলাকায় এইচআইভি আক্রান্ত পরিবারগুলোকে সরানোর কাজ বন্ধ করুন
  • টুওল সাম্বোর অবস্থার উন্নতি ঘটান, যাতে তা জীবন যাপনের ন্যূনতম আদর্শ বজায় থাকে, আশ্রয়, শৌচাগার, এবং পরিষ্কার বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ বজায় থাকে।
  • পুরো মাত্রায় উন্নত মানের স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করা, যার মধ্যে অন্তর্ভুক্ত থাকবে রেট্রোভাইরাস প্রতিরোধ চিকিৎসা যা এইডস রোগীদের ক্ষেত্রে ডিএনএ-র মাধ্যমে সন্তানের দেহে প্রবেশ করতে পারে, ঘটনাক্রমে আক্রান্ত হওয়ার রোগের চিকিৎসা (এইডস রোগে আক্রান্ত হলে প্রতিরোধ ব্যবস্থা দুর্বল হয়ে যাওয়ার কারণে শরীরে ভিন্ন ভিন্ন রোগ আক্রমণ করে), প্রাথমিক চিকিৎসা এবং ঘরে এসে সেবা প্রদান।
  • সংশ্লিষ্ট এজেন্সি বা প্রতিষ্ঠান এবং যে সমস্ত পরিবার ইতোমধ্যে টুওল সাম্বোতে বসতি গেড়েছে তাদের সাথে আলোচনা করে দ্রুত এবং লম্বা সময় কাজ করে এমন ব্যবস্থা নেওয়া, যার মধ্যে থাকবে বাসা, স্বাস্থ্য, নিরাপত্তা ও কর্ম সংস্থান এর ব্যবস্থা এবং তাদের সমাজের অন্য মানুষদের সাথে পুনরায় যুক্ত করানো, যাতে তাদের জীবন ও অধিকার অক্ষুণ্ণ থাকে; এবং
  • এক স্বচ্ছ ও সুন্দর প্রক্রিয়া চালু করুন যাতে বোরেই কেইলায় এলাকায় একটা গৃহ নির্মাণ প্রকল্প শুরু হয় এবং উপযুক্ত পরিবার গুলোকে সেখানে দ্রুত সরিয়ে আনা যায়, যারা সেখানে আসার যোগ্য বলে বিবেচিত হবে না কর্তৃপক্ষ তাদের অন্য স্থানে সন্তোষজনকভাবে থাকার ব্যবস্থা করে দেবে।

গ্লোবাল হেল্থ এ লেখার সময় এ্যালান্না শাইখ তার প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছেন:

যে সমস্ত লোক এইডসের মধ্যে জীবন যাপন করে তাদের প্রতি কি ধরনের ব্যবহার করা হয়, এই ঘটনাটি আমার কাছে তার এক বাস্তব উদাহরণ, যেন তাদের ছুড়ে ফেলা যায়। তারা যে ভাবেই হোক মারা যাবে, এই যুক্তিতে সবাই চলে। কাজেই তাদের ভালোভাবে চিকিৎসা করার কোন দরকার নেই। কিন্তু যে সমস্ত লোক এইডসে আক্রান্ত হয় তারপরেও তো তারা মানুষ, তাদের অধিকার এবং দক্ষতার কারণে মানবের পূর্ণ জীবন যাপনের যোগ্যতা রাখে। মানুষ যে সুবিধা পায় তার কম কাউকে দেওয়া উচিত নয়।

১০০-র বেশি আন্তর্জাতিক ও স্থানীয় গ্রুপ প্রধানমন্ত্রী হুনসেন ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মাম বুনহেংকে লিখেছেন, এই অনুরোধ করে, যে সমস্ত পরিবারকে উচ্ছেদ করা হয়েছে তাদের আধুনিক ও উন্নত মানের চিকিৎসা প্রদান করতে:

টুওল সাম্বোর ঘরগুলো সব মিলিয়ে তার আকার, অগ্নি নিরাপত্তা, এবং পয়:নিষ্কাশন ব্যবস্থা হিসেবে যথেষ্ট উন্নত নয়। এর বাসিন্দারা এক বাজে ভাবে তৈরি ধাতব বায়ু সরবরাহ ব্যবস্থা যুক্ত ছাদের নিচে বাস করে, যা কিনা দিনের বেলায় আগুনের মতো গরম হয়ে থাকে। এই সমস্ত ঘরগুলোয় কোন রান্নাঘর নেই এবং এই বাসাগুলোতে পানি সরবরাহের কোন ব্যবস্থা নেই। যার সামনে খোলা শৌচাগার এবং পুরো এলাকায় উচ্ছেদকৃত পরিবারগুলোর জন্য একটি মাত্র কুয়ো রয়েছে।

যেখানে নমপেন থেকে উচ্ছেদকৃত অন্য সব গৃহহীন মানুষদের নতুন করে শুরু করা এলাকায় ইটের তৈরি বাড়ি প্রদান করা হয়েছে টুওল সাম্বোর কাছে এক জায়গায়, সেখানে বোরেই কেইলার লোকজনকে ভিন্ন এলাকায় বসতি তৈরি করে দেওয়া হয় কম উন্নত মানের মালা মাল দিয়ে, তাদের আলাদা করা হয় সবুজ টিনের ছাদ ও দেওয়াল দিয়ে। এমনকি উচ্ছেদকৃত পরিবারগুলোকে সেখানে বসানোর আগে থেকেই লোকজন এই সবুজ বাসাগুলো দেখিয়ে বলত: “এইডস আক্রান্তদের গ্রাম”।

টুওল সাম্বো গ্রামে বাস করার যে ব্যবস্থা, স্বাস্থ্যের জন্য তা ভয়ানক ঝুঁকি তৈরি করতে পারে। বিশেষ করে যে সমস্ত লোকের শরীরে প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা দুর্বল। যে সমস্ত লোক এইচআইভিতে আক্রান্ত এই স্বাস্থ্য গত ঝুঁকি তাদের জীবনের উপর হুমকি হয়ে দাঁড়াতে পারে। এর বাসিন্দারা জানাচ্ছে যে দুর্বল বায়ু নিষ্কাশন ব্যবস্থা সম্বলিত ধাতুর এই ছাদ এত ঘন যে, তার ফলে বিকেল বেলা উত্তাপের কারণে লোকজন ঘরে থাকতে পারে না। এতে তাদের এআরভি বা এন্টিরেট্রোভাইরাল চিকিৎসায় ওষুধ প্রয়োগের পরিমাণ কমে আসতে থাকবে।

উচ্ছেদকৃত এই সব পরিবার বোরেই কেইলা এলাকা থেকে বিতাড়িত হয়েছে। বোরেই কেইলা এলাকায়ও তাদের বসবাসের অবস্থাও খুব একটা ভালো ছিল না, যেমনটা এই ভিডিও দেখাচ্ছে। এটি পোস্ট করেছে লিকাডহো, যা দি হাবেও পোস্ট করা হয়েছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .