বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

আজারবাইযান: তরুণ অ্যাকটিভিস্টকে প্রহার ও জেলে পোরা হয়েছে

৮ই জুলাই আজারবাইযানের অন্যতম মাঠ পর্যায়ের ইয়থ মুভমেন্ট (তরুণ আন্দোলন) দি এ্যালমুনাই মুভমেন্ট-এর প্রতিষ্ঠাতা এমিন মিলি এবং ওএল! ইয়থ মুভমেন্টের ভিডিও ব্লগার আদনান হাজিজাদেকে কিছু অপরিচিত ব্যক্তি প্রহার করে। সে সময় এই দুজন একদল নাগরিক সামাজের প্রতিনিধি ও তরুণ অ্যাকটিভিস্টের সাথে বাকুর উপশহরের এক রেস্তোরায় খাবার খাচ্ছিলেন। ঘটনা সমন্ধে পুলিশকে অভিযোগ করার পর পুলিশ অভিযোগকারীকেই আটক করে প্রায় ৪৮ ঘন্টা কারাগারে রাখার উদ্যোগ নেয়।

স্থানীয় এক ব্লগে প্রকাশিত একজন প্রত্যক্ষদর্শীর বক্তব্য:

onlar 7 nefer olublar. yemek yedikleri yerde iki idmanci icheri girib Emini doymeye baslayib. Adnan Emine komek etmek isteyende onu da vurublar.Idmancilar Shobede uzr isteyenden sonra onlari buraxiblar. Adnani ise 2 sutka saxlayacaqlarini ve sonra da xuliqanliga gore hebs vereceklerini deyibler. Emin de Adnanla birlikde qalacagini deyib. Onlari muveqqeti tecridxanasiya apariblar

খাবার সময় টেবিলে সাতজন লোক ছিল। সে সময় দুজন ক্রীড়াবিদ রেস্তোরায় প্রবেশ করে এবং এমিন মিলিকে মারতে শুরু করে। যখন আদনান, মিলিকে সাহায্য করার চেষ্টা করে, তখন তাকেও আঘাত করা শুরু হয়। ক্ষমা চাওয়ার পর ক্রীড়াবিদ দুজনকে পুলিশ স্টেশন থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়। তবে আদনান বলেছে গুন্ডামির অভিযোগে তাকে দুদিন পুলিশ স্টেশনে আটকে রাখা হবে। এমিন জানায়, সেও আদনানের সাথে থাকবে। তাদের দুজনকেই এ অবস্থায় অস্থায়ী বন্দীশালায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীর মতে দুজন দুস্কৃতিকারীকেই আটক করা হয়, কিন্তু পরে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। আদনান এবং এমিন এরপর মূল সন্দেহভাজনের তালিকায় চলে আসে। তাদের আইনজীবিদের সাথে দেখা করার অধিকার দেওয়া হয়নি। তাদের হাতকড়ি পরিয়ে একটা সেলে স্থানান্তর করা হয় এবং ঠিক করা হয় সেখানে তাদের ৪৮ ঘন্টা আটকে রাখা হবে।

এমিনের শরীরে বেশ কয়েকটি ক্ষত তৈরী হয়েছে, এছাড়াও তার পা কেটে গেছে। অন্যদিকে আদনানের নাক ভেঙ্গে গেছে এবং তাদের যথেষ্ট পরিমান চিকিৎসা দেওয়া হয়নি।

উপরের ভিডিওতে একজন প্রত্যক্ষদর্শী ঘটনার ব্যাপারে বলেছেন। সাবটাইটেল আরও পরিস্কার দেখার জন্য ইউটিউবের মুল ভিডিও পাতা দেখুন

তাজা খবর: আজ ৯ই জুলাই, নাগরিক সমাজের অনেক কর্মী এবং প্রতিনিধি, তরুণ আন্দোলনকারীর এবং রাজনৈতিক দল এই দুই তরুণ কর্মীকে রক্ষার জন্য এক প্রতিবাদ সভার আয়োজন করেছে। এই প্রতিবাদ সভার হল “ভীড়ে উপচে পড়ছিল, উদ্বিগ্ন বক্তা, নাগরিক সমাজের প্রচুর লোক ও রাজনৈতিক দলের নেতা, বিদেশি প্রচারণা মাধ্যম সেখানে ছিল, [এবং] কোন স্থানীয় টিভি সাংবাদিক উপস্থিত ছিল না”। আজারবাইযানে অবস্থিত জার্মান রাষ্ট্রদুত একটি দুভার্গ্যের কথা উল্লেখ করেন। এমিন মিলি বেতনভুক্ত নন এমন একজন অনুবাদক। বর্তমানে আজারবাইযানে ভ্রমণ করা জার্মান মানবাধিকার কমিশনের জন্য আগামীকাল তার অনুবাদক-এর কাজ করার কথা ছিল। তার বদলে আগামীকাল এমিন এবং আদনানকে গুন্ডামির অভিযোগে বিচারের কাঠগড়ায় দাড়াতে হবেজেএফএলই থেকে বার্ট উর্ড টুইটার করেছে যে এর আগে এ রকম গুন্ডামির অভিযোগে আজারবাইযানের একজন সাংবাদিকের ২.৫ বছরের জেল হয়েছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .