বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

পাকিস্তান: গো গ্রীণ প্রচারণা

ফেসবুক বা টুইটারে কি আপনার কোন পাকিস্তানী বন্ধু আছে? যদি থাকে, তাহলে সম্ভবত তাদের প্রোফাইল ছবির পিছনে পাকিস্তানের পতাকা দেখতে পাবেন। এটার কারণ ‘গো গ্রীণ (সবুজের) প্রচারণা’ যা ফারহান মাসুদ আর তার স্বেচ্ছাসেবীর দল সমগ্র পাকিস্তান ব্যাপী শুরু করেছে। তারা পাকিস্তানী টুইটার আর ফেসবুক ব্যবহার কারীদের প্রোফাইল ছবি পাল্টিয়ে দিচ্ছে পেছনে পাকিস্তানের সবুজ পতাকা দিয়ে। ডিজিটাল এই দেশপ্রেমের ব্যাপারটা টি২০ ক্রিকেট বিশ্ব কাপের সময়ও দেখা গেছে, যখন পাকিস্তানী টুইটারকারীরা #পাকক্রিকেট হ্যাশট্যাগকে র‌্যান্কে #৪ নম্বরে নিয়েছিলেন টুইটারে বিশেষ একটি প্রচারণার মাধ্যমে। ১৪ই আগস্ট পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবসকে সামনে রেখে এইবার তারা একই কাজ করতে চাচ্ছেন #পাকিস্তান হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে ।

এই প্রচারণার ব্যাপারে পাকিস্তানিয়াতে আদিল নাজিম মন্তব্য করেছেন:

আমি বিশ্বাস করি- আর আশা করি- যারা সবুজ হচ্ছে তারা আমরা যে কারনে সবুজ হচ্ছি একই কারনে হচ্ছে – জাতীয় গর্বের ধারণা থেকে। আর এই ধারণাতে আমি এই পদক্ষেপকে আমন্ত্রণ করি। আমি সবুজ এক ১৪ই আগস্ট এর জন্য অপেক্ষা করছি। কেবল মাত্র আমাদের অবতারের (প্রোফাইল ছবির) রঙ্গের একত্রতায় না, বরং আমাদের হৃদয় আর মনেও!

তিথ মায়েস্ট্রোতে ড: আওয়াব আলভি তার আনন্দ প্রকাশ করেছেন:

অনলাইনে এমন কর্মক্ষম আর উদ্দীপ্ত পাকিস্তানী গোষ্ঠী দেখে আমি উত্তেজিত। তারা বিস্তৃত টুইটার থেকে ফেসবুক পর্যন্ত আর অর্কুটের মতো প্রাচীন সামাজিক নেটওয়ার্কেও। তরুণ কর্মক্ষম পাকিস্তানীরা তাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করছেন ডিজিটাল জগৎে পাকিস্তান কে নতুন চেহারায় রুপান্তরের জন্য।

পাকফ্যাক্টর এই প্রচারণার সুফল বর্ণনা করেছেন:

“সম্প্রতি টুইটারকারীরা টুইটারের উপরে দখল করেছেন যখন পাকিস্তান প্রথম টি২০ বিশ্ব কাপ জিতেছিল আর উল্লাসী পাকিস্তানীরা সমগ্র বিশ্বব্যাপী টুইট করেছিলেন #পাকক্রিকেট হ্যাশট্যাগ দিয়ে আর তা এক রেকর্ড সৃষ্টি করেছিল। এই স্বাধীনতা দিবসে একই জিনিষের পুনরাবৃত্তি হবে যখন সমগ্র পাকিস্তানী জাতি সামাজিক মিডিয়া দখল করে আর চারিদিকে একটা প্রতীক্ষিত, শান্ত আর আশীর্বাদ পুষ্ট পাকিস্তানের বার্তা পৌঁছায়। পাকিস্তান সম্পর্কে আপনার ধারণা আর ভঙ্গী সম্পর্কে ধণাত্মক থাকুন আর পৃথিবী আমাদের যে ছবি দেখতে চায় না সেটাকে তুলে ধরুন। আমাদেরকে প্রমাণ করতে হবে যে আমরা এক সাথে আছি আর আমরা গর্বিত পাকিস্তানী।“

ফারহান মাসুদ বলেছেন যে “এই প্রচারণা পাকিস্তানী আর প্রবাসী পাকিস্তানীদের মধ্যে সীমাবদ্ধ না রেখে, পাকিস্তানের বন্ধুদেরও উচিত আমাদের স্বাধীনতার উৎসবে যোগদান করা।“ আপনি যদি আপনার প্রোফাইল ছবি পাল্টাতে চান, দয়া করে সেটা ইমেইল করুন Greenkaro@gmail.com এই ঠিকানায়।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .